logo
শনিবার, ০৬ জুন ২০২০, ২৩ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৬

  ক্রীড়া প্রতিবেদক   ০৭ এপ্রিল ২০২০, ০০:০০  

আখতার নাজারভ বলেন

আশা হারাচ্ছেন না কিংসের ডিফেন্ডার

'বসুন্ধরার সঙ্গে আমার চুক্তি আছে, সেটার প্রতি আমার সম্মান দেখাতেই হবে। কারণ পরিস্থিতি ঠিক হলে বাংলাদেশেও লিগ শুরু হবে। আমি আশা হারাচ্ছি না।'

আশা হারাচ্ছেন না কিংসের ডিফেন্ডার
বঙ্গবন্ধু স্টেডিয়ামে বাংলাদেশ প্রিমিয়ার ফুটবল লিগের খেলায় বসুন্ধরা কিংসের ডিফেন্ডার আখতার নাজারভ বল দখলে ব্যস্ত -ফাইল ফটো
বিশ্বমহামারির এই সময়ে হাতেগোনা অল্প যে কয়টি দেশ এখনো করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়নি তার একটি তাজিকিস্তান। তাই ফুটবলও সেখানে চলছে পুরোদমে। দেশটির জাতীয় দলের অধিনায়ক আখতার নাজারভ খেলছেন বসুন্ধরা কিংসের হয়ে। দুর্ভাগ্য নাজারভ দেশে ফিরে যেতে পারেননি, আটকা পড়েছেন ঢাকায়। এই ডিফেন্ডার এখন হয়তো নিজ দেশে থাকতে পারলে আরও বেশি নিরাপদ বোধ করতেন। কিন্তু লকডাউনের কারণে তা আর পারলেন কই?

বসুন্ধরা কিংসের আর্জেন্টাইন স্ট্রাইকার হার্নান বার্কোসই শুধু ঢাকা ছাড়তে পেরেছিলেন। বাকিদের সেই ভাগ্য হয়নি। নাজারভ নিজেই বলছেন এই পরিস্থিতিতে তাজিকিস্তানে থাকলেই বেশি স্বস্তিতে থাকতেন। তবে আশাহত নন তিনি, আছেন পরিস্থিতি ভালো হওয়ার অপেক্ষায়, 'ওখানে (তাজিকিস্তানে) থাকলে তো ভালোই হতো। তবে বসুন্ধরার সঙ্গে আমার চুক্তি আছে, সেটার প্রতি আমার সম্মান দেখাতেই হবে। কারণ পরিস্থিতি ঠিক হলে বাংলাদেশেও লিগ শুরু হবে। আমি আশা হারাচ্ছি না।'

তাজিকিস্তানে করোনার প্রভাব না থাকাতে স্বাভাবিক সবকিছুই চলছে। ফুটবলের নতুন মৌসুমও শুরু হয়েছে দু'দিন হলো। সে দেশের চ্যাম্পিয়ন দল ইস্টিকলল থেকেই বসুন্ধরায় এই মৌসুমে যোগ দিয়েছেন নাজারভ। এই দুর্দিনে ঢাকায় হোম কোয়ারেন্টিনে থাকলেও তিনি পরিবারের সঙ্গে যোগাযোগ রেখে চলেছেন। সবাই ভালো আছেন দেখে ঈশ্বরের কাছেও কৃতজ্ঞতা জানাচ্ছেন, 'দেশে আমার মা, স্ত্রী ও সন্তানরা রয়েছে। ঈশ্বরকে ধন্যবাদ যে তারা ভালো আছে। প্রতিদিনই তাদের সঙ্গে আমার যোগাযোগ হচ্ছে।'

করোনাভাইরাসের প্রকোপে বাংলাদেশের মতোই বিশ্বের প্রায় সব দেশে এখন ফুটবল বন্ধ। তবে ব্যতিক্রমও ঘটছে। বেলারুশ ও বুরুন্ডির মতো তাজিকিস্তানে লিগ শুরুর খবর বিশ্বগণমাধ্যমে উঠে এসেছে। এই প্রকোপের ভেতরও এখনো একজন করোনা আক্রান্ত রোগীও শনাক্ত হননি তাজিকিস্তানে। তবে পাশের দেশ উজবেকিস্তানে হানা দিয়েছে করোনা। লিগে আবার সবমিলিয়ে খেলছেন ৪২ জন বিদেশি ফুটবলার, যার মধ্যে ২০ জনই উজবেকিস্তানের। বিশ্ব গণমাধ্যমে তাই তাজিকিস্তানে লিগ শুরুর সংবাদটি বেশ প্রাধান্য দিয়েই প্রচার করা হয়েছে।

নব্বই লাখ জনগণের দেশটির ঘরোয়া ফুটবল বাইরের বিশ্বে অনেকটা অজানা হলেও শনিবার লিগ চ্যাম্পিয়ন ইস্টিকলল ও রানার্সআপ খুজান্ডের মধ্যকার সুপার কাপের ম্যাচটি প্রচার পেয়েছে। সেই ম্যাচ দেখতে করোনার আতঙ্ক ভুলে মাঠেও গেছেন অনেক দর্শক। এমন কঠিন পরিস্থিতিতে দেশটির এমন সিদ্ধান্তকে বাঁকা চোখে দেখছেন অনেকে।

নাজারভ অবশ্য নিজ দেশের ফুটবল মৌসুম চলাকে ইতিবাচক দৃষ্টিতেই দেখছেন। কারণটাও জানালেন কিংসের এই ফুটবলার, 'আমার দেশে এখনো করোনা আঘাত করেনি। সময় মতো আমাদের দেশের প্রেসিডেন্ট সীমান্ত আটকে দিয়েছিলেন। সেটা একটা ভালো সিদ্ধান্তই ছিল বলে মনে হচ্ছে। তাই তাজিকিস্তানে ঘরোয়া ফুটবল লিগের নতুন মৌসুমও শুরু হয়েছে।'
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
close

উপরে