logo
বুধবার, ২৬ ফেব্রুয়ারি ২০২০, ১৪ ফাল্গুন ১৪২৬

  যাযাদি ডেস্ক   ২০ জানুয়ারি ২০২০, ০০:০০  

ব্রিটিশ রাজপ্রাসাদের বিবৃতি

রাজ উপাধি ও দায়িত্ব দুটোই হারালেন হ্যারি-মেগান

আগামী বসন্তেই পরিবার থেকে আলাদা হচ্ছেন তারা

রাজ উপাধি ও দায়িত্ব দুটোই হারালেন হ্যারি-মেগান
ব্রিটিশ প্রিন্স হ্যারি এবং তার স্ত্রী মেগান মার্কেলের রাজকীয় উপাধি ও দায়িত্ব কোনোটিই আর থাকছে না। বাকিংহাম প্রাসাদ শনিবার এক ঘোষণায় জানিয়েছে, প্রিন্স হ্যারি এবং মেগান তাদের রাজকীয় উপাধি আর ব্যবহার করতে পারবেন না। এমনকি তারা রাজপরিবারের হয়ে দায়িত্ব পালনের জন্য যে অর্থ পেতেন সেটাও আর পাবেন না। তবে এই দম্পত্তির সন্তান আর্চি সাবালক হওয়া পর্যন্ত ভরণপোষণ পাবে। সংবাদসূত্র : বিবিসি, গার্ডিয়ান

হ্যারি এবং মেগান এখন থেকে আর রানি দ্বিতীয় এলিজাবেথেরও প্রতিনিধিত্ব করতে পারবেন না। যুক্তরাজ্যে এই দম্পতির 'ফ্রগমোর কটেজ' সংস্কারে সরকারি কোষাকার থেকে প্রায় ২৪ লাখ পাউন্ড ব্যয় হয়েছে। ওই অর্থ হ্যারি এবং মেগানকে পরিশোধ করতে হবে।

রাজপরিবারের জ্যেষ্ঠ সদস্য হিসেবে আর রাজকীয় দায়িত্ব পালন করতে চান না, চলতি মাসের প্রথম দিকে এমন ঘোষণা দিয়েছিলেন এই দম্পতি। তারপর গত সোমবার তাদের ভবিষ্যৎ ভূমিকা কী হবে, তা নিয়ে রাজপরিবারের জ্যেষ্ঠ সদস্যরা তাদের সঙ্গে আলোচনায় বসেছিলেন। ওই আলোচনার পরিপ্রেক্ষিতেই বাকিংহাম প্রাসাদ থেকে এমন বিবৃতি এলো। ওই বিবৃতিতে জানানো হয়েছে, রাজপ্রাসাদ ছাড়ার পর ওই কটেজেই বসবাস শুরু করবেন তারা। বাকিংহাম প্রাসাদ জানিয়েছে, চলতি বছরের বসন্তেই রাজপরিবার থেকে আলাদা হয়ে যাবেন হ্যারি ও মেগান।

এদিকে, শনিবার হ্যারি-মেগান দম্পতি জানান, যুক্তরাজ্যে তাদের ফ্রগমোর কটেজ সরকারি অর্থে সংস্কার করতে যে প্রায় ২৫ লক্ষ পাউন্ড খরচ হয়েছে, তা তারা শোধ করবেন। যুক্তরাজ্যে অবস্থানকালে তারা এখন থেকে ওই কটেজেই থাকবেন।

বিবৃতিতে রানি বলেন, 'বেশ কয়েক মাস ধরে চলা কথাবার্তা ও সাম্প্রতিক আলোচনায় আমরা সবাই মিলে আমার নাতি ও তার পরিবারের জন্য একটি গঠনমূলক ও সহায়ক পথ পাওয়ায় আমি সন্তুষ্ট। হ্যারি, মেগান ও আর্চি সবসময় আমার পরিবারের অতি আপনজন হয়েই থাকবে।' তিনি আরও বলেন, 'গত দুই বছর ধরে ব্যাপক অনুসন্ধানের ফল হিসেবে যে অভিজ্ঞতার ভেতর দিয়ে তারা এগিয়েছে, তা অনুধাবন করেছি আমি এবং তাদের আরও স্বাধীন জীবনযাপনের ইচ্ছার প্রতি সমর্থন জানাচ্ছি।'

ব্রিটিশ রানি বলেন, 'দেশজুড়ে, কমনওয়েলথ ও এর বাইরে তাদের আত্মনিবেদিত সব কাজের জন্য আমি তাদের ধন্যবাদ জানাতে চাই, আর বিশেষভাবে মেগান যে দ্রম্নততার সঙ্গে পরিবারের একজন হয়ে উঠেছে, তাতে আমি গর্বিত।'

বাকিংহাম প্রাসাদ জানিয়েছে, রাজকীয় এই দম্পতি বুঝতে পেরেছে, সরকারি সামরিক নিয়োগসহ রাজকীয় দায়িত্ব থেকে তাদের সরে দাঁড়ানো দরকার। হ্যারি ও মেগান তাদের ব্যক্তিগত পৃষ্ঠপোষকতা ও সঙ্ঘ-সমিতির সঙ্গে সম্পর্ক বজায় রাখবে। এখন থেকে রাজপরিবারের বাইরেই অধিকাংশ সময় কাটাবেন হ্যারি, মেগান এবং তাদের ছেলে আর্চি। ফলে ব্রিটিশ রাজপরিবারের সঙ্গে পাকাপাকিভাবে বিচ্ছেদ হয়েই গেল চার্লস-ডায়ানার ছোট ছেলের।
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
close

উপরে