ত্বকের যত্নে বডি ওয়াশ নাকি সাবান?

ত্বকের যত্নে বডি ওয়াশ নাকি সাবান?

কিছুদিন আগেও বডি ওয়াশের ব্যবহারটি উচ্চবিত্তের মাঝেই সীমাবব্ধ ছিল। কিন্তু মুক্ত বাজার অর্থনীতিতে বডি ওয়াশ জায়গা করে নিয়েছে মধ্যবিত্তের স্নানঘরেও। সেজন্য রূপ সচেতনদের নজর কাড়তে বাজারে হরেক রকমের বডি ওয়াশের চটকদারি বিজ্ঞাপনের অভাব নেই। আজকাল বহু সাবানের কোম্পানিও বডি ওয়াশ নিয়ে এসেছে।

বিভিন্ন রঙ ও গন্ধের বডি ওয়াশ জনপ্রিয়তা পেলেও অনেকের ভরসা এখনো সাবানে। দীর্ঘদিনের অভ্যাসের কারণে অনেকে সাবান থেকে নিজেকে দূরে রাখতে পারছেন না। আবা ইচ্ছে থাকলেও বডি ওয়াশের উপর ভরসা করতে পারেন না, এমন নারীরও অবাব নেই। প্রচলিত ধারণা রয়েছে, বডি ওয়াশ লাগানোর পর, তা ধুয়ে ফেলতে বেশ সময় লাগে। আর পানিরও অপচয় হয়। তাছাড়া ত্বকের যত্নে বডি ওয়াশ নাকি সাবান কোনটি সাশ্রয়ী ও উপকারি, চলুন জেনে নেওয়া যাক।

মূল্য নিয়ে বিভ্রান্তি

অনেকেরই ধারণা যে, সাবানের তুলনায় বডি ওয়াশের দাম অনেক বেশি। কিন্তু একটি বিষয় মনে রাখা উচিত, সাবানের থেকে বডি ওয়াশ অনেক বেশি দিন চলে৷ স্নানের জন্য বডি ওয়াশ বেশি পরিমাণে প্রয়োজন হয়না। কয়েক ফোঁটা বডি ওয়াশই স্নানের জন্য যথেষ্ট। তাই মূল্যের নিরিখে বিচার করতে গেলে বডি ওয়াশই সাশ্রয়ী।

সময় বেশি লাগে

বডি ওয়াশের বিষয়ে একটি প্রচলিত ভুল ধারণা বা মিথ রয়েছে। সেটা হলো স্নানের সময় বডি ওয়াশ পানি দিয়ে ধুতে সাবানের তুলনায় বেশি সময় লাগে। তাই অনেকেই অফিসে বা বাইরে বেরোতে দেরি হওয়ার ভয়ে বডি ওয়াশ এড়িয়েই চলেন। এটা কিন্তু একেবারেই ভুল। কারণ বডি ওয়াশ পানি দিয়ে সহজেই ধুয়ে ফেলা যায়। আর আমাদের ত্বককে এটা হাইড্রেট করে। সঙ্গে ত্বকের জেল্লা বাড়াতেও সাহায্য করে বডি ওয়াশ।

বেশি ফেনায় সতেজতা

স্নানের সময় বডি ওয়াশ লাগালে ফেনা হয়, তার ফলে খুবই রিফ্রেশিং লাগে।বডি ওয়াশ ত্বককে শুকিয়ে যাওয়ার হাত থেকে রক্ষা করে এবং প্রয়োজনীয় ময়েশ্চারের জোগান দেয়। অল্প পরিমাণে বডি ওয়াশ নিলেই প্রচুর ফেনা হয়। যার ফলে স্নানের পর নিজেকে বেশ সতেজ লাগে।

স্বাস্থ্যকর ত্বকের জন্য উপকারী

স্নানঘরে সাবান একটি নির্দিষ্ট পাত্রে রাখতে হয়। আর অন্যের ব্যবহার করা সাবান ব্যবহার করা একেবারেই ঠিক নয়। সেখানে বডি ওয়াশ এমনিতেই বোতলে পাওয়া যায়। একসঙ্গে অনেকে ব্যবহারও করা যায়।আর হাইজিন নিয়ে তো ভাবতেই হয় না। আবার বেড়াতে যাওয়ার সময় বডি ওয়াশের বোতল নিয়ে গেলেই হয়। কারণ আলাদা করে সাবান নেওয়াটা খুবই ঝামেলার বিষয়৷

অনেকেরই ধারণা শাওয়ারের নিচে দাঁড়িয়ে স্নান করলে তবেই বডি ওয়াশ ব্যবহার করা যায়। মগ-বালতি দিয়ে স্নানের ক্ষেত্রে বডি ওয়াশ ভালো কাজ দেয় না। এটা একেবারেই ভুল ধারণা। আসলে আমাদের দেশে বেশির ভাগ মানুষই মগ-বালতিতেই স্নান করতে স্বাচ্ছন্দ্য বোধ করেন। তাই যে কোনো রকম ভাবে স্নানের ক্ষেত্রে বডি ওয়াশ দারুণ কার্যকর। অনেকেই সারাদিনের কাজকর্মের পরে বাড়ি ফিরে স্নান না করে গা ধুয়ে নেন৷ সে ক্ষেত্রে বডি ওয়াশ বেশ উপকারী। কারণ দিনের শেষের ক্লান্তি ধুয়ে একটা আলাদাই সতেজতা এনে দিতে পারে বডি ওয়াশ দিয়ে একটি গোসল।

যাযাদি/ এমডি

  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

আরও খবর

সকল ফিচার

রঙ বেরঙ
উনিশ বিশ
জেজেডি ফ্রেন্ডস ফোরাম
নন্দিনী
আইন ও বিচার
ক্যাম্পাস
হাট্টি মা টিম টিম
তারার মেলা
সাহিত্য
সুস্বাস্থ্য
কৃষি ও সম্ভাবনা
বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি

Copyright JaiJaiDin ©2021

Design and developed by Orangebd


উপরে