বুধবার, ২৪ জুলাই ২০২৪, ৮ শ্রাবণ ১৪৩১

ভাঙ্গায় ঘরমুখো মানুষের ভিড় গাড়ির চাপ বাড়লেও নেই যানজট

ভাঙ্গা (ফরিদপুর) প্রতিনিধি
  ১৫ জুন ২০২৪, ০০:০০
ভাঙ্গায় ঘরমুখো মানুষের ভিড় গাড়ির চাপ বাড়লেও নেই যানজট

পবিত্র ঈদুল আজহা উপলক্ষে ফরিদপুরের ভাঙ্গায় ঘরমুখো যাত্রীদের প্রচন্ড চাপ লক্ষ্য করা গেছে। শুক্রবার সকাল থেকে ঢাকা-খুলনা এবং বরিশালগামী যাত্রীদের একটি অংশ ঢাকা থেকে লোকাল বাসে ভাঙ্গা এসে গন্তব্যে যাওয়ার জন্য ভাঙ্গা দক্ষিণপাড় বাসস্ট্যান্ড এবং হাইওয়ে থানার সামনে অবস্থান করছে। ভাঙ্গা থেকে তারা বিভিন্ন পরিবহণে গ্রামের বাড়ি যাওয়ার জন্য অপেক্ষায় রয়েছে। ঢাকা থেকে সরাসরি বাসে টিকিট না পাওয়ায় তারা ভেঙ্গে ভেঙ্গে বাড়ির উদ্দেশে রওনা করছে।

এদিকে ঢাকা-ভাঙ্গা জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান এক্সপ্রেসওয়ের ভাঙ্গা উপজেলার বগাইল টোল পস্নাজায় বেলা বারোটার দিকে গিয়ে দেখা যায়, ঢাকা থেকে বরিশাল এবং খুলনাগামী বাস, প্রাইভেট কার, মাইক্রো এবং মোটর সাইকেলের ব্যাপক চাপ রয়েছে। বগাইল টোল পস্নাজা কর্তৃপক্ষ ছয়টি লেন বরিশাল এবং খুলনাগামী যানবাহনের জন্য খুলে দিয়েছে। অন্যদিকে খুলনা এবং বরিশাল থেকে ঢাকাগামী যানবাহনের জন্য চারটি লেন খোলা রয়েছে। ঢাকার দিকে যানবাহনের চাপ খুব কম। অন্যদিকে খুলনা এবং বরিশালের উদ্দেশে যাত্রা করা গাড়ির চাপ খুব বেশি। যানজট নেই, তবে গাড়ির চাপ প্রচন্ড ছিল।

মোবাইল টোল পস্নাজা সূত্রে জানা গেছে, টোল পস্নাজায় মোট ১২টি লেন রয়েছে। এরমধ্যে দুটি লেনের মেরামত কাজ চলমান রয়েছে। ভাঙ্গার টোল পস্নাজার একটি বুথের টোল উত্তোলনকারী ফেরদৌস জামান বলেন, শুক্রবার সকালে ঢাকা থেকে খুলনা ও বরিশালের উদ্দেশে যাত্রা করা মোটর সাইকেল ও প্রাইভেটকারের প্রচুর চাপ ছিল। দুপুরের দিকে এসব যানবাহনের চাপ কিছুটা কমেছে। তবে গাড়ির চাপ বেড়েছে। টোল পস্নাজায় যানবাহন নিয়ন্ত্রণকারী দেলোয়ার হোসেন বলেন, কোরবানি ঈদের কারণে বাড়িমুখী মানুষের ভিড় আজ (শুক্রবার) থেকে বেড়েছে। সকালে এই ভিড় খুব বেশি ছিল।

ভাঙ্গা দক্ষিণ পাড় বাসস্ট্যান্ডে বাসের জন্য অপেক্ষমাণ যাত্রী বরিশালের গৌরনদীর বাসিন্দা এনায়েত হোসেন (৪৫) জানান, তিনি একটি প্রতিষ্ঠানে ঢাকায় চাকরি করেন। গত বৃহস্পতিবার প্রতিষ্ঠানটি ছুটি হয়েছে। পরিবার নিয়ে এসেছেন। কিন্তু বাসের টিকিট সরাসরি না পাওয়ায় ঢাকা থেকে ভাঙ্গা লোকাল বাসে এসেছেন তারা। ভাঙ্গা থেকে বিশেষ কিছু পরিবহণ বরিশালের উদ্দেশে চালু হয়েছে। তিনি জনপ্রতি ৩০০ টাকা দিয়ে টিকিট কিনেছেন। তিনি বলেন, ভাড়া একটু বেশি, তবে বাসে উঠতে পেরেছেন এটাই আনন্দের।

ভাঙ্গা হাইওয়ে থানার সামনে অবস্থানকারী খুলনায় বসবাসকারী যাত্রী আকবর হোসেন বলেন, ঢাকা থেকে ভাঙ্গায় লোকাল বাসে এসেছেন। সবার সঙ্গে বাড়িতে ঈদ করবেন। গাড়ির জন্য এখানে দাঁড়িয়ে আছেন। গাড়ি পাচ্ছেন না। গাড়ি পেলে বাড়ি চলে যাবেন।

ভাঙ্গা হাইওয়ে থানার উপরিদর্শক আব্দুলস্নাহ হেল বাকি বলেন, 'আমরা সড়কে অবস্থান করছি। কোরবানি ঈদ উপলক্ষে বাড়িমুখো যাত্রীদের নিশ্ছিদ্র নিরাপত্তা দিতে আমরা দিন রাত কাজ করে চলেছি। আশা করি এবারের ঈদযাত্রা সুন্দর হবে।'

  • সর্বশেষ
  • জনপ্রিয়

উপরে