কালীগঞ্জে শীতলক্ষ্যায় পিকনিকের ট্রলারে বজ্রপাতে নিখোঁজের দু'দিন পর যুবকের লাশ ভেসে উঠেছে

কালীগঞ্জে শীতলক্ষ্যায় পিকনিকের ট্রলারে বজ্রপাতে নিখোঁজের দু'দিন পর যুবকের লাশ ভেসে উঠেছে

শনিবার (৬ আগস্ট) সকাল ৬ টার দিকে রুপাই হোসেনের লাশ শীতলক্ষ্যা নদী থেকে উদ্ধার করা হয়েছে।

কালীগঞ্জ ফায়ার সার্ভিসের টিম লিডার মো. শামীম ভূূঁইয়া এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

গত বৃহস্পতিবার (৪ আগস্ট) দুপুরে উপজেলার মোক্তারপুর ইউনিয়নের সাওরাইদ এলাকায় শীতলক্ষ্যা নদীতে বজ্রপাতের ঘটনা ঘটে। এ সময় ভয়ে রুপাই হোসেন নদীতে পড়ে নিখোঁজ হন।

নিহত রুপাই কালীগঞ্জ পৌরসভার ৭নং ওয়ার্ডের বাঘেরপাড়া গ্রামের আব্দুল জব্বারের ছেলে। পেশায় তিনি একজন মাহেন্দ্র চালক ছিলেন।

ফায়ার সার্ভিস টিম লিডার মো. শামীম ভূূঁইয়া জানান, রুপাই নিখোঁজের খবর পেয়ে টঙ্গী থেকে ৬ সদস্যের একটি ডুবুরি দল এসে উদ্ধার কাজ শুরু করে। বৃহস্পতিবার বিকেল পর্যন্ত নিখোঁজের কোন সন্ধান না পেয়ে ওইদিনের মত উদ্ধার কাজ শেষে করেন। পরদিন শুক্রবার (৫ আগস্ট) স্থানীয় ও নিখোঁজের পরিবারের লোকজন শীতলক্ষ্যা নদীতে নিখোঁজের সন্ধানের চেষ্টা করলেও তাকে পাওয়া যায়নি। পরে শনিবার সকালে লাশটি শীতলক্ষ্যায় ভেসে ওঠে।

কালীগঞ্জ থানার ডিউটি অফিসার উপ-পরিদর্শক (এসআই) আব্দুল করিম জানান, গত বৃহস্পতিবার কালীগঞ্জ পৌর এলাকার বাঘেরপাড়া গ্রাম থেকে পিকনিকের ইঞ্জিন চালিত ট্রলারটি শ্রীপুরের বরমির দিকে যাচ্ছিলো। পথে ট্রলারটি দুপুরের দিকে সাওরাইদ এলাকায় পৌঁছালে নৌকারপাশেই নদীতে বজ্রপাত পড়ে। এ সময় অনেকেই ভয় পায়। ট্রলারের পিছনে বসা রুপাই ভয়ে নদীতে পড়ে গিয়ে নিখোঁজ হয়।

তিনি আরো জানান, দুদিন পর সকালে মরদেহ শীতলক্ষ্যায় ভেসে উঠেছে। তবে কোনো অভিযোগ না থাকায় পরিবারের আবেদনের প্রেক্ষিতে লাশটি স্বজনদের কাছে হস্তান্তর করা হয়েছে।

যাযাদি/এসএস

  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

আরও খবর

Copyright JaiJaiDin ©2022

Design and developed by Orangebd


উপরে