বরগুনায় খাদ্যবান্ধব কর্মসূচিতে ৮৭১ উপকারভোগীর নাম বাদ

বরগুনায় খাদ্যবান্ধব কর্মসূচিতে ৮৭১ উপকারভোগীর নাম বাদ

বরগুনা সদর উপজেলার ঢলুয়া ইউনিয়নের খাদ্যবান্ধব কর্মসূচির তালিকা থেকে যাচাই-বাছাই ছাড়াই উপকারভোগীদের নাম বাদ দেওয়া হয়েছে। এ অভিযোগে জেলা প্রশাসকের বরাবর গত ৮ আগস্ট লিখিত অভিযোগ দিয়েছেন ওই ইউনিয়নের ইউপি সদস্য গোলাম ফরিদ।

লিখিত অভিযোগে জানা গেছে, বরগুনা সদর উপজেলার ঢলুয়া ইউনিয়নে খাদ্যবান্ধব কর্মসূচির তালিকাভুক্ত ১ হাজার ৮২৭জন উপকারভোগী রয়েছে। এর মধ্যে ২০২০ সালে খাদ্যবান্ধব কর্মসূচির উপকারভোগীদের তালিকা হালনাগাদ করা হয়।

সরেজমিন দেখা যায়, ঢলুয়া ইউনিয়নের ১নং ওয়ার্ডে কম্পিউটারের মাধ্যমে ডিজিটাল ডাটাবেইজে উপকারভোগীদের নাম যাচাই-বাছাই কার্যক্রম চলছে। এ সময় অনেকে উপকারভোগীদের মূল তালিকায় নাম থাকলেও ডিজিটাল ডাটাবেইজে তাদের নাম অন্তর্ভুক্তি নেই। ঢলুয়া ইউনিয়নের ডিজিটাল উদ্যোক্তা রফিকুল ইসলাম তাদের সিরিয়াল দেখে জানান, তাদের নাম নেই।

পোটকাখালী এলাকার ফারুক জানান, তিনি অসুস্থ মানুষ। ইউপি সদস্য ১০ টাকা কেজি দরে চালে তার একটা নাম দিয়েছিল। তার নামটি কেটে দেওয়া হয়েছে। এখন ছেলেমেয়ে নিয়ে কি খাবেন তা ভেবে পাচ্ছেন না।

পোটকাখালী এলাকার শেফালী রানী বলেন, ১০ টাকা কেজি দরে চাল এপ্রিল মাসে পেয়েছেন। এখানে বাছাইয়ের সময় এসে দেখেন তার নাম কেটে দিয়েছে। তার স্বামী কাজ-কর্ম করতে পারেন না। এখন কীভাবে চলবেন সে নিয়ে দুশ্চিন্তায় রয়েছেন।

অভিযোগের বিষয়ে ঢলুয়া ইউনিয়নের চেয়ারম্যান আজিজুল হক স্বপন বলেন, 'আমরা একটি তালিকা করে উপজেলা খাদ্য অফিসে পাঠিয়েছি। উপজেলা খাদ্য কর্মকর্তা আমাদের যে ধরনের নিদের্শনা দিয়েছেন আমরা সেই অনুযায়ী কাজ করেছি। যাদের নাম বাদ গিয়েছে তারা পাবে। যাদের নাম নেই তাদের নাম আগে ঢুকবে পরে নতুন নাম অন্তর্ভুক্ত হবে। যারা কাজটি করছে তারা বুঝেনি।'

বরগুনা জেলা প্রশাসক হাবিবুর রহমান জানান, অভিযোগ পেয়েছেন। অভিযোগের বিষয়ে তদন্ত করে ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

আরও খবর

Copyright JaiJaiDin ©2022

Design and developed by Orangebd


উপরে