বুধবার, ১৭ এপ্রিল ২০২৪, ৩ বৈশাখ ১৪৩১

পেস আক্রমণ টাইগারদের অনুপ্রেরণা

ক্রীড়া প্রতিবেদক
  ২০ মার্চ ২০২৩, ০০:০০
সাম্প্রতিক সময়ে পেসার তাসকিন আহমেদ, এবাদত হোসেন, মুস্তাফিজরা প্রতিভার স্বাক্ষর রেখে চলেছেন -ওয়েবসাইট

গত এক দশক আগে ছিল সম্পূর্ণ ভিন্ন চিত্র। ঘরোয়া ক্রিকেটে একজন পেসারকে দল খুঁজে পেতে হন্যে হয়ে ঘুরতে হতো। দল না পেয়ে নাম মাত্র মূল্যে খেলেছেন বছরের পর বছর। যে কারণে আগ্রহ হারিয়ে ফেলেছেন অনেকে। কুঁড়িতে শেষ হয়েছে অনেক সম্ভাবনাময় পেসারদের ক্যারিয়ার।

একটা সময় ছিল স্পিনারদের উপরই নির্ভর করত বাংলাদেশ। সেই সময়টা বদলেছে অনেক। এখন সমান তালে লড়াই করছেন পেসাররাও। সাম্প্রতিক সময়ে আরও বেশি উজ্জ্বল। হরহামেশাই বদলে দিচ্ছেন বহু ম্যাচের চিত্র। আর পেসারদের এমন পারফরম্যান্স দেখে অনুপ্রাণিত পুরো বাংলাদেশ দলই।

ঘরের মাটিতে ভারতের বিপক্ষে ওয়ানডে সিরিজ জয়, এরপর ইংল্যান্ডের বিপক্ষে টি২০ জয়, আর সবশেষ আয়ারল্যান্ডের বিপক্ষেও জয় দিয়ে শুরু করেছে টাইগাররা। যেখানে তাসকিন আহমেদ-এবাদত হোসেনরা প্রতিভার স্বাক্ষর রেখেছেন।

শনিবার সিলেটে আয়ারল্যান্ডের বিপক্ষে বিশাল ব্যবধানে জয়ের দিনে পেসার এবাদত ৪২ রান দিয়ে ৪ উইকেট এবং তাসকিন আহমেদ ১৫ রান দিয়ে ২ উইকেট পেয়েছেন। অন্যদিকে স্পিন আক্রমণেও সফল হয়েছেন বোলাররা। নাসুম ৩টি ও সাকিব ১টি উইকেট পেয়েছেন।

আর পেসারদের এমন বোলিংয়ে খুশি টাইগারদের স্পিন বোলিং কোচ রঙ্গনা হেরাথ। গতকাল রোববার সিলেটে তিনি বলেন, 'আমরা সবাই অনুপ্রাণিত। আমাদের এখন ভালো পেস বোলিং অ্যাটাক আছে। সবমিলিয়ে আমাদের খুব ভালো ব্যাটিং, পেস বোলিং আর স্পিন আছে। এটা বাংলাদেশ ক্রিকেটের জন্যই ভালো।'

এদিকে স্পিনারদের প্রশংসা করে হেরাথ বলেন, 'হঁ্যা, অবশ্যই আমি খুশি ও গর্বিত। স্পিনারদের জন্য এটাই তো চ্যালেঞ্জ, তাই না? 'নাসুম ভালো বল করে তিন উইকেট নিয়েছে। আমার মনে হয় ছেলেরা কন্ডিশনের সঙ্গে ভালোভাবেই মানিয়ে নিচ্ছে। তারা যেভাবে কন্ডিশনের সঙ্গে মানিয়ে নিচ্ছে আর উইকেট পড়তে পারছে। এটাই চ্যালেঞ্জ যখন আপনি কন্ডিশনের সাহায্য পাবেন না। কীভাবে আমরা এমন কন্ডিশনে বোলিং করব।'

তাইজুলকে না নিয়ে নাসুমকে নেওয়ার কারণ জানিয়ে হেরাথ বলেন, 'ইংল্যান্ডের বিপক্ষে শেষ সিরিজে ভালো করেছেন তাইজুল। এখন আমরা নাসুমকে সুযোগ দিচ্ছি। আমরা বিশ্বকাপকে সামনে রেখে স্কোয়াড বাড়াতে চাই। আমাদের আক্রমণাত্মক মনোভাব অটুট থাকে তাও নিশ্চিত করতে হবে।'

ব্যাট হাতে ৯৩ রানের পাশাপাশি সাকিব বল হাতে এনে দেন ব্রেকথ্র। তাকে নিয়ে হেরাথের ভাষ্য, 'সাকিব সবসময়ই তার সেরাটা দিয়ে আসছে। সে নিজেকে প্রমাণ করেছে বিশ্বের অন্যতম সেরা অলরাউন্ডার হিসেবে। এখন সেই রেকর্ডটা সে ধরেও রাখছে। তাকে নিয়ে আমি খুশিই।'

এর আগে ইংল্যান্ড সিরিজে চট্টগ্রামের স্পোর্টিং উইকেটে সাফল্য পেয়েছিলেন সাকিবরা। ভারত বিশ্বকাপের আগে এসব উইকেটে স্পিনারদের সাফল্য স্বস্তি দিচ্ছে টিম ম্যানেজম্যান্টকে। ভারতের মাটিতে বিশ্বকাপের উইকেট সিলেটের মতোই হওয়ার সম্ভাবনা বেশি। আইসিসির ইভেন্টে সবার জন্য সুবিধা এমন উইকেট তথা স্পোর্টিং উইকেট দেওয়া হয়।

আইরিশদের বিপক্ষে রেকর্ড ১৮৩ রানে জয়ের পর সিলেটে বাংলাদেশ দল গতকাল কাটিয়েছে বিশ্রামে। তবে ইনডোরে করা তামিম ইকবালের অনুশীলনে কোচিং স্টাফরা ছিলেন।

যে কোনো কন্ডিশনে প্রস্তুতির কথা জানিয়ে হেরাথ বলেন, 'হঁ্যা, আমরা কিন্তু জানি না আমরা কোন ধরনের কন্ডিশন পাব (বিশ্বকাপে)। আমাদের সব কিছুর জন্যই প্রস্তুত হতে হবে। উইকেট বোলারদের সাহায্য করতে পারে, ব্যাটসম্যানদেরও। সব ধরনের উইকেটের জন্যই প্রস্তুতি নিতে হবে।'

দ্বিতীয় দফায় বাংলাদেশ দলের প্রধান কোচের দায়িত্ব নিয়ে বাংলাদেশে এসেছেন চন্ডিকা হাথুরুসিংহে। আর দায়িত্ব নিয়েই করেছেন বাজিমাত। বিশ্বচ্যাম্পিয়ন ইংল্যান্ডকে টি২০তে হোয়াইটওয়াশ করেছে হাথুরুর শিষ্যরা। এমন সাফল্যের পর টাইগারদের ড্রেসিংরুমের মাস্টার মাইন্ডকে প্রশংসায় ভাসিয়েছেন স্পিন বোলিং কোচ রঙ্গনা হেরাথ।

হাথুরুর দলকে ম্যানেজ করার ক্ষমতা চমৎকার। হেরাথ বলেন, 'হাথুরুসিংহে আগেও এখানে ছিল। তার কোচিং সামর্থ্য ও যেভাবে সে দলকে ম্যানেজ করে, নিজের অভিজ্ঞতা প্রয়োগ করে; চমৎকার। সে দলের ক্রিকেটার ও কোচদের অনেক ইনপুট দেয়।'

আজ দুপুর ২টায় সিলেটে ওয়ানডে সিরিজের দ্বিতীয় ম্যাচে আইরিশদের মুখোমুখি হবে তামিমের দল। এই ম্যাচ জিতলেই সিরিজ নিশ্চিত। শিষ্যদের নিয়ে আত্মবিশ্বাসী হেরাথের ভাষ্য, 'প্রথম ম্যাচের জয়টা আমাদের অনেক আত্মবিশ্বাস দেবে। এখন ওদের বিপক্ষে কীভাবে জিততে হয়, সে অভিজ্ঞতা আছে আমাদের। এটা দলের জন্য গুরুত্বপূর্ণ।'

এদিকে দ্বিতীয় ওয়ানডেতে আয়ারল্যান্ড দলের পরিকল্পনা নিয়ে জানতে চাইলে বাংলাদেশের স্পিন বোলিং কোচ বলছিলেন, 'তারা একটা পরিকল্পনা নিয়ে আসবে। কিন্তু কিছু জিনিস আমরা নিয়ন্ত্রণ করতে পারি। আমরা নিজেদের পরিকল্পনাতেই স্থির থাকব।'

  • সর্বশেষ
  • জনপ্রিয়

উপরে