লকডাউনেও সংক্রমণের ঊর্ধ্বগতি দিনাজপুর, বাগেরহাট ও কুষ্টিয়ায়

লকডাউনেও সংক্রমণের ঊর্ধ্বগতি দিনাজপুর, বাগেরহাট ও কুষ্টিয়ায়

করোনায় সংক্রমণের ঊর্ধ্বমুখী হার ও মৃতু্য কোনোভাবেই কমানো যাচ্ছে না দেশের কয়েকটি এলাকায়। কঠোর লকডাউন দিয়েও এসব এলাকায় করোনা শনাক্তের হারে লাগাম দেওয়া সম্ভব হচ্ছে না। এর মধ্যে লকডাউন ঘোষিত দিনাজপুর সদর উপজেলায় শনাক্তের হার ৬০ দশমিক ৭৮ শতাংশ, জেলায় এ হার ৪৮ দশমিক ২ শতাংশ। কঠোর বিধিনিষেধ জারি করা বাগেরহাটে শনাক্তের হার ৩৪ দশমিক ৪২ শতাংশ। এছাড়া কুষ্টিয়ায় কঠোর লকডাউনের চতুর্থ দিনেও শনাক্তের হার ৩০ দশমিক ৭৫ শতাংশ।

দিনাজপুর জেলায় গত ২৪ ঘণ্টায় ১ হাজার ২ জনের নমুনা পরীক্ষা করে ৪৮৩ জনের করোনা শনাক্ত হয়েছে। শনাক্তের হার ৪৮ দশমিক ২ শতাংশ। এর মধ্যে লকডাউন ঘোষিত দিনাজপুর সদর উপজেলাতেই ৫১৫ জনের নমুনা পরীক্ষা করে ৩১৩ জনের করোনা শনাক্ত হয়েছে। শনাক্তের হার ৬০ দশমিক ৭৮ শতাংশ। এ নিয়ে সদর উপজেলায় করোনায় আক্রান্ত ব্যক্তির সংখ্যা ৪ হাজার ৫৬৭।

এ সময়ে জেলায় করোনায় আক্রান্ত হয়ে তিনজনের মৃতু্য হয়েছে। তিনজনই সদর উপজেলার বাসিন্দা। এ নিয়ে সদর উপজেলায় করোনায় মৃত ব্যক্তির সংখ্যা ৮০। যেখানে পুরো জেলায় করোনায় আক্রান্ত হয়ে মৃত ব্যক্তির সংখ্যা ১৫৮। বর্তমানে জেলায় চিকিৎসাধীন করোনা রোগী ১ হাজার ৬৭৮ জন। এর মধ্যে হাসপাতালে চিকিৎসাধীন ১২৪ জন।

বাগেরহাট প্রতিনিধি জানান, করোনাভাইরাসে বাগেরহাট জেলায় গত ২৪ ঘণ্টায় আরও ৪২ জন সংক্রমিত হয়েছেন। বুধবার ১২২ জনের নমুনা পরীক্ষায় ৪২ জন পজিটিভ হন। যার শতকরা হার ৩৪.৪২%।

বাগেরহাটের সিভিল সার্জন ডা. কে এম হুমায়ুন কবির বৃহস্পতিবার সকালে জানান, ১২২ জনের নমুনা পরীক্ষায় ৪২ জন করোনা পজিটিভ হয়েছে। তবে মোংলা বন্দর এলাকায় সংক্রমণের হার বেশি বৃদ্ধি পেয়েছে। সবমিলিয়ে বাগেরহাটে সংক্রমণ বেড়ে যাওয়ায় বুধবার বিকালে জেলা প্রশাসনের উদ্যোগে করোনা প্রতিরোধ সংক্রান্ত জেলা মনিটরিং কমিটি ভার্চুয়াল এক জরুরি সভা করে এবং বৃহস্পতিবার সকাল ৬টা থেকে কঠোর বিধিনিষেধ জারি করেছে, যা চলবে আগামী ৩০ জুন মধ্যরাত পর্যন্ত।

জেলা প্রশাসক মোহাম্মাদ আজিজুর রহমান বিধিনিষেধ বাস্তবায়ন করতে সবার সহযোগিতা কামনা করেছেন।

এদিকে, কুষ্টিয়া জেলায় বুধবার সকাল ৮টা থেকে বৃহস্পতিবার সকাল ৮টা পর্যন্ত ২৪ ঘণ্টায় করোনায় আক্রান্ত হয়ে ৭ জনের মৃতু্য হয়েছে। এ সময়ে কুষ্টিয়া মেডিকেল কলেজের পিসিআর ল্যাব ও বিভিন্ন উপজেলা স্বাস্থ্য কমপেস্নক্সে অ্যান্টিজেন পরীক্ষাসহ ৪৫২ জনের নমুনা পরীক্ষা করে ১৩৯ জনের করোনা পজিটিভ শনাক্ত হয়েছে। শনাক্তের হার ৩০ দশমিক ৭৫ শতাংশ। বৃহস্পতিবার সকালে জেলা সিভিল সার্জনের কার্যালয় সূত্রে এ তথ্য জানা গেছে।

সিভিল সার্জন কার্যালয় সূত্র জানায়, এ পর্যন্ত জেলায় করোনায় আক্রান্ত ব্যক্তির সংখ্যা ৬ হাজার ৮০২ এবং মৃতু্য ১৭৩। গত ৭ দিনে জেলায় ২ হাজার ৬৭১ জনের নমুনা পরীক্ষায় ৮৯৫ জনের করোনা শনাক্ত হয়েছে এবং শনাক্তের হার ৩৩ দশমিক ৫১ শতাংশ। এ সময়ে করোনায় মারা গেছেন ৩৭ জন।

গত ২৪ ঘণ্টায় করোনা থেকে সুস্থ হয়েছেন ৪১ জন। এ সময়ে জেলায় নতুন করে ৩৭ রোগী হাসপাতালে ভর্তি হয়েছেন।

বৃহস্পতিবার ছিল জেলায় কঠোর লকডাউনের চতুর্থ দিন। লকডাউন কার্যকর করার জন্য জেলা শহরের বিভিন্ন স্থানে চেকপোস্ট বসিয়েছে পুলিশ। এছাড়া ভ্রাম্যমাণ আদালত অভিযান পরিচালনা করছেন।

  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

আরও খবর

Copyright JaiJaiDin ©2021

Design and developed by Orangebd


উপরে