গরিবদের ওপর টিকা প্রয়োগ করে দেখবে বাঁচে না মরে: রিজভী

গরিবদের ওপর টিকা প্রয়োগ করে দেখবে বাঁচে না মরে: রিজভী

ভিআইপিদের অগ্রাধিকার ভিত্তিতে করোনার টিকা দেয়ার কোনো পরিকল্পনা নেই, গতকাল স্বাস্থ্যমন্ত্রীর দেয়া এমন বক্তব্যের কড়া সমালোচনা করেছেন বিএনপির সিনিয়র যুগ্ম-মহাসচিব অ্যাডভোকেট রুহুল কবির রিজভী।

তিনি বলেন, ‘স্বাস্থ্যমন্ত্রী বলেছেন, করোনা টিকা আসছে। এটা ভিআইপিরা অগ্রাধিকার ভিত্তিতে পাবে না। ওনারা ভিআইপিদের আগে গরিবদের ওপর প্রয়োগ করে গরিব বাঁচে না মরে দেখবেন। অথচ নবনির্বাচিত মার্কিন প্রেসিডেন্ট জো বাইডেনও আগে করোনা টিকা নিয়েছেন। এমনকি দেশটির শীর্ষ সংক্রামক বিশেষজ্ঞ অ্যান্থনি ফউচিও নিয়েছেন।’

বুধবার (২০ জানুয়ারী) নয়াপল্টনে দলের কেন্দ্রীয় কার্যালয়ের নিচতলায় বিএনপির প্রতিষ্ঠাতা জিয়াউর রহমানের ৮৫ তম জন্মবার্ষিকী উপলক্ষে জিয়াউর রহমান ফান্ডেশনের উদ্দ্যোগে বিনামূলে স্বাস্থ্য সেবার উদ্ধোধন কালে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন।

রিজভী বলেন, ‘স্বাস্থ্যমন্ত্রী নিজেরাতো নিরাপত্তার চাদরে ঢাকা থাকেন। ভাইরাস যেন কোন ফাঁক দিয়ে ‘বেহুলার বাসর ঘরে সাপ ঢোকার মতো’ না ঢুকতে পারে প্রধানমন্ত্রীও ঠিক সেভাবেই আছেন। একইভাবে রয়েছেন ওবায়দুল কাদেরও। তাই ভিআইপিদের আগে গরিবদের উপর প্রয়োগ করে দেখবেন গরিবরা বাঁচে না মরে।’

বিএনপির এই সিনিয়র যুগ্ম-মহাসচিব বলেন, ‘আগে গরিব মানুষের ওপর এরা ভ্যাকসিন প্রয়োগ করবে। ভারতে এই ভ্যাকসিন নিতে গিয়ে কয়েক জায়গায় মানুষ মারা গেছে। যদিও তারা বলেছেন এটা ভ্যাকসিনের কারণে নয়। ভ্যাকসিন নেওয়ার পর তো মারা গিয়েছে। আর ওনারা বলে ভিআইপিরা আগে পাবে না।’

তিনি সরকারের উদ্দেশে বলেন, ‘যাদের কাছ থেকে ভ্যাকসিন নিচ্ছেন, তারা তো আপনাদেরকেই বন্ধু মনে করে। বাংলাদেশের আর কাউকে বন্ধু মনে করে না। তো এই ভ্যাকসিন এর ওপর আমাদের সন্দেহ থাকবে না কেন? আমাদের সন্দেহ, সংশয় সব রয়েছে। যে দেশ কাছ থেকে আপনারা ভ্যাকসিন নিচ্ছেন তারাতো আমাদের বিশ্বাসের জায়গা হালকা করেছে। কারণ ওই দেশের পলিটিশিয়ানরা আওয়ামী লীগ ও আওয়ামী লীগ সরকারকেই বন্ধু মনে করে। আর সেই সরকারের মন্ত্রী বলেন ভিআইপিরা আগে পাবে না। ভিআইপি কে? ভিআইপি হল মন্ত্রীরা, ভিআইপি হলো আমলারা আর ভিআইপি হলো এমপিরা।’

বিএনপির এই শীর্ষনেতা বলেন, ‘যদি পরিস্থিতি এই হয়, তাহলে স্বাস্থ্যমন্ত্রী আপনি ভ্যাকসিন গবেষণা টেস্ট হিসেবে গরিবদের ব্যবহার করবেন না। আগে নিজেরা নিয়ে দেখেন। আপনাদের শরীরে কি প্রতিক্রিয়া হচ্ছে। তারপর গরিবদের দেওয়ার চেষ্টা করেন।যদি দেখেন এটার যথাযথ উপকার হয় তারপর গ্রামে-গঞ্জে পাঠানোর ব্যবস্থা করুন।’

তিনি বলেন, ‘ভোটকেন্দ্রের মত নাকি ভ্যাকসিনের কেন্দ্র করা হবে। তাহলে তো এই সরকারের যে বৈশিষ্ট্য ভোট কেন্দ্র মানেই তো হল ভোটাররা যেতে পারবেনা। সুষ্ঠু ভোট হয় না। আওয়ামী লীগের লোকেরা ব্যালটবক্স ভর্তি করেন। ভ্যাকসিনের কেন্দ্র যদি ইউনিয়ন গ্রামে করা হয় তাহলে আওয়ামী লীগের লোকেরা এই ভ্যাকসিন পাবে এবং তারা যাদের সুপারিশ করবে কেবল তারাই তো ভ্যাকসিন পাবে।’

রিজভী আরও বলেন, ‘জিয়াউর রহমান ফাউন্ডেশনের আয়োজিত ফ্রি মেডিকেল ক্যাম্প নিয়ে আমার বলার কিছু নেই। কি দিন, কি রাত।তারা সব সময় কম্বল বিতরণ করছে শীতার্তের মাঝে ঔষধ বিতরণ করছে। এক ঝাঁক তরুণ নেতৃত্ব ডাক্তার ডোনার, ডাক্তার মোরশেদ হাসান খান, সরকার শামীম এর মত নেতৃত্ব যেখানে আছে তাদের সাথে কাজ করতে, তাদের অনুরোধ রক্ষা করলে নিজেকে গর্বিত মনে হয়। সরকারের এত অত্যাচার, জুলুমের পরও এরা পতাকা হাত থেকে ছাড়ছেনা এরা ধরেই রেখেছে। আমি এদের আন্তরিক কৃতজ্ঞতা জানাই ‘

অনুষ্ঠানে বিএনপির যুগ্ম-মহাসচিব অ্যাডভোকেট সৈয়দ মোয়াজ্জেম হোসেন আলাল, ঢাবি অধ্যাপক ডক্টর মোর্শেদ হাসান খান, বিএনপির সহ-সাংগঠনিক সম্পাদক এডভোকেট আব্দুস সালাম আজাদ, আব্দুল খালেক, ছাত্রদলের সাধারণ সম্পাদক ইকবাল হোসেন শ্যামল, সাংগঠনিক সম্পাদক সাইফ মাহমুদ জুয়েল প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।

যাযাদি/ এমএস

  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

আরও খবর

Copyright JaiJaiDin ©2021

Design and developed by Orangebd


উপরে