মঙ্গলবার, ২৮ মে ২০২৪, ১৪ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১

সাতক্ষীরার কুখ্যাত রঘুনাথ খাঁ চাঁদাবাজি মামলায় কারাগারে

সাতক্ষীরা প্রতিনিধি
  ২৪ এপ্রিল ২০২৪, ২১:১১
সাতক্ষীরার কুখ্যাত রঘুনাথ খাঁ চাঁদাবাজি মামলায় কারাগারে

সাতক্ষীরার কুখ্যাত রঘুনাথ খাঁ চাঁদাবাজি মামলায় কারাগারে গেছেন। বুধবার (২৪ এপ্রিল) দুপুরে সাতক্ষীরা জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট তনিমা মন্ডল রঘুনাথ খাঁ'কে কারাগারে পাঠানোর নির্দেশ দেন।

রঘুনাথ খাঁ (৫৭) সাতক্ষীরার কালিগঞ্জ উপজেলার বিঞ্চুপুর গ্রামের মদন মোহন খাঁ এর ছেলে। বর্তমানে শহরের কাটিয়া আনন্দপাড়ায় থাকেন। চাঁদাবাজিসহ বিভিন্ন মামলা ও অভিযোগ রয়েছে তার বিরুদ্ধে।

রঘুনাথ খাঁ এর বিরুদ্ধে ২০২৩ সালের ২৪ জানুয়ারি দেবহাটা থানায় একটি মামলা দায়ের করেন (মামলা নং-৯), শিমুলিয়া গ্রামের কাজী গোলাম ওয়ারেশের ছেলে কাজী সুরুজ ওয়ারেশ। এই মামলায় আরো কয়েকজন আসামির নাম উল্লেখ করা হয়েছে। তারা পলাতক রয়েছেন।

মামলার সংক্ষিপ্ত বিবরণে জানা গেছে, বাদীর খলিসাখালি এলাকায় ছয়শত বিঘার একটি মাছের ঘের রয়েছে। এই ঘের ভুমিহীনদের দিয়ে দখল করে নেওয়ার ভয় দেখিয়ে রঘুনাথ খাঁ তার কাছে বিভিন্ন সময়ে পাঁচ লাখ টাকা চাঁদা দাবি করে।

চাঁদা দিতে অস্বীকার করায় অন্যান্য আসামিদের সাথে নিয়ে ২০২৩ সালের ২১ জানুয়ারি সন্ধ্যায় গাজীরহাটস্থ অফিসে যেয়ে আবারো পাঁচ লাখ টাকা চাঁদা দিতে বলে। একই সাথে অন্য আসামিদের ভুমিহীন নেতা পরিচয় দিয়ে ঘের দখলের হুমকি দেয়।

এই ঘটনার পর পুলিশ রঘুনাথ খাঁকে গ্রেফতার করে আদালতের মাধ্যমে জেলহাজতে প্রেরণ করে।

পরবর্তীতে পুলিশ রিপোর্ট না আসা পর্যন্ত আদালত তাকে জামিন দেন । মামলাটির দীর্ঘ তদন্ত শেষে দেবহাটা থানার এসআই লাল চাঁদ ২০২৩ সালের ৯ আগষ্ট আদালতে রঘুনাথ খাঁ সহ পলাতক সকল আসামির বিরুদ্ধে অভিযোগ পত্র দাখিল করেন।

আসামির বিরুদ্ধে আনীত অভিযোগ পত্রে ৫০৬ ধারায় ভীতি প্রদর্শন, ৪৪৮ ধারায় অনাধিকার প্রবেশ, ৩৮৫ ধারায় মৃত্যুর ভয় দেখিয়ে চাঁদা চাওয়াসহ বিভিন্ন অভিযোগের সত্যতা পেয়েছেন বলে উল্লেখ করেছেন তদন্ত কর্মকর্তা। এরই প্রেক্ষিতে মামলার এক নম্বর আসামি রঘুনাথ খাঁ' এর জামিন বাতিল করে কারাগারে পাঠানোর বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন বিজ্ঞ আদালতের একাধিক সূত্র।

আদালত সূত্রে আরো জানা গেছে, চাঁদাবাজিসহ বিভিন্ন অভিযোগে রঘুনাথ খাঁ এর বিরুদ্ধে আদালতে একাধিক মামলা চলমান রয়েছে।

উল্লেখ্য, রঘুনাথ খাঁ সাতক্ষীরার চিহ্নিত চাঁদাবাজ। অন্যের মাছের ঘের,জমি দখল, প্রতারনাসহ বিভিন্ন অভিযোগে ইতোমধ্যে সাতক্ষীরায় কুখ্যাতি অর্জন করেছে। সাংবাদিক, মানবাধিকারকর্মীসহ বিভিন্ন পরিচয়ে পরিচিত রঘুনাথ খাঁ সাতক্ষীরার একটি বহুল আলোচিত নাম। নিজের গর্ভধারিনী মা ঝর্না রানীও ছলে রঘুনাথ খাঁ এর নামে কালিগঞ্জ থানায় মামলা দায়ের করেছিলেন। মামলায় তিনি বলেন, রঘুনাথ খাঁ কুলাঙ্গার। তার হাতে নির্যাতিত হয়েছেন তার বাবা মদন মোহন খাঁ মৃত্যু বরন করেন। তিনি নিজেও রঘুনাথ খাঁ এর দ্বারা নির্যাতিত, লাঞ্ছিত।

ওয়ান ইলেভেনের সময় তৎকালিন তালা উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার ডাইভারের নিকট চাঁদা দাবি করেন। তার নিকট থেকে সাতক্ষীরা শহরের ফুড অফিসের মোড় সংলগ্ন একটি ক্লিনিকের ভিতর থেকে ওই চাঁদার টাকা নেওয়ার সময় যৌথবাহিনীর হাতে গ্রেফতার হয় রঘুনাথ খাঁ। সে সময় দ্রুত বিচার আইনে সাতক্ষীরা জেলা ও দায়রা জজ আশীষ রঞ্জন দাস তাকে চার বছরের সশ্রম কারাদন্ডে দন্ডিত করেন। সাতক্ষীরার এক সময়ে শীর্ষ চরম পন্থীদের সাথে তার ঘনিষ্ঠ সম্পর্ক ছিলো।

এমনকি ভারতের বসিরহাট এলাকায় বেড়ে ওঠা রঘুনাথ খাঁ এর সাথে সে খানকার সন্ত্রাসীদের সাথে সখ্যতা রয়েছে বলে তার মায়ের দায়েরকৃত মামলায় উল্লেখ করা হয়েছে।

যাযাদি/ এম

  • সর্বশেষ
  • জনপ্রিয়
X
Nagad

উপরে