logo
বুধবার, ১৯ ফেব্রুয়ারি ২০২০, ৭ ফাল্গুন ১৪২৬

  যাযাদি ডেস্ক   ২৩ জানুয়ারি ২০২০, ০০:০০  

কাশ্মীর ইসু্যতে আবারও মধ্যস্থতার প্রস্তাব ট্রাম্পের

কাশ্মীর ইসু্যতে আবারও মধ্যস্থতার প্রস্তাব ট্রাম্পের
পাক প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান ও মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প
ভারত অধিকৃত কাশ্মীর ইসু্যতে ফের মধ্যস্থতার প্রস্তাব দিয়েছেন যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প। এ নিয়ে চতুর্থ দফায় এমন প্রস্তাব দিলেন তিনি। মঙ্গলবার সুইজারল্যান্ডের দাভোসে বিশ্ব অর্থনৈতিক ফোরামের সম্মেলনের সাইডলাইনে পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী ইমরান খানের সঙ্গে বৈঠকে মিলিত হন মার্কিন প্রেসিডেন্ট। পরে পাক নেতাকে পাশে বসিয়ে সাংবাদিকদের সামনে এ ইসু্যতে নিজের অবস্থান পুনর্ব্যক্ত করেন তিনি। সংবাদসূত্র : এনডিটিভি, বিবিসি

সাংবাদিকদের সঙ্গে আলাপকালে মার্কিন প্রেসিডেন্ট বলেন, কাশ্মীর ইসু্যতে তিনি সাহায্য করতে চান। এদিকে ভারতীয় সংবাদমাধ্যমের খবরে বলা হয়, পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে বৈঠকের আগে আগ বাড়িয়ে কাশ্মীর সমস্যা সমাধানের প্রস্তাব দেন ট্রাম্প।

২০১৯ সালের আগস্টে কাশ্মীরের স্বায়ত্তশাসন বাতিল করে অঞ্চলটিকে দুই টুকরো করে দেয় ভারতের নরেন্দ্র মোদি সরকার। রাজ্যের মর্যাদা কেড়ে নিয়ে পরিণত করা হয় কেন্দ্রশাসিত অঞ্চলে। এ নিয়ে তীব্র আপত্তি জানায় পাকিস্তান। ভারত ও পাকিস্তানের মধ্যে দ্বিপাক্ষিক সম্পর্কের অবনতি ঘটে।

কাশ্মীরের ওপর আরোপিত বিধিনিষেধ দ্রম্নত প্রত্যাহারে দিলিস্নর প্রতি আহ্বান জানায় যুক্তরাষ্ট্র। ভারত অধিকৃত কাশ্মীরের মানবিক বিপর্যয় নিয়ে জাতিসংঘে কথা বলেন তুরস্কের প্রেসিডেন্ট রিসেপ তাইয়ে্যপ এরদোয়ান এবং মালয়েশিয়ার প্রধানমন্ত্রী মাহাথির মোহাম্মদ। ভারতকে কাশ্মীরের দখলদার শক্তি হিসেবে আখ্যায়িত করেন মাহাথির। তবে দিলিস্ন বরাবরই দাবি করে আসছে, কাশ্মীর ইসু্য পুরোপুরি ভারতের অভ্যন্তরীণ বিষয়। এ নিয়ে কারও মধ্যস্থতার প্রয়োজন নেই। মঙ্গলবার দাভোসে সাংবাদিকদের সঙ্গে আলাপকালে ট্রাম্প বলেন, 'আমরা কাশ্মীর নিয়ে পাকিস্তান ও ভারতের মধ্যে কী চলছে সে সম্পর্কে আলোচনা করেছি। আমরা যদি কোনও সাহায্য করতে পারি, তবে অবশ্যই সেটা করবো। আমরা পরিস্থিতির দিকে অত্যন্ত মনোযোগ সহকারে লক্ষ্য রাখছি।'

পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান বলেন, 'আফগানিস্তানের মতোই আমরা এই বিষয়টি নিয়ে কথা বলতে চাই। সৌভাগ্যক্রমে, আমরা একই অবস্থানে রয়েছি। যখন অন্য কোনও দেশ এই সমস্যার সমাধান করতে পারছে না, তখন আমরা আশা করি যে সংকট নিরসনে যুক্তরাষ্ট্র তার ভূমিকা পালন করবে।'
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
close

উপরে