একনজরে টি২০ বিশ্বকাপ

একনজরে টি২০ বিশ্বকাপ

মরুর বুকে আইসিসি টি২০ বিশ্বকাপ শুরু হয়েছে গতকাল। ওমানের আল আমিরাত ক্রিকেট স্টেডিয়ামে ওমান ও পাপুয়া নিউগিনির ম্যাচ দিয়ে আসরের যাত্রা শুরু হয়েছে। একই মাঠে রাতে অনুষ্ঠিত হয় বাংলাদেশ-স্কটল্যান্ডের ম্যাচ।

পাঁচ বছর পর শুরু হওয়া টি২০ বিশ্বকাপের গুরুত্বপূর্ণ তথ্যগুলো ক্রিকেটপ্রেমীদের জন্য তুলে ধরা হলো-

* ২০১৬ সালের পর টি২০ বিশ্বকাপ শুরু হয়েছে রোববার। ২০১৬ সালের আয়োজক ছিল ভারত, এবারের আয়োজকও ভারত।

* টি২০ বিশ্বকাপ ২০১৮ সালে হওয়ার কথা ছিল। কিন্তু ২০১৯ সালে ওয়ানডে বিশ্বকাপের জন্য আসরটি বাতিল করা হয়। এরপর ২০২০ সালে অস্ট্রেলিয়ার মাটিতে হওয়ার কথা থাকলেও করোনার কারণে স্থগিত হয়ে যায়।

* ২০২১ সালের আসরটি সংযুক্ত আরব আমিরাত ও ওমান- এই দুই দেশে অনুষ্ঠিত হচ্ছে। তবে ভারতের তত্ত্বাবধানেই হচ্ছে সব কিছু।

* ১৬টি দল বিশ্বকাপে অংশ নিচ্ছে। তবে মূল পর্বে অংশ নেবে ১২টি। বাছাই পর্ব থেকে বাদ যাবে ৪টি দল।

* চারটি ভেনু্যতে বিশ্বকাপের ম্যাচগুলো অনুষ্ঠিত হচ্ছে।

* বৃষ্টি বাধায় কিংবা অন্য কারণে খেলা শুরু হতে দেরি হলে, নূ্যনতম ওভারের সংখ্যাও বাড়ানো হবে। এতদিন পাঁচ ওভার খেলা হলেই ফল আসতো দুর্গত ম্যাচের। এই নিয়মই বজায় থাকবে বিশ্বকাপের গ্রম্নপ পর্বের ম্যাচেও।

* সেমিফাইনাল ও ফাইনালে বদলে যাবে এই নিয়ম। অন্তত ১০ ওভার খেলা না হলে পরিত্যক্ত ঘোষণা করা হবে গুরুত্বপূর্ণ ওই ম্যাচটি।

* টুর্নামেন্টে প্রতিটি জয়ে মিলবে ২ পয়েন্ট। টাই হলে পাওয়া যাবে ১ পয়েন্ট। কোনো ফল বের না হলে এবং ম্যাচ পরিত্যক্ত হলে কোনো পয়েন্ট পাওয়া যাবে না।

* সমান পয়েন্ট নিয়ে যদি দুই দল গ্রম্নপ পর্বের খেলা শেষ করে তখন প্রথমে বিবেচনায় আসবে- নম্বর অব উইন, নেট রান রেট, হেড টু হেড ফলাফল, অরিজিনাল প্রথম রাউন্ড/সুপার ১২ সিডেংস।

* প্রথমবারের মতো টি২০ বিশ্বকাপে ডিআরএস ব্যবহার করা হচ্ছে। প্রত্যেক দল দুটি করে রিভিউ পাবে।

* ম্যাচ টাই হলে সুপার ওভারে খেলা হবে। সুপার ওভারেও খেলা টাই হলে লাগাতার ম্যাচ খেলতে থাকবে যতক্ষণ না পর্যন্ত কোনো দল জিতবে। সুপার ওভারে আবহওয়া ও অন্য কোনো প্রতিকূল পরিস্থিতিতে ম্যাচ না হলে টাই বিবেচনা করা হবে।

* সেমিফাইনালে যদি এমন কিছু হয় তাহলে সুপার টুয়েলভে যে দল পয়েন্ট তালিকার শীর্ষে ছিল তারা ফাইনাল খেলবে। যদি ফাইনালে এমন কিছু হয় তাহলে যুগ্মভাবে দুই দলকে বিজয়ী ঘোষণা করা হবে।

* কোনো রিজার্ভ ডে নেই। আম্পায়াররা ম্যাচ চালানোর সর্বাত্মক চেষ্টা করবেন। ৫ ওভার হলেও ম্যাচ খেলার চেষ্টা চালাতে হবে।

* বিশ্বকাপের ফাইনাল ১৪ নভেম্বর।

* বিশ্বকাপে যারা ঘরে তুলবে তারা ১.৬ মিলিয়ন ডলার পুরস্কার পাবে। রানার্সআপ পাবে ৮ লাখ ডলার। সেমিফাইনালে হেরে যাওয়া দল পাবে ৪ লাখ ডলার করে।

* দর্শকরা মাঠে ঢুকে খেলা দেখতে পারবেন। ধারণক্ষমতার ৭০ শতাংশ দর্শক মাঠে বসে খেলা দেখতে পারবেন।

  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

আরও খবর

সকল ফিচার

রঙ বেরঙ
উনিশ বিশ
জেজেডি ফ্রেন্ডস ফোরাম
নন্দিনী
আইন ও বিচার
ক্যাম্পাস
হাট্টি মা টিম টিম
তারার মেলা
সাহিত্য
সুস্বাস্থ্য
কৃষি ও সম্ভাবনা
বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি

Copyright JaiJaiDin ©2021

Design and developed by Orangebd


উপরে