সাইফের কাছে মোহামেডানের হার !

সাইফের কাছে মোহামেডানের হার !
কুমিলস্নার শহীদ ধীরেন্দ্র নাথ স্টেডিয়ামে বৃহস্পতিবার বাংলাদেশ প্রিমিয়ার ফুটবল লিগে মোহামেডান স্পোর্টিংয়ের বিপক্ষে গোল করার পর উচ্ছ্বসিত সাইফের খেলোয়াড়রা -বাফুফে

বাংলাদেশ প্রিমিয়ার ফুটবল লিগে ভিন্ন ম্যাচে ঐতিহ্যবাহী ঢাকা মোহামেডান স্পোর্টিং ক্লাব ও আরামবাগ ক্রীড়া সংঘ। জয় পেয়েছে সাইফ স্পোর্র্টিং ক্লাব ও চট্টগ্রাম আবাহনী। বৃহস্পতিবার বঙ্গবন্ধু স্টেডিয়ামে অনুষ্ঠিত প্রথম ম্যাচে ব্রাজিলিয়ান ফরোয়ার্ড নিক্সন ব্রিজলারার একমাত্র গোলে আরামবাগকে ১-০ গোলে হারায় চট্টগ্রাম আবাহনী। অন্যদিকে কুমিলস্নার শহীদ ধীরেন্দ্রনাথ স্টেডিয়ামে ঐতিহ্যবাহী মোহামেডান স্পোর্টিং ক্লাবকে ২-১ গোলে হারায় সাইফ স্পোর্টিং। সাইফের গোল দুটি করেন আরিফুর ও জন অকিল। মোহামেডানের পক্ষে একমাত্র গোলটি করেন জাপানিজ মিডফিল্ডার ওরিও নাগাতা।

কিডস অ্যাথলেটিকস উপলক্ষে আজ শুক্রবার বঙ্গবন্ধু স্টেডিয়ামে প্রিমিয়ার লিগে কোনো ম্যাচ থাকছে না। আগামীকাল শনিবার থেকে শুরু হবে লিগের তৃতীয় রাউন্ডের খেলা।

বঙ্গবন্ধু স্টেডিয়ামে ম্যাচ শুরুর প্রথম দু'মিনিটেই গোলের দারুণ দুটি সুযোগ সৃষ্টি করেছিল চট্টগ্রাম আবাহনী। ১ মিনিটে ডানপ্রান্তে ডিফেন্ডার মনির আলমের কর্নারে বক্সে হেড নিয়েছিলেন সতীর্থ ফুটবলার। কিন্তু লক্ষ্যে বল পাঠাতে পারেননি। পরের মিনিটে বা প্রান্ত থেকে সতীর্থর ক্রসে বক্সে বল পেয়ে শুয়ে পড়ে হেড নিয়েছিলেন চট্টগ্রামের নাইজেরিয়ান মিডফিল্ডার চিনেদু ম্যাথিও। কিন্তু তার হেডও অল্পের জন্য খুঁজে পায়নি জাল। ১০ মিনিটে গোলের সুবর্ণ সুযোগ হাতছাড়া হয়েছে আরামবাগ ক্রীড়া সংঘেরও। বক্সের বাইরে ডানপ্রান্ত থেকে নাইজেরিয়ান ফরোয়ার্ড ক্রিস্টোফার চিজোবা দুর্দান্ত এক শট নিয়েছিলেন। কিন্তু দুর্ভাগ্যজনকভাবে বল বা পোস্টে লেগে ফেরত আসে। ফিরতি বলে আরও একবার চেষ্টা করেছিলেন ফরোয়ার্ড নিহাত জামান উচ্ছ্বাস। কিন্তু তিনিও ব্যর্থ হওয়াতে হতাশা নেমে আসে আরামবাগ শিবিরে। ২৪ মিনিটে চট্টলার মিডফিল্ডার রাকিব হোসেন বক্সের বেশ কাছে থেকে যে ফ্রি কিকটি করেন তা ফিরিয়ে দেন প্রতিপক্ষ গোলরক্ষক। ২৭ মিনিটে বা প্রান্ত থেকে মনির আলম দারুণ একটি ক্রস বাড়িয়েছিলেন বক্সে থাকা সতীর্থকে উদ্দেশ্য করে। কিন্তু বল বক্সে ঢুকতেই গ্রিপে নিয়ে নেন আরামবাগের গোলরক্ষক আবুল কাশেম মিলন। তবে ৩০ মিনিটে গোলমুখ খুলতে সক্ষম হয়েছে মারুফুল হকের শিষ্যরা। ডানপ্রান্ত থেকে নাইজেরিয়ান চিনেদু ম্যাথিও দারুণ সুন্দর একটি ক্রস বাড়িয়ে দেন। বুক দিয়ে বল রিসিভ করে তাতে ডান পায়ে ফাইনাল টাচ দিয়ে লক্ষ্যভেদ করেন ব্রাজিলিয়ান ফরোয়ার্ড নিক্সন (১-০)। ৪০ মিনিটে ব্যবধান দ্বিগুণ করার সুযোগ এসেছিল বন্দর নগরীর দলটি। একই রকমভাবে এবারও ডানপ্রান্ত থেকে ক্রস বাড়িয়েছিলেন চিনেদু। তবে এবার বক্সে তার সতীর্থ ফুটবলার বল রিসিভ করার আগেই ক্লিয়ার করেছেন আরামবাগের ডিফেন্ডাররা। প্রথমার্ধের ইনজুরি টাইমে বক্সের বাইরে থেকে আরামবাগের অস্ট্রেলিয়ান ডিফেন্ডার ব্র্যাডি স্মিথ এর ফ্রি কিক বক্সে বাধা পড়ে চট্টলার রক্ষণে। প্রথমার্ধ এগিয়ে থেকেই বিশ্রামে যায় চট্টগ্রাম আবাহনী। ৪৬ মিনিটে প্রায় মাঝ মাঠ থেকে বলের জোগান দিয়েছিলেন চার্লস দিদিয়ের। সতীর্থ ডিফেন্ডার মঞ্জুরুর রহমান মানিক বল নিয়ে বা প্রান্ত দিয়ে উঁচু ক্রসে বল পাঠান বক্সে। তবে এবার প্রস্তুত ছিলেন সুব্রত ভট্টাচার্যের শিষ্যরা। তাই বিপদ ঘটেনি। ৫০ মিনিটে ম্যাচে ফেরার দারুণ সুযোগ হাতছাড়া করেছে আরামবাগ। নিজেদের মধ্যে বল আদান-প্রদান করতে করতে প্রায় মাঝ মাঠ থেকে চট্টলার অর্ধে ঢুকে পড়েন আরামবাগের ফুটবলাররা। বা প্রান্ত থেকে দারুণ একটা ক্রস বাড়িয়েছিলেন ফরোয়ার্ড মুরাদ হোসেন চৌধুরী। কিন্তু বক্সে বল ক্লিয়ার করেন উজবেক ডিফেন্ডার পোলাতভ শুকুর আলী। কিন্তু তখনও বিপদ কাটেনি। বল পেয়ে যান আরামবাগের ক্রিস্টোফার। জোরালো শটও নেন। তবে বল চলে যায় বারের বেশ ওপর দিয়ে। ৫৮ মিনিটে চার ডিফেন্ডারকে কাটিয়ে বক্সে ঢুকে পড়েন চিনেদু। বেশ কিছুক্ষণ বল নিজের নিয়ন্ত্রণে রাখলেও শট নিতে ব্যর্থ হন। ৫৯ মিনিটে বক্সে ঢুকে আরাফাত যে শট নেন সেটি বস্নক করতে গিয়ে বেশ আহত হন চট্টলার মিডফিল্ডার সোহেল রানা। ৬১ মিনিটে বক্সের প্রায় ৩০ গজ দূর থেকে আরামবাগ ডিফেন্ডার জাহিদুল ইসলাম বাবুর দূরপালস্নার শট ঠেকিয়ে দেন প্রতিপক্ষ গোলরক্ষক নাঈম। ৯০ মিনিটে আরামবাগের রাসেল মুন্সি গোলমূখে যে শট নেন সেটি লক্ষ্যভ্রষ্ট হয়। রেফারি শেষ বাঁশি বাজালে পূর্ণ তিন পয়েন্ট নিয়েই মাঠ ছাড়ে চট্টগ্রাম আবাহনী।

  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

আরও খবর

Copyright JaiJaiDin ©2021

Design and developed by Orangebd


উপরে