বুধবার, ১৭ এপ্রিল ২০২৪, ৪ বৈশাখ ১৪৩১

বাংলাদেশের সঙ্গে কোনো দ্বৈরথ নেই : ধনাঞ্জয়া

ক্রীড়া ডেস্ক
  ০৪ এপ্রিল ২০২৪, ০০:০০
ধনাঞ্জয়া ডি সিলভা

অবশেষে শেষ হলো বাংলাদেশ ও শ্রীলংকার মধ্যকার বহুল আলোচিত সিরিজ। ওয়ানডে সিরিজ হারলেও টি২০ ও টেস্ট সিরিজ জয়ের সন্তুষ্টি নিয়ে ফিরেছে লঙ্কানরা। আবার এ দুই দলের মধ্যকার লড়াই দেখা যাবে টি২০ বিশ্বকাপে। যেখানে দুই দলের প্রথম ম্যাচেই মুখোমুখি বাংলাদেশ ও শ্রীলংকা। সেই ম্যাচেও কী দেখা যাবে দুই দলের দ্বৈরথ? কিন্তু বাংলাদেশের বিপক্ষে কোনো দ্বৈরথই দেখছেন না শ্রীলংকার টেস্ট সংস্করণের অধিনায়ক ধনাঞ্জয়া ডি সিলভা।

তবে সাম্প্রতিক সময়ে নানা কারণেই দুই দলের মধ্যে অনেক উত্তেজনার সৃষ্টি হয়েছে মাঠে। ভারত বিশ্বকাপে তো সবকিছুকে ছাড়িয়ে যায়। শ্রীলংকার বিপক্ষে মহাগুরুত্বপূর্ণ ম্যাচে অ্যাঞ্জেলো ম্যাথুসকে আউট করাকে কেন্দ্র করে অনেক আলোচনা-সমালোচনাই হয়েছে। সামাজিকমাধ্যমে মেতে ওঠেন দুই দলের সমর্থকরা। সে ম্যাচে মাঠে ঢুকেও নির্ধারিত সময়ে ব্যাটিং করতে পারেননি ম্যাথুস। তখন তাকে টাইমড আউটের আবেদন করেন সাকিব। সিদ্ধান্ত যায় বাংলাদেশের পক্ষেই। যা ভালোভাবে নিতে পারেননি লংকানরা।

চলতি সিরিজেও দেখা গিয়েছে এমন কিছু চিত্র। প্রথম টি২০ ম্যাচে আভিস্কা ফার্নান্ডোকে আউট করে শরিফুল ইসলামের উদযাপনটা হয় বিশেষ। বাম হাত আড়াআড়ি রেখে ডান হাত দিয়ে ঈশারা করেন হাতঘড়ির। এরপর সেই জবাবটা সিরিজ জিতেই দেন শ্রীলংকানরা। ট্রফি জয়ের উলস্নাসে অনুকরণ করেন শরিফুলকে।

বাংলাদেশও থেমে থাকেনি। ওয়ানডে সিরিজ জিতে আবার জবাব দেয় টাইগাররা। ট্রফি নিয়ে ফটোসেশনের আগে বিশ্বকাপে ম্যাথুসের সেই আউটের ঘটনা নাটক করে দেখান অভিজ্ঞ ক্রিকেটার মুশফিকুর রহিম। অধিনায়ক শান্তর কাছে গিয়ে হেলমেটের স্ট্র্যাপ দেখান। সেই নাটকে যোগ দেন শান্তও। তার কিছুই করার নেই বলে জানানোর অভিনয় করেন। শেষে রাগে গজরাতে গজরাতে মাঠ ত্যাগ করার অভিনয় করেন মুশফিক।

তবে এর শুরুটা হয় সেই ২০১৮ সালের নিদাহাস ট্রফিতে। গ্রম্নপ পর্বে শ্রীলংকার বিপক্ষে রোমাঞ্চকর এক লড়াইয়ে জয় তুলে ফাইনালের টিকিট কাটে বাংলাদেশ। সেই ম্যাচে চরম উত্তেজনা ছড়ায় দুই দলের খেলোয়াড়দের মধ্যে। এক পর্যায়ে রেগে খেলোয়াড়দের নিয়ে মাঠ ছাড়তে চেয়েছিলেন তৎকালীন অধিনায়ক সাকিব আল হাসান। পানি নিয়ে মাঠে ঢুকে লঙ্কান ক্রিকেটারদের শাসাতে দেখা যায় একাদশের বাইরে থাকা নুরুল হোসেন সোহানকেও।

চট্টগ্রাম টেস্টে বাংলাদেশের বিপক্ষে ১৯২ রানে জয়ের পর সংবাদ সম্মেলনে আসেন লংকান অধিনায়ক। সেখানেই জানতে চাওয়া হয় দুই দলের দ্বৈরথ প্রসঙ্গে। ধনাঞ্জয়ার উত্তর, 'এখানে কোনো দ্বৈরথ নেই। এটা কেবলই দুই দলের মধ্যকার একটি ম্যাচ। ম্যাচ অবশ্যই স্পিরিট অনুযায়ী হবে এবং অবশ্যই কঠিন লড়াই হবে। এটা সব দলের বিপক্ষেই হবে।' এরপর তার সঙ্গে তাল মিলিয়ে একই কথা বললেন শ্রীলংকার মিডিয়া ম্যানেজার। এটা কেবল মিডিয়ার সৃষ্টি বলে দাবি করেন তিনি।

  • সর্বশেষ
  • জনপ্রিয়

উপরে