পুলিশকে হারিয়ে কোয়ার্টার ফাইনালে বসুন্ধরা

পুলিশকে হারিয়ে কোয়ার্টার ফাইনালে বসুন্ধরা

স্বাধীনতাকাপ ফুটবল টুর্নামেন্টের শেষ আট নিশ্চিত করেছে বর্তমান চ্যাম্পিয়ন বসুন্ধরা কিংস। শনিবার বীরশ্রেষ্ঠ শহীদ সিপাহি মোস্তফা কামাল স্টেডিয়ামে তারা পুলিশ ফুটবল ক্লাবের বিপক্ষে বহু কষ্টে ১-০ গোলের জয় পায়। তবে এই জয়েই দুই ম্যাচে ৬ পয়েন্ট নিয়ে গ্রম্নপ 'ডি' থেকে প্রথম দল হিসেবে কোয়ার্টারে পৌঁছে গেছে কিংসরা। পেনাল্টি থেকে ম্যাচের একমাত্র গোলটি করেছেন কিংসের ব্রাজিলিয়ান ফরোয়ার্ড রবসন রবিনহো।

টুর্নামেন্টে নৌবাহিনীর বিপক্ষে ৬-০ গোলের বড় জয়ে শুরু বর্তমান চ্যাম্পিয়ন বসুন্ধরার। তবে দ্বিতীয় ম্যাচে সেই কিংসকে খুঁজেই পাওয়া যায়নি। পুরো ম্যাচেই বসুন্ধরার সঙ্গে দারুণ লড়াই করেছে শক্তিতে পিছিয়ে থাকা পুলিশ ফুটবল ক্লাব। তবে আক্রমণাত্মক ফুটবলটা বেশি খেলেছে কাগজে-কলমে এগিয়ে থাকা বসুন্ধরা। ৬ মিনিটে কিংসের ব্রাজিলিয়ান মিডফিল্ডার ফার্নান্দেজের নিচু কর্নার কিক বক্সে পেয়েও কাজে লাগাতে পারেননি তারিক কাজী। পরের মিনিটে আবারো ফার্নান্দেজের কর্নার সরাসরি গ্রিপে নেন পুলিশের গোলরক্ষক নেহাল। ১৪ মিনিটে পুলিশের আফগান ফরোয়ার্ড আমীর উদ্দিন শরীফি বল নিয়ে বক্সে ঢুকে গেলেও দারুণ দক্ষতায় বিপদমুক্ত করেন মিডফিল্ডার মাসুক মিয়া জনি। ১৫ মিনিটে ম্যাচে লিড নেয় কিংস। নিজেদের বক্সে জোনাথন ফার্নান্দেজকে ফাউল করেন পুলিশের এক ডিফেন্ডার। পেনাল্টি পায় বসুন্ধরা। ১৬ মিনিটে ব্রাজিলিয়ান ফরোয়ার্ড রবসন রবিনহোর স্পটকিক সরাসরি আশ্রয় নেয় পুলিশের জালে (১-০)।

২০ মিনিটে বা প্রান্ত থেকে পুলিশের ঈসা ফয়সালের ফ্রি কিক আটকে দিতে তেমন কোন সমস্যায় পড়তে হয়নি গোলরক্ষক জিকোকে। ৩১ মিনিটে বক্সের বা প্রান্ত থেকে রাজুর বা পায়ের শট কিংসের রক্ষণে বাধা পেয়ে ফিরে আসলে হেড নেন ম্যাথুস বাবলু। কিন্তু এবারও পরাস্ত করা সম্ভব হয়নি জিকোকে। ইনজুরি টাইমে অফসাইডের ফাঁদে পড়ে প্রথমবার কিংসের জালে বল পাঠিয়েও গোল পাননি ব্রাজিলিয়ান ডিফেন্ডার ডানিলো। প্রথমার্ধ এগিয়ে থেকেই বিশ্রামে যায় বসুন্ধরা। ৪৮ মিনিটে বক্সের বাইরে থেকে জোনাথনের ক্রসে দারুণ হেড দিয়েছিলেন বসনিয়ান মিডফিল্ডার স্টোজান ভ্রানজেস। কিন্তু বল ফিস্ট করে দলকে বিপদমুক্ত করেন নেহাল। ৫৬ মিনিটে কিংসের বক্সে ডানিলো বল পেয়ে লাফিয়ে উঠলেও জিকোর কারণে বলের নাগাল পাননি। ৭৩ মিনিটে ডান প্রান্ত থেকে শরীফির বাড়িয়ে দেওয়া বল পেয়ে পোস্ট লক্ষ্য করে শট নেন আদিল কুসকুস।

কিন্তু দুর্ভাগ্যই বলতে হবে পুলিশের। কারণ বল বারে লাগে, লাফিয়ে উঠে হাত ছুঁইয়ে বল সরিয়ে দেন জিকো। ৮৯ মিনিটে বক্সের খুব কাছেই ফ্রি কিক পায় বসুন্ধরা। এ সময় বক্সে দাঁড়ানো নিয়ে দু'দলের ফুটবলারদের মধ্যে বাগ্‌বিতন্ডা হয়। হলুদ কার্ড দেখেন কিংসের ইব্রাহিম। ভ্রানজেসের স্পটকিক ভাঙতে পারেনি পুলিশের রক্ষণের দেওয়াল। তবে শেষ পর্যন্ত ১-০ গোলের জয়েই কোয়ার্টার ফাইনাল নিশ্চিত হয় বসুন্ধরার। আজ 'বি' গ্রম্নপের দু'টি ম্যাচ অনুষ্ঠিত হবে। বিকাল ৪টায় উত্তর বারিধারা ক্লাব খেলবে বিমান বাহিনীর বিপক্ষে। সন্ধ্যা ৬ হাইভোল্টেজ ম্যাচে লড়াই করবে গ্রম্নপের অন্যতম দুই ফেবারিট দল শেখ জামাল ও শেখ রাসেল।

  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

আরও খবর

সকল ফিচার

ক্যাম্পাস
তারার মেলা
সাহিত্য
সুস্বাস্থ্য
বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি
জেজেডি ফ্রেন্ডস ফোরাম
নন্দিনী
আইন ও বিচার
হাট্টি মা টিম টিম
কৃষি ও সম্ভাবনা
রঙ বেরঙ

Copyright JaiJaiDin ©2022

Design and developed by Orangebd


উপরে