logo
রোববার, ২০ সেপ্টেম্বর ২০২০ ৫ আশ্বিন ১৪২৭

  ক্রীড়া ডেস্ক   ২৯ ডিসেম্বর ২০১৯, ০০:০০  

লিভারপুল আর মেসির বছর

লিভারপুল আর মেসির বছর
ক্রিশ্চিয়ানো রোনালদো ও ভার্জিন ফন ডাইককে পেছনে ফেলে ষষ্ঠ ব্যালন ডি'অর জেতার পর দারুণ উচ্ছ্বসিত আর্জেন্টাইন অধিনায়ক লিওনেল মেসি -ওয়েবসাইট
কালের গর্ভে বিলীন হওয়ার অপেক্ষায় আরও একটি বছর। সমাজ সংস্কৃতির বিভিন্ন অঙ্গনের মতো ক্রীড়াঙ্গনও রেখে যাচ্ছে নানান ঘটনা। বছরের প্রান্তভাগে এ সবকিছুর রোমন্থনে পেছনে ফিরে তাকাতে হচ্ছে। একনজরে দেখে নেওয়া যাক আন্তর্জাতিক ফুটবলে আলোচিত ঘটনাপ্রবাহ।

ফুটবলে ২০১৯ সালটা লাল রঙে রাঙানো। বিদায়ী বছরটাকে লিভারপুলের পুনরুত্থানের বছর বললে মোটেও বাড়াবাড়ি হবে না। ২০১৯ সালকে লিভারপুলভক্তরা মনে রাখবে আক্ষেপ আর প্রাপ্তির বছর হিসেবেই। আক্ষেপের বছর, কারণ ইংলিশ প্রিমিয়ার লিগের গত মৌসুমে, অর্ধেকেরও বেশি সময় ধরে পয়েন্ট টেবিলের শীর্ষ স্থানে থাকার পর শেষ পর্যন্ত ১ পয়েন্টের ব্যবধানে ম্যানচেস্টার সিটির কাছে লিগ শিরোপা হাতছাড়া হয়েছে 'অলরেড'দের। প্রিমিয়ার লিগ শিরোপা এখনো অধরা তাদের। তবে চলতি মৌসুমেও যেভাবে ছুটছে তাদের অশ্বমেধের ঘোড়া, তাতে মনে হচ্ছে ইয়ুর্গেন ক্লপ এবার আক্ষেপটা ঘুচিয়েই ছাড়বেন। লিওনেল মেসি প্রথমবারের মতো ফিফার দ্য বেস্ট জিতলেন ২০১৯ সালেই। কোপা আমেরিকায় চিলির আধিপত্য ভেঙে শিরোপা জিতেছে ব্রাজিল, ইউরোপে নতুন প্রচলন করা উয়েফা নেশনস লিগের শিরোপাও ইউরোজয়ী পর্তুগালের।

১৪ বছর পর ইউরোপ সেরার মুকুট এসেছে অ্যানফিল্ডে। টটেনহাম হটস্পারকে হারিয়ে ষষ্ঠবারের মতো উয়েফা চ্যাম্পিয়নস লিগ জিতেছে লিভারপুল। বদৌলতে পাওয়া টিকিটে ক্লাব বিশ্বকাপ খেলে সেটাও জিতেছেন সালাহ-ফিরমিনোরা। জিতেছেন উয়েফা সুপার কাপও। সব মিলিয়ে ২০১৯ সালে তিনটি শিরোপা এসেছে অ্যানফিল্ডে। সেই সঙ্গে ভার্জিল ফন ডাইকের ইউরোপের সেরা খেলোয়াড় নির্বাচিত হওয়া এবং ফিফা দ্য বেস্ট ও ব্যালন ডি'অরের শীর্ষ তিনে জায়গা করে নেওয়াটাও লিভারপুলের অন্যতম কৃতিত্ব। দল হিসেবে বার্সেলোনা ২০১৯ সালে জিতেছে একটাই ট্রফি, ২০১৮-১৯ মৌসুমের লা লিগা। তবে ব্যক্তিগত অর্জনে ও রেকর্ডের বইয়ে লিওনেল মেসি ক্রমে ছাড়িয়ে যাচ্ছেন নিজেকেও। এ বছরই প্রথম ফিফার 'দ্য বেস্ট' পুরস্কারটা পেয়েছেন মেসি, ষষ্ঠবারের মতো পেয়েছেন ব্যালন ডি'অরও। সেই সঙ্গে ইউরোপিয়ান গোল্ডেন শুসহ আরও অনেক ব্যক্তিগত অর্জনই বছরজুড়ে লেখা হয়েছে মেসির নামের পাশে। সর্বকালের সেরা ফুটবলার কে, এই বিতর্কের আগুনে ক্রমে জল ঢেলে দিয়ে মেসি হয়ে উঠছেন অন্যতম!

তবে মেসি বার্সেলোনার নাকি আর্জেন্টিনার পুরানো সেই বিতর্ক কিন্তু থামছে না। দেশকে আরও একবার বড় কোনো আসরের শিরোপা এনে দিতে ব্যর্থ মেসি। বিশ্বকাপ থেকে বিদায়ের পর জাতীয় দল থেকে অনির্ধারিত সময়ের জন্য বিশ্রামে চলে গিয়েছিলেন মেসি, ফিরেছেন কোপা আমেরিকার আগেভাগে। তবু দলকে সেমিফাইনালের ওপরে তুলতে পারেননি। ব্রাজিলের কাছে ২-০ গোলে হেরে শিরোপার লড়াই থেকে ছিটকে যায় আর্জেন্টিনা। আকাশি-নীলদের হারিয়ে ফাইনালে উঠে পেরুকে ৩-১ গোলে হারিয়ে নবমবারের মতো দক্ষিণ আমেরিকার মহাদেশীয় শিরোপা জিতে নেয় ব্রাজিল। জাতীয় দলে অভিষেক ম্যাচে মিনিট দুয়েকের মাথায় লাল কার্ড দেখার ১৪ বছর পর এবারের কোপা আমেরিকার তৃতীয় স্থাননির্ধারণী ম্যাচে লাল কার্ড দেখেন মেসি।

আফ্রিকা মহাদেশের ফুটবল শ্রেষ্ঠত্বের মুকুট জিতেছে আলজেরিয়া। মিশর ছিল এবারের স্বাগতিক, মো. সালাহর দল বিদায় নেয় শেষ ষোলোতেই। ফাইনালে সেনেগালকে ১-০ গোলে হারিয়ে শিরোপা জেতে আলজেরিয়া। ইউরোপে উয়েফার প্রচলন করা নতুন প্রতিযোগিতা উয়েফা নেশনস লিগের প্রথম আসরের শিরোপা জিতেছে পর্তুগাল। বিশ্বকাপের পর, ম্যাচগুলোকে এক রকম প্রতিযোগিতামূলক কাঠামোতে আনা ও ইউরোর বাছাই পর্বে একটা দরজা খুলে দিতেই এ আসরের প্রচলন। ফাইনালে নেদারল্যান্ডসকে ১-০ গোলে হারিয়ে প্রথমবারের শিরোপাজয়ী পর্তুগাল। ২০২০ ইউরোর বাছাই পর্বের গ্রম্নপ পর্বও সমাপ্ত হয়েছে ২০১৯ সালে। ১০ গ্রম্নপের দুই শীর্ষ দল, অর্থাৎ ২০ দল চূড়ান্ত হয়ে গেছে ২৪ দলের এ আসরের। এবারের ইউরো দিয়ে লম্বা সময় আন্তর্জাতিক আসরের বাইরে থাকা নেদারল্যান্ডস ফিরছে বড় মঞ্চে, ২০১৬ ইউরো ও ২০১৮ রাশিয়া বিশ্বকাপে খেলার যোগ্যতা অর্জন করতে না পারা ডাচরা এবার খেলবে ইউরোতে। প্রথমবারের মতো ইউরোতে খেলার যোগ্যতা অর্জন করেছে ফিনল্যান্ডও। ড্রও হয়ে গেছে আসরের; পর্তুগাল, ফ্রান্স ও জার্মানি পড়েছে একই গ্রম্নপে।

আর বছরের শেষ দিকে এসে বেশ কিছু বিখ্যাত কোচ ছাঁটাইয়ের মুখে পড়েছেন, কেউ পেয়েছেন নতুন দল। হোসে মরিনহো নতুন করে কোচ হয়েছেন টটেনহাম হটস্পারের, চাকরি হারিয়েছেন মাউরিসিও পোচেত্তিনো। আর্সেনাল উনাই এমেরিকে ছাঁটাই করেছে, অন্তর্বর্তী কোচ হয়েছেন সাবেক খেলোয়াড় ফ্রেডি লিউনবার্গ। চেলসিতে এ বছরই কোচ হিসেবে যোগ দিয়েছেন সাবেক তারকা ফ্র্যাংক ল্যাম্পার্ড। নাপোলির চাকরি হারিয়ে এভারটনে যোগ দিয়েছেন কার্লো আনচেলোত্তি। তবে সবাইকে ছাপিয়ে শেষ পর্যন্ত বছরের সেরা কোচ ইয়ুর্গেন ক্লপ। তার ছোঁয়াতেই যে বদলে গেছে লিভারপুল। এদিকে পেশাদার ফুটবল চোখ সরিয়ে আন্তর্জাতিক ফুটবলে তাকালে দেখা যাবে ইউরোপিয়ানদের দাপট। যেখানে টানা দ্বিতীয়বারের মতোর্ যাঙ্কিংয়ের শীর্ষে থেকে ফিফার বর্ষসেরা দলের মুকুট পরেছে বেলজিয়াম।র্ যাঙ্কিংয়ের শীর্ষ ৫০ দলের ২৮টিই ইউরোপের। যেখানে বাংলাদেশ ফুটবল দলের রয়ে গেছে গত বছরের মতো ১৮৭তম স্থানে, সেখানে উন্নতির শীর্ষে কাতার।
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

সকল ফিচার

রঙ বেরঙ
উনিশ বিশ
জেজেডি ফ্রেন্ডস ফোরাম
নন্দিনী
আইন ও বিচার
ক্যাম্পাস
হাট্টি মা টিম টিম
তারার মেলা
সাহিত্য
সুস্বাস্থ্য
কৃষি ও সম্ভাবনা
বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি
close

উপরে