চন্দনাইশে মসজিদে ঘড়ি ও নামফলক ভাংচুর থানায় অভিযোগ

চন্দনাইশে মসজিদে ঘড়ি ও নামফলক ভাংচুর থানায় অভিযোগ

চট্টগ্রামের চন্দনাইশ সদরে মসজিদের নাম করনকে কেন্দ্র করে দু গক্ষের মধ্যে আদিপত্য বিস্তার ঘড়ি ও প্রবেশদ্বারে মৌলানা বাড়ি জামে মসজিদের নামফলক লাগানোর ’৫ ঘণ্টার মধ্যে ভেঙ্গে দেয় প্রতিপক্ষ। এ নিয়ে এলাকার মধ্যে চলছে চরম উত্তেজনা। এ বিষয়ে মসজিদ কমিটির সভাপতি মো হারুন বাদী হয়ে ৩জনকে নামিয় আরো ২০/২৫জনকে আসামী করে থানায় অভিযোগ দায়ের করেন ।

স্থানীয়রা জানান, প্রায় শত শত বছরের পুরানো মৌলানা বাড়ি এবাদত খানাটি ভেঙ্গে ২০১১ সালে মসজিদ সহ খানকায়ে কাদেরিয়া তৈয়্যবিয়া করার সিদ্ধান্ত গ্রহণ করার পর একটি দ্বিতল বিশিষ্ট খানকায়ে কাদেরিয়া তৈয়্যবিয়া করার সিদ্ধান্ত গ্রহন করা হয়। গত বছর করোনা ভাইরাসের কারনে লকডাউন শুরু হলে ১০ই এপ্রিল খানকায়ে তৈয়্যবিয়া নিচ তলায় জামে মসজিদ ঘোষণা দিয়ে প্রথম জুমার নামাজ আদায় করা হয়। এরপর থেকে মৌলানা বাড়ির একজন তাদের পুরানো ঐতিহ্য তথা খানকায়ে কাদেরিয়া তৈয়্যবিয়ার সাথে মৌলানা বাড়ি জামে মসজিদ নামকরণের দাবি তোলেন। এতে পক্ষদ্বয়ের মধ্যে বিরোধ দেখা দিলে স্থানীয় কাউন্সিলর হেলাল উদ্দিন ও গাছবাড়িয়া এলাকার মোঃ হারুনকে বিষয়টি নিষ্পত্তির জন্য দায়িত্ব দেয়া হয়। ইতিমধ্যে পৌরসভার নির্বাচন অনুষ্টিত হওয়ায় বিষয়টি নিষ্পত্তিতে বিলম্ব হয়। গতকাল শুক্রবার সকালে মৌলানা বাড়ির লোকজন রমজান মাসকে সামনে রেখে মসজিদে মৌলানা বাড়ি জামে মসজিদ নাম দিয়ে নামাজের সময়সুচি সম্বলিত একটি ঘড়ি একটি নামফলক মসজিদের প্রবেশদ্বারে স্থাপন করেন।

জুমার নামাজে কিছু না বললেও আসরের নামাজের পর অর্ধশতাধিক যুবক মসজিদে প্রবেশ করে অকথ্য ভাষায় গালিগালাজ করে মসজিদের ভিতরের নামাজের সময়সূচির ঘড়ি মসজিদের অন্যান্য লেখা কাগজ ও প্রবেশদ্বারের সাইনবোর্ডটি পুকুরে ফেলে দেন এবং বিভিন্ন ভয়ভীতি প্রদর্শন করে বলে অভিযোগ করেছেন মৌলানা বাড়ির মোঃ হারুন।

এ ব্যাপারে খানাকায়ে কাদেরিয়া তৈয়্যবিয়ার সাধারন সম্পাদক মোঃ জুবায়ের বলেন, বিষয়টি অমীমাংসিত থাকা অবস্থায় সাইনবোর্ডটি লাগানো সমুচিত হয়নি। বিষয়টি নিয়ে পক্ষদ্বয়ের মধ্যে চরম উত্তেজনা বিরাজ করছে। এ ব‍্যাপারে চন্দনাইশ থানায় মোঃ হারুন বাদী হয়ে একটি অভিযোগ করেছেন বলে জানান। চন্দনাইশ থানার অফিসার ইনচার্জ নাসিরউদ্দিন সরকার অভিযোগের কথা স্বীকার করে জানান, ঘটনাটি তদন্ত করে ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

যাযাদি/ এস

  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

আরও খবর

Copyright JaiJaiDin ©2021

Design and developed by Orangebd


উপরে