শনিবার, ১৫ জুন ২০২৪, ১ আষাঢ় ১৪৩১

দেশের ৬৪ জেলায় মডেল মন্দির করার দাবি জানিয়েছেন সুকুমার চৌধুরী 

যাযাদি ডেস্ক
  ০৯ সেপ্টেম্বর ২০২৩, ১০:৩১
দেশের ৬৪ জেলায় মডেল মন্দির করার দাবি জানিয়েছেন সুকুমার চৌধুরী 

পরমেশ্বর ভগবান শ্রীকৃষ্ণের ৫২৫০তম জন্মতিথি উপলক্ষে সবাইকে জন্মাষ্টমীর শুভেচ্ছা। ভগবান শ্রীকৃষ্ণের শুভ জন্মতিথি উপলক্ষ্যে বৃহস্পতিবার (৭ সেপ্টেম্বর) প্রতিবারের ন্যায় প্রধানমন্ত্রীর সাথে আজকের সৌজন্য স্বাক্ষাৎ ও শুভেচ্ছা বিনিময় অনুষ্ঠানের সন্মানিত সভাপতি ও আজকের সভার প্রধান অতিথি হাজার বছরের সর্বশ্রেষ্ঠ বাঙ্গালী জাতির জনক বঙ্গবন্ধুর সুযোগ্য কন্যা, ডিজিটাল বাংলাদেশের রুপকার ও স্মার্ট বাংলাদেশের স্বপ্নদ্রষ্টা, বিশ্বশান্তির অগ্রদূত, মাদার অফ হিউমিনিটি প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী দেশরত্ন শেখ হাসিনা। উপস্থিত সাধু সন্যাসী, মহাত্মা মহারাজবৃন্দ, রাষ্ট্রীয় অতিথিবৃন্দ এবং সনাতনী সমাজের নেতৃবৃন্দ সবাইকে জন্মাষ্টমীর কৃষ্ণময় প্রীতি ও শুভেচ্ছা জানাই।

শ্রীকৃষ্ণের এই জন্মোৎসব পালনকল্পে আজ থেকে বিগত চল্লিশ বছর পূর্বে কিছু কৃষ্ণভাবাপূর্ণ সমাজ হিতৈষী ধর্মানুরাগী ব্যক্তি মিলে চট্টগ্রামে প্রথম শ্রীশ্রী জন্মাষ্টমী উদযাপন পরিষদ, চট্টগ্রাম গঠন করেছিলেন। কাল পরিক্রমায় এটি আজ জাতীয় সংগঠনে রূপ লাভ করেছে। আজ এই সংগঠনে তত্ত্বাবধানে সারা বাংলাদেশে প্রত্যেকটি জেলা ও উপজেলায় সাংগঠনিক কাজ চলছে। নেত্রী, আপনার প্রতি অশেষ কৃতজ্ঞতা যে, আপনি ১৯৯৬ সালে চট্টগ্রামস্থ জে. এম. সেন হল প্রাঙ্গণে জন্মাষ্টমীর অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে আসন অলংকৃত করায় সারা বাংলাদেশের সনাতনী সম্প্রদায়ের মাঝে আলোর সঞ্চার করেছিলেন। নেত্রী, জন্মাষ্টমীর প্রাক্কালে প্রতি বৎসরে আমরা আপনার সাথে শুভেচ্ছা বিনিময় করতে, মনের কিছু কথা বলতে, গনভবনের এই সবুজ চত্বরে এসে থাকি। বিগত বৎসরগুলোতে আপনি আমাদের আবেদনের প্রেক্ষিতে অনেক দাবি-দাওয়া, চাওয়া-পাওয়া পূরণ করেছেন। তার জন্য সারা বাংলাদেশের সনাতনী সম্প্রদায়ের পক্ষ থেকে আপনার প্রতি কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করছি। প্রধানমন্ত্রী, আপনি রাষ্ট্রীয় ক্ষমতায় অধিষ্ঠিত আছেন বলে আমরা আজ সারাদেশে শান্তিতে বসবাস করছি। একইভাবে, আজ সকল সনাতনী সমাজ আশা করে আপনি দীর্ঘদিন আমাদের মাঝে সুস্থ ও সবলভাবে থাকুন এবং সনাতনীদের হৃদকোঠরে থাকুন।

মাননীয় নেত্রী, প্রত্যেক বৎসরেই জন্মাষ্টমীর এই শুভেচ্ছা বিনিময় অনুষ্ঠান জন্মাষ্টমীর আগে কিংবা পরে হতো। এইবারে জন্মাষ্টমী উৎসব চলাকালীন সময়ে এই শুভেচ্ছা বিনিময় হচ্ছে, এতে সারা বাংলাদেশ থেকে যারা আজকে এখানে এসেছেন তারা স্ব স্ব এলাকার উৎসব ফেলে এসেছেন। কারন আপনার সাথে এই শুভেচ্ছা বিনিময় আমাদের জন্য অনেক আনন্দের এবং গর্বের বিষয় । মাননীয় প্রধানমন্ত্রী, ভবিষ্যতে শুভেচ্ছা বিনিময় অনুষ্ঠানটি উৎসবের দিন ধার্য না করে উৎসবের অন্তত পক্ষে এক সপ্তাহ পূর্বে যেকোন দিন দেওয়ার জন্য বিনীতভাবে অনুরোধ জানাচ্ছি।

এতে করে, সারা বাংলাদেশের সনাতনী সম্প্রদায়ের জন্য অত্যন্ত আনন্দদায়ক হবে। মাননীয় নেত্রী, আপনি আমাদের অভিভাবক। আপনার কাছে আসলেই আমরা সনাতনী সম্প্রদায়ের পক্ষে কিছু কথা তুলে ধরার চেষ্টা করি। আপনার সদয় অনুমতি ও সহানুভূতি কামনা করছি। মাননীয় নেত্রী, আমাদের দীর্ঘ দিনের প্রাণের দাবি শারদীয় দূর্গোৎসবে ৪ দিনের সরকারি ছুটি। এই দাবিটি অন্তত পক্ষে বর্তমানে একদিনের জায়গায় বাড়িয়ে ২ দিন করে দিলে আমরা আপনার নিকট চির কৃতজ্ঞ থাকব।

গণভবনে বক্তব্য প্রদান কালে জন্মাষ্টমী উদযাপন পরিষদের কেন্দ্রীয় সভাপতি সুকুমার চৌধুরী বলেন, মাননীয় নেত্রী, ৬৪টি জেলায় অন্তত পক্ষে একটি করে মডেল মন্দির স্থাপনের জন্য আপনার নিকট বিনীত ভাবে অনুরোধ জানাচ্ছি।প্রধানমন্ত্রী, আপনি আমাদের সর্বশেষ আস্থা ও বিশ্বাসের ঠিকানা। সেই আস্থা ও বিশ্বাসের জায়গা থেকে বলতে চাই, আগামী দ্বাদশ সংসদ নির্বাচন নিশ্চয়ই ২০২৪ সালের প্রথমদিকে। সেই নির্বাচনের আগে ও পরে আপনার উন্নয়নের ধারাকে যাতে কোন সাম্প্রদায়িক অপশক্তি প্রশ্নবিদ্ধ করতে না পারে সেই ব্যাপারে যথাযথ ব্যবস্থা গ্রহনের বিনীত অনুরোধ জানাচ্ছি। মাননীয় নেত্রী, জন্মাষ্টমী পরিষদে কাজ করতে গিয়ে সারা বাংলাদেশে যে সহযোগিতা আপনার থেকে এবং দলীয় নেতাকর্মী সহ প্রশাসন থেকে পেয়ে থাকি তার জন্য আমরা কৃতজ্ঞ। মাননীয় নেত্রী, বিশেষ করে চট্টগ্রামে পরিষদের কাজ করতে গিয়ে যাঁদের সহযোগিতা আমরা সবসময় পেয়ে থাকি তাঁদের মধ্যে বর্তমান সিটি মেয়র মুক্তিযোদ্ধা আলহাজ্ব রেজাউল করিম চৌধুরী, মাননীয় শিক্ষা উপ-মন্ত্রী ব্যারিষ্টার মহিবুল হাসান চৌধুরী নওফেল, চট্টগ্রাম মহানগর বর্তমান সিটি আওয়ামীলীগের সম্মানিত সাধারন সম্পাদক ও সফল সাবেক মেয়র জননেতা আলহাজ্ব আ.জ.ম নাছির উদ্দীন অন্যতম। তাঁদেরকে আপনার মাধ্যমে কৃতজ্ঞতা জানাই।

সবকিছুর জন্য জাতি হিসেবে আমরা আপনার প্রতি কৃতজ্ঞ। আপনি অসাম্প্রদায়িক বাংলাদেশ গড়ার লক্ষ্যে বিশ্বে অনন্য ভূমিকা রচনা করেছেন, যা বিশ্বের ইতিহাসে আপনাকে সেরা রাষ্ট্রনায়ক হিসেবে অভিভূত করেছেন। আপনার জন্য আমরা গর্বিত। আপনিই আমাদের পরম বন্ধু ও কল্যাণমিত্র। মাননীয় প্রধানমন্ত্রী, আপনি হাজারো ব্যস্ততার মাঝে আমাদেরকে সময় দিয়েছেন তার জন্য পরিষদের পক্ষ থেকে কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করছি।

পরিশেষে, ভগবান শ্রীকৃষ্ণের আশীর্বাদে আপনি সহ আপনাদের জীবন হয়ে উঠুক প্রেম, হাসি, সুখে চির বিরাজমান। শান্তি ও সমৃদ্ধিতে ভরে উঠুক আপনার প্রতিটি মূহুর্ত। আপনাদের সবাইকে আবারো শুভ জন্মাষ্টমীর শুভেচ্ছা। ধন্যবাদ। হরে কৃষ্ণ। জয় বাংলা, জয় বঙ্গবন্ধু ।

যাযাদি/ এসএম

  • সর্বশেষ
  • জনপ্রিয়
X
Nagad

উপরে