logo
মঙ্গলবার, ২২ অক্টোবর ২০১৯, ৬ কার্তিক ১৪২৬

  অনলাইন ডেস্ক    ২০ সেপ্টেম্বর ২০১৯, ০০:০০  

ছাত্রলীগের দুই পক্ষের সংঘর্ষে ওসিসহ আহত ২০

সোনাইমুড়ী (নোয়াখালী) সংবাদদাতা

নোয়াখালীর সোনাইমুড়ীতে আধিপাত্য বিস্তারকে কেন্দ্র করে ছাত্রলীগের দুই পক্ষের সংঘর্ষে থানার ওসিসহ ২০ জন আহত হয়েছেন। এ ঘটনায় উভয় পক্ষের ৬ জনকে আটক করা হয়েছে। বুধবার রাত ১১টার দিকে সোনাইমুড়ী বাজারের রামগঞ্জ-নোয়াখালী সড়কে এ ঘটনা ঘটে।

স্থানীয়রা জানিয়েছেন, সোনাইমুড়ী বাজারে স্থানীয় এমপি এইচ.এম ইব্রাহিমের সমর্থকদের সঙ্গে প্রধানমন্ত্রীর ব্যক্তিগত সহকারী জাহাঙ্গীর আলমের সমর্থকদের মধ্যে বিরোধ চলছিল। মঙ্গলবার রাত ৯টার দিকে এমপির পক্ষের লোকজন উপজেলা ছাত্রলীগ কার্যালয়ে হামলা করে। এ ঘটনায় বুধবার বিকালে উপজেলা ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক শ্যামল উদ্দিন থানায় অভিযোগ দায়ের করেন।

বুধবার সন্ধ্যায় উপজেলা আওয়ামী লীগের সহসভাপতি মাহফুজুর রহমান বাহার ও স্বেচ্ছাসেবকলীগের আহ্বায়ক আবু সায়েম থানায় বৈঠক শেষে বাজারে যাওয়ার সময় রাত ১১টার দিকে পাঞ্জেগানা মসজিদের সামনে আবু সায়েমকে লক্ষ্য করে প্রতিপক্ষের লোকজন এলোপাতাড়ি গুলি ছুড়তে থাকে। গুলিতে উপজেলা স্বেচ্ছাসেবকলীগের আহ্বায়ক আবু সায়েম, ছাত্রলীগ কর্মী বিপস্নব, কাউসার, জুয়েল, শাওন, মেহেদী, শিপন, বেলাল হোসেন, সোনাইমুড়ী থানার ওসি আব্দুস সামাদ, ওসি (তদন্ত) ইমদাদুল হক ও কনস্টেবল জসিম উদ্দিনসহ প্রায় ২০ জন আহত হন।

পুলিশ ঘটনাস্থল থেকে ছাত্রলীগ কর্মী আরিফ, সাখাওয়াত, ফয়েজ, সুজন, রাকিব ও শাহাদাতকে আটক করে। নোয়াখালীর অতিরিক্ত পুলিশ সুপার দীপক জ্যোতি খিসা অতিরিক্ত পুলিশ নিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনেন।

সোনাইমুড়ী থানার ওসি আব্দুস সামাদ জানান, সংঘর্ষের খবর পেয়েই পুলিশ ঘটনাস্থলে যায়। পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনতে ৪৬ রাউন্ড ফাঁকা গুলি ছুড়তে হয়েছে।
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
close

উপরে