রোববার, ২৬ মে ২০২৪, ১২ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১
শিলাবৃষ্টি-বজ্রপাত আতঙ্কে কৃষক

সুনামগঞ্জ হাওড়ে বোরো ধান কাটা উৎসব

জগন্নাথপুর (সুনামগঞ্জ) প্রতিনিধি
  ২০ এপ্রিল ২০২৪, ০০:০০
সুনামগঞ্জের জগন্নাথপুরের হাওড় এলাকায় বোরো ধান কাটার উদ্বোধন করা হয় -যাযাদি

হাওর অধু্যষিত ধান ও মাছের প্রসিদ্ধ অঞ্চলখ্যাত সুনামগঞ্জ জেলার ছোট-বড় হাওরে বৈশাখের অন্যতম ফসল বোরো ধান কাটা শুরু হয়েছে। বোরো ধান কাটার এই সময়ে হাওর এলাকার কৃষাণ-কৃষাণীরা সকাল থেকে সন্ধ্যা পর্যন্ত ব্যস্ত সময় পার করছেন। হাওরের নিচু জমিতে বৃষ্টির পানিতে জলাবদ্ধতার সৃষ্টি হওয়ায় ধান কাটার আধুনিক যন্ত্র প্রবেশ করতে পারেন না এবং সময়মতো শ্রমিক পাওয়া যায় না, যার ফলে পাকা ধান কাটা নিয়ে কৃষকরা দুশ্চিন্তায় আছেন। এদিকে শ্রমিক দ্বারা ধান কাটাতে হলে প্রতি বিঘা জমির জন্য খরচ হচ্ছে আড়াই থেকে তিন হাজার টাকা। অকাল বন্যা, শিলাবৃষ্টি ও বজ্রপাতসহ প্রকৃতিক দুর্যোগ আতঙ্কে থাকেন সুনামগঞ্জের হাওর এলাকার কৃষক। অধিকাংশ হাওরে কৃষকদের জন্য নিরাপদ ছাউনি ও সুপেয় পানির ব্যবস্থা না থাকায় ঝড়তুফান, বজ্রপাত ও শিলাবৃষ্টি হলে কৃষক শ্রমিকদের নিরাপদ আশ্রয়ের জায়গা নেই। তবে চলতি বছর আবহাওয়া অনুকূলে থাকায় কৃষকদের নির্বিঘ্নে পাকা ধান কাটতে দেখা গেছে। বোরো ধান কাটার এই সময়ে সুনামগঞ্জ ছাড়াও দেশের বিভিন্ন এলাকা থেকে ধান কাটার শ্রমিকদের আসতে দেখা গেছে। সনাতন পদ্ধতিতে বোরো ধান কাটার পাশাপাশি ধান কাটার আধুনিক যন্ত্র কম্বাইন্ড হারভেস্টার মেশিনের সাহায্যে দ্রম্নত সময়ের মধ্যে হাওরে ধান কাটা হচ্ছে।

জগন্নাথপুর উপজেলা কৃষি অফিস সূত্রে জানা গেছে, চলতি বোরো মৌসুমে উপজেলায় স্থানীয় এবং বহিরাগত প্রায় ১০ হাজার শ্রমিকের পাশাপাশি ৭৫টি আধুনিক কম্বাইন্ড হারভেস্টার মেশিন ধান কাটায় নিয়োজিত রয়েছে। ইতোমধ্যে এক-তৃতীয় অংশ ধান কাটা হয়েছে। আবহাওয়া অনুকূলে থাকলে এপ্রিল মাসের মধ্যেই ধান কাটা শেষ হবে।

চলতি বছর জগন্নাথপুর উপজেলায় ২০ হাজার ৩৮৫ হেক্টর জমিতে বোরো ধান চাষাবাদ করা হয়েছে। শুধু হাওরে চাষের জমির পরিমাণ প্রায় ১৪ হাজার ৪১০ হেক্টর। এবার উপজেলায় বোরো ধানের উৎপাদন লক্ষ্যমাত্রা নির্ধারণ করা হয়েছে ৮৫ হাজার ৪১৩ মেট্রিক টন।

কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তর জগন্নাথপুর উপজেলার আয়োজনে বৃহত্তর নলুয়ার হাওরে বোরো ধান কাটা উৎসবের উদ্বোধন করা হয়।

সুনামগঞ্জ-৩ আসনের সংসদ সদস্য ও পরিকল্পনা মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত স্থায়ী কমিটির সভাপতি এম এ মান্নান ধান কাটা উৎসবের উদ্বোধন করেন। এ সময় প্রবীণ আওয়ামী লীগ নেতা সিদ্দিক আহমেদ, উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা আল বশিরুল ইসলাম, কৃষি কর্মকর্তা কাওসার আহমেদ, উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক রেজাউল করিম রিজু, ওসি আমিনুল ইসলাম, উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান আবুল হোসেন লালন, মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান সুফিয়া খানম সাথী, চিলাউড়া-হলদিপুর ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান শহিদুল ইসলাম বকুল, মেম্বার অনিল চন্দ্র দাস, রঞ্জিত দাস, সাবেক মেম্বার জুয়েল আহমেদ, কৃষক মোহ, ইসমাইল, উপ-সহকারী কৃষি অফিসার সুমন চন্দ্র দাস, আমীর আফজাল, ফজলুল হক, আব্দুল কাদির, কবির আহমদ, রুবেল হোসেন, বুলবুল জাহান কমল, উজ্জ্বল দেব নাথ, সুজন সরকারসহ এলাকার কৃষকরা উপস্থিত ছিলেন।

  • সর্বশেষ
  • জনপ্রিয়
X
Nagad

উপরে