বৃহস্পতিবার, ২৯ ফেব্রুয়ারি ২০২৪, ১৬ ফাল্গুন ১৪৩০
walton

আত্মগোপনে থেকে অপহরণ নাটক দেড় বছর পর ডিবি'র হাতে ধরা

স্টাফ রিপোর্টার, নোয়াখালী
  ১৩ ফেব্রুয়ারি ২০২৪, ০০:০০

আত্মগোপনে গিয়ে অপহরণের নাটক সাজিয়ে প্রতারণার অভিযোগে এক ব্যক্তিকে গ্রেপ্তার করেছে নোয়াখালী জেলা গোয়েন্দা পুলিশ (ডিবি)। গ্রেপ্তার শের আলী (৩২) জেলার কবিরহাট উপজেলার নলুয়া গ্রামের সামছুদ্দিনের ছেলে।

গত রোববার রাতে কক্সবাজার পৌর বাস টার্মিনালের সামনে থেকে তাকে গ্রেপ্তারের পর বিকালে নোয়াখালীর চীফ জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে উপস্থাপন করা হয়েছে। সোমবার দুপুরে নোয়াখালী জেলা গোয়েন্দা পুলিশের ওসি নাজিম উদ্দিন আহমেদ এ তথ্য নিশ্চিত করেন।

তিনি বলেন, নোয়াখালীর হাতিয়া বাজার এলাকার মোবারকের সঙ্গে চট্টগ্রামের হালিশহর এলাকায় সিএনজিচালিত অটোরিকশা চালানোর সুবাদে শের আলীর ওস্তাদ সাগরেদ সম্পর্ক গড়ে ওঠে। ২০২২ সালের ২২ জুলাই মোবারক মোটর সাইকেল কিনতে শের আলীকে নিয়ে চট্টগ্রামে যান। মোবারক মোটর সাইকেল কেনার ১ লাখ ২০ হাজার টাকা ও একটি অ্যান্ড্রয়েট মোবাইল সেট তার কাছে রাখতে দেন। এ সময় শের আলী কৌশলে টাকা ও মোবাইল সেট নিয়ে পালিয়ে যান। এরপর ২০২২ সালের ২২ সেপ্টেম্বর মোবারক ও তার বন্ধু ইউসুফ নিজ নলুয়া জনতা বাজারে স্থানীয়দের বিষয়টি জানালে এ নিয়ে সালিশ হয়। সালিশে বিষয়টি অমীমাংসিত থাকায় স্থানীয়রা হাতিয়ার হরণী ইউনিয়নের চেয়ারম্যানের শরণাপন্ন হন। একই দিন মোবারক ও শের আলী হরণী ইউনিয়নের বয়ারচর বাজারে যান। সেখান থেকে শের আলী পালিয়ে যান।

পরবর্তীতে তার চাচা দেলোয়ার হোসেন বিটু শের আলী ও তার ছেলে মারুফ অপহরণ হয়েছে অভিযোগে তার সঙ্গে জমি নিয়ে পূর্ব বিরোধ থাকা শামছুল হক মাঝিসহ এলাকার আরও ৯ জন এবং মোবারক ও তার বন্ধু ইউসুফের বিরুদ্ধে ২০২২ সালের ১২ জুলাই আদালতে অপহরণ মামলা করেন। আদালতের নির্দেশে কবিরহাট থানায় মামলা রুজু হয়। মামলার তদন্তভার ডিবি পুলিশে ন্যস্ত হয়।

জেলা গোয়েন্দা পুলিশের ওসি নাজিম উদ্দিন আহমেদ আরও বলেন, কথিত ভিকটিম শের আলী পেশায় একজন ড্রাইভার। সে খুবই চুতর ও ধূর্ত প্রকৃতির। গোপন সংবাদের ভিত্তিতে তাকে গ্রেপ্তার করা হয়।

  • সর্বশেষ
  • জনপ্রিয়

উপরে