logo
শনিবার, ০৪ জুলাই ২০২০, ২০ আষাঢ় ১৪২৬

  যাযাদি রিপোর্ট   ০৩ জুন ২০২০, ০০:০০  

প্রণোদনা বেশি ঋণ দিতে পারবে ইসলামী ও সোনালী ব্যাংক

করোনাভাইরাসের কারণে ক্ষতিগ্রস্ত শিল্প ও সেবা খাতের প্রতিষ্ঠানগুলোকে কোন ব্যাংক কত টাকা চলতি মূলধন ঋণ দিতে পারবে, তার সীমা নির্ধারণ করে দিয়েছে বাংলাদেশ ব্যাংক। সবচেয়ে বেশি ঋণ দেওয়ার অনুমতি পেয়েছে ইসলামী, সোনালী ও ন্যাশনাল ব্যাংক।

করেনাভাইরাসের কারণে ক্ষতিগ্রস্ত শিল্প ও সেবা খাতকে সহায়তা দিতে ৩০ হাজার কোটি টাকা প্রণোদনা প্যাকেজ ঘোষণা করে সরকার। এরই অংশ হিসেবে সব ব্যাংক মিলে ঋণ দিতে পারবে ২৮ হাজার ৮৬৫ কোটি টাকা ও ব্যাংকবহির্ভূত আর্থিক প্রতিষ্ঠানগুলো দিতে পারবে ১ হাজার ১৩৫ কোটি টাকা। ব্যাংকগুলোর চলতি মূলধন ঋণের ওপর ভিত্তি করে সীমা ঠিক করে দিয়েছে কেন্দ্রীয় ব্যাংক। তবে প্রয়োজনে এই সীমা হ্রাস বা বৃদ্ধি হতে পারে বলে জানা গেছে।

বাংলাদেশ ব্যাংক এ নিয়ে নীতিমালা প্রকাশ করে জানায়, যেসব প্রতিষ্ঠান ইতোমধ্যে ব্যাংক থেকে চলতি মূলধন সুবিধা নিয়েছে, তারা সর্বোচ্চ ৩০ শতাংশ এই তহবিল থেকে চলতি মূলধন নিতে পারবে। শুধু ক্ষতিগ্রস্তরাই এ ঋণ পাবে। এ ঋণ আদায়ের সব দায়দায়িত্বও ব্যাংকের। যদি টাকা আদায় করতে না পারে, তা যথাযথ মানে শ্রেণিকরণ করে প্রভিশন বা নিরাপত্তা সঞ্চিতি সংরক্ষণ করতে হবে।

আর বাংলাদেশ ব্যাংকের তহবিল থেকে নেওয়া টাকা যথাসময়ে ফেরত না দিলে তা ওই ব্যাংকের হিসাব থেকে কেটে রাখবে বাংলাদেশ ব্যাংক। ফলে সরকার সুদ ভর্তুকি দিলেও ব্যাংকগুলোকে যথাযথ ঝুঁকি বিবেচনায় ঋণ দিতে হবে। যদিও প্রতিটি ঋণের জন্য কেন্দ্রীয় ব্যাংক থেকে পৃথক অনুমোদন লাগবে।

কেন্দ্রীয় ব্যাংক নীতিমালা অনুযায়ী, ঋণখেলাপিরা এই তহবিল থেকে ঋণ নিতে পারবে না। শুধু ঋণখেলাপি নয়, তিনবারের বেশি ঋণ পুনঃতফসিল করেছেন, এমন ব্যবসায়ীরাও এ তহবিল থেকে ঋণ পাবেন না। এ ঋণের মেয়াদ তিন বছর।

ব্যাংকগুলোর সঙ্গে কথা বলে জানা যায়, গত ৩১ ডিসেম্বর পর্যন্ত কোন ব্যাংক কত টাকা চলতি মূলধন ঋণ দিয়েছে, তা জানতে চায় কেন্দ্রীয় ব্যাংক। এর ভিত্তিতেই ঋণ প্রদানের সীমা নির্ধারণ করে দেয় বাংলাদেশ ব্যাংক।

আবার অনেক ব্যাংকের বিতরণ করা ঋণ বেশি হলেও চলতি মূলধন দেওয়ার ক্ষেত্রে পিছিয়ে। ফলে প্যাকেজে ওই ব্যাংকগুলো বেশি ঋণ দিতে পারবে না। যেমন রাষ্ট্রমালিকানাধীন ব্যাংকগুলোর মধ্যে জনতা ব্যাংক মাত্র ৪৩১ কোটি টাকা ঋণ দেওয়ার সুযোগ পেয়েছে।

ব্যাংকগুলোর চলতি মূলধন ঋণের ওপর ভিত্তি করে সীমা ঠিক করে দিয়েছে কেন্দ্রীয় ব্যাংক।

ব্যাংকগুলোর সূত্রে জানা যায়, বর্তমানে ব্যাংক খাতের মধ্যে সবচেয়ে বেশি ঋণ বেসরকারি খাতের ইসলামী ব্যাংকের। ব্যাংকটি প্রায় ৯০ হাজার কোটি টাকা ঋণ বিতরণ করেছে। এ জন্য অর্থনৈতিক ক্ষত মোকাবিলায় সবচেয়ে বেশি চলতি মূলধন ঋণ দিতে পারবে ইসলামী ব্যাংক, যার পরিমাণ ২ হাজার ৯৮২ কোটি টাকা।
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
close

উপরে