টিকা নেওয়ার পর ত্রাণ সচিব ও স্বাস্থ্যকর্মী করোনায় আক্রান্ত

টিকা নেওয়ার পর ত্রাণ সচিব ও স্বাস্থ্যকর্মী করোনায় আক্রান্ত

করোনার টিকা নেওয়ার পর দুর্যোগব্যবস্থাপনা ও ত্রাণ মন্ত্রণালয়ের সচিব মো. মোহসীন এবং স্যার সলিমুলস্নাহ মেডিকেল কলেজ ও মিডফোর্ট হাসপাতালের ওয়ার্ড মাস্টার সাজ্জাদ হোসেন ফের আক্রান্ত হয়েছেন।

টিকা নেওয়ার ১২ দিন পর ত্রাণসচিবের করোনা শনাক্ত হয়। আর ১৬ দিনের মাথায় করোনা শনাক্ত হয় স্বাস্থ্যকর্মী সাজ্জাদ হোসেনের। এর আগে টিকা নেওয়ার ৬ দিনের মাথায় আক্রান্ত হয়েছিলেন বাংলাদেশ চলচ্চিত্র ও প্রকাশনা অধিদপ্তরের (ডিএফপি) মহাপরিচালক গোলাম কিবরিয়া।

দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা ও ত্রাণ মন্ত্রণালয়ের সিনিয়র তথ্য কর্মকর্তা মো. সেলিম হোসেন বলেন, 'সচিব স্যারসহ অফিসের সবাই ৭ ফেব্রম্নয়ারি রাজধানীর জাতীয় ক্যানসার গবেষণা ইনস্টিটিউট ও হাসপাতালে টিকা নিয়েছিলাম। পরে সচিব স্যারের ১৩ তারিখ থেকে ঠান্ডা, জ্বর, কাশির উপসর্গ দেখা দেয়। ১৯ ফেব্রম্নয়ারি তিনি করোনা পরীক্ষা করালে পজিটিভ আসে।'

স্যার সলিমুলস্নাহ মেডিকেল কলেজ ও মিডফোর্ট হাসপাতালের ওয়ার্ড মাস্টার সাজ্জাদ হোসেন টিকা নেওয়ার পর ২৩ ফেব্রম্নয়ারি করোনা পজিটিভ হন। ৮ ফেব্রম্নয়ারি তিনি টিকা নিয়েছিলেন।

স্বাস্থ্যকর্মী সাজ্জাদ হোসেনের করোনায় আক্রান্ত হওয়া প্রসঙ্গে স্যার সলিমুলস্নাহ মেডিকেল কলেজ ও মিটফোর্ড হাসপাতালের পরিচালক ব্রিগেডিয়ার জেনারেল কাজী মোহাম্মদ রশিদ-উন-নবী বলেন, যেদিন তিনি (সাজ্জাদ হোসেন) টিকা নেন, সেদিন থেকেই তার জ্বর ছিল। তবে তার শরীরে হয়তো আগে থেকেই করোনার জীবাণু ছিল। সাজ্জাদ হোসেন এখন বাসায় আইসোলেশনে আছেন।

বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়ের সাবেক উপাচার্য ও বিশিষ্ট ভাইরোলজিস্ট নজরুল ইসলাম বলেন, 'শরীরে করোনার জীবাণু প্রবেশের পর যদি তারা টিকা নেন, তাহলে সেটা কাজ না-ও করতে পারে। কারণ, ভাইরাসটি শরীরে প্রবেশের পর এর শক্তিকাল ১৫ দিন। তার আগেই তারা আক্রান্ত হয়ে থাকতে পারেন।'

নজরুল ইসলাম আরও বলেন, 'টিকার বুস্টিং ডোজ বা দ্বিতীয় ডোজ গ্রহণ করলে করোনায় আক্রান্ত হওয়ার আশঙ্কা কমে যাবে। তবে কারও যদি নানা শারীরিক সমস্যা বা ইমিউনিটি সিস্টেম দুর্বল থাকে, তাহলে তিনি আবারও আক্রান্ত হতে পারেন। তবে সে সংখ্যা ১০ হাজারে একজন হতে পারে।'

  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

আরও খবর

Copyright JaiJaiDin ©2021

Design and developed by Orangebd


উপরে