দুর্নীতি ও অব্যবস্থাপনার কারণেই দ্রব্যমূল্য বাড়ছে -মির্জা ফখরুল

বাম দলের হরতালে বিএনপির সমর্থন
দুর্নীতি ও অব্যবস্থাপনার কারণেই দ্রব্যমূল্য বাড়ছে -মির্জা ফখরুল

দ্রব্যমূল্যের ঊর্ধ্বগতির প্রতিবাদে আগামী ২৫ আগস্ট বাম দলীয় জোটের সারাদেশে আধা বেলা হরতালকে সমর্থন জানিয়ে বিএনপির পক্ষ থেকে বলা হয়েছে, বিএনপি যে কোনো দলের যে কোনো ন্যায়সঙ্গত দাবির আন্দোলন সমর্থন করে।

দলের মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর বলেছেন, ভোটারবিহীন অবৈধ সরকারের কিছু সুবিধাভোগী দুর্নীতিবাজ ব্যবসায়ী চক্রের হাতে দৈনন্দিন ভোগ্যপণ্যের বাজার ব্যবস্থাপনা জিম্মি। এই দুর্নীতিবাজ চক্রের শীর্ষ অবস্থানে রয়েছে সরকারের চালিকাশক্তিরাই। মূলত সরকারের 'দুর্নীতি' ও 'অব্যবস্থাপনা'র কারণেই নিত্যপ্রয়োজনীয় দ্রব্যমূল্য বৃদ্ধি পাচ্ছে।

বুধবার গুলশানে চেয়ারপারসনের কার্যালয়ে দৈনন্দির ভোগ্যপণ্য পরিস্থিতি তুলে ধরে এক সংবাদ সম্মেলনে বাম দলের হরতালে দলের অবস্থান জানিয়ে বিএনপি মহাসচিব এসব কখা বলেন।

মির্জা ফখরুল ইসলাম বলেন, এখানকার যে মূল্যস্ফীতি, অর্থনৈতিক দুরবস্থা এর সবকিছুর মূলে হচ্ছে সরকারের দুর্নীতি। দুর্নীতির কারণেই দ্রব্যমূল্য বাড়ছে, তাদের দুর্নীতির কারণেই আজকে সারাদেশে নিত্যপ্রয়োজনীয় পণ্যমূল্যের পাগলা ঘোড়ার দাপটে মধ্যবিত্ত, নিম্ন মধ্যবিত্ত ও হতদরিদ্ররা

\হপিষ্ট হচ্ছে প্রতিনিয়ত।

তিনি বলেন, যেখানে সরকারের বিনিয়োগ করার প্রয়োজন নেই সরকার সেখানে টাকা দিচ্ছে। ১০ হাজার কোটি টাকার পদ্মাসেতু ৩০ হাজার কোটি টাকার ওপরে নিয়ে গেল। এয়ারপোর্টের রাস্তায় প্রতি কিলোমিটারে ২৩০ কোটি টাকা খরচ হচ্ছে। অথচ ১০ বছরে এখন পর্যন্ত একই অবস্থায় পড়ে আছে। জ্বালানি তেলের বেলায় একইভাবে দুর্নীতি করেছে, বিদু্যতে হাজার হাজার কোটি টাকা পাচার করেছে। সম্পূর্ণভাবে দুর্নীতির কারণে দ্রব্যমূল্য বৃদ্ধি পাচ্ছে। ১৯৭৪ সালে তারা এভাবে দুর্নীতি করেছে, আজকেও একইভাবে তারা দুর্নীতি করছে।

এই অবস্থার পরিবর্তনে 'রাজপথে আন্দোলন' সংগঠিত হওয়ার কথা উলেস্নখ করে মির্জা ফখরুল বলেন, এই দুর্নীতিবাজ সরকারের জনগণের কাছে কোনো দায়বদ্ধতা নেই। তারা জনগণের কল্যাণের তোয়াক্কা না করে নিদারুণভাবে নিষ্ঠুর ও নির্দয় হয়ে পড়েছে। আসুন ঐক্যবদ্ধভাবে রাজপথে গণআন্দোলনের মাধ্যমে এই সরকারকে বিদায় করি।

দেশের নিত্যপ্রয়োজনীয় দ্রব্যমূল্যের ঊর্ধ্বগতি ?ও মূল্যস্ফীতির তুলনামূলক চিত্র তুলে ধরে বিএনপি মহাসচিব বলেন, সরকারি হিসেবেই গত জুন মাসের মূল্যস্ফীতিতে দাঁড়িয়েছে ৭ দশমিক ৫৬ ভাগ যা গত ৯ বছরে সর্বোচ্চ রেকর্ড। বর্তমানে মানুষের ক্রয়ক্ষমতাও অনেক কমে গেছে। নিত্য পণ্যের দাম বেড়ে যাওয়ায় সীমিত আয়ের মানুষ নানাভাবে ব্যয় কমিয়ে টিকে থাকার চেষ্টা করছেন। মানুষ যখন চরম দুরবস্থার মধ্যে দিনাতিপাত করছে তখন সরকারের মন্ত্রীদের আবোল-তাবোল বক্তব্য কাটা ঘায়ে নুনের ছিঁটার মতোই মনে হয়। মানুষের দুরবস্থা নিয়ে মন্ত্রীরা তামাশা করছেন।

আয়নাঘরে বন্দি ও নেত্র নিউজ প্রতিবেদন প্রসঙ্গে মির্জা ফখরুল বলেন, এই যে গুম করে নিয়ে যায়, তারপরে অনেককে গুম করে রাখে, অনেককে মেরে ফেলে, তারপরে অনেককে ছেড়ে দেয়, তারপরে তারা ভয়ে কোনো কথা বলে না- এই বিষয়গুলো বিএনপি বহুবার বলেছে।

সংবাদ সম্মেলনে বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য মির্জা আব্বাস, ড. আবদুল মঈন খান ও নজরুল ইসলাম খান উপস্থিত ছিলেন।

  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

আরও খবর

Copyright JaiJaiDin ©2022

Design and developed by Orangebd


উপরে