হেফাজতের তান্ডব বিচারবিভাগীয় তদন্ত দাবি ছাত্রলীগের

হেফাজতের তান্ডব বিচারবিভাগীয় তদন্ত দাবি ছাত্রলীগের

ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় তান্ডবের ঘটনা নিয়ে মিথ্যাচার করায় অবিলম্বে হেফাজত নেতাদের নিঃশর্ত ক্ষমা প্রার্থনার আহ্বান জানিয়েছে জেলা ছাত্রলীগ। একই সঙ্গে ঘটনায় বিচারবিভাগীয় তদন্তের দাবি জানান তারা।

শুক্রবার ব্রাহ্মণবাড়িয়া প্রেসক্লাব মিলনায়তনে

আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলনে জেলা ছাত্রলীগ নেতারা এই দাবি জানান। সংবাদ সম্মেলনে লিখিত বক্তব্য পাঠ করেন জেলা ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক শাহাদাৎ হোসেন শোভন।

লিখিত বক্তব্যে শাহাদাৎ হোসেন শোভন বলেন, গত ২৬ মার্চ দেশবাসী যখন মহান স্বাধীনতার সুবর্ণজয়ন্তী পালন করছিল ওইদিন বিকাল তিনটার পর থেকেই সম্পূর্ণ বিনা উসকানিতে ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় নারকীয় তান্ডব চালায় হেফাজত সমর্থিত মাদ্রাসার ছাত্ররা। পরদিন বিকালে আওয়ামী লীগ ও অঙ্গ-সহযোগী সংগঠনের নেতারা এর প্রতিবাদ জানিয়ে মিছিল করলে ফের হেফাজত হামলা চালায়। ২৮ মার্চ হরতাল চলাকালে হেফাজতের নেতাকর্মীদের সঙ্গে জামাত-বিএনপির নেতাকর্মী দেশীয় অস্ত্রশস্ত্রসহ শহরের বিভিন্ন সরকারি ও বেসরকারি স্থাপনায় ভাঙচুর ও অগ্নিসংযোগ করে।

তিনি আরও বলেন, গত ৫ এপ্রিল হেফাজত নেতারা ব্রাহ্মণবাড়িয়া প্রেসক্লাবে আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলনে বলেছেন- 'তান্ডবে হেফাজতের কেউ জড়িত নেই।' তাদের এই বক্তব্য মিথ্যাচার ও ও জঘন্য অপরাজনীতি।

জেলা ছাত্রলীগের সাধারণ শাহাদাৎ হোসেন শোভন হেফাজতের তান্ডবের ঘটনার তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানিয়ে বলেন, এ ঘটনায় বিচারবিভাগীয় তদন্ত করতে হবে। তিনি অবিলম্বে মিথ্যাচারের জন্য হেফাজত নেতাদের নিঃশর্ত ক্ষমা চাওয়ার আহ্বান জানান।

সংবাদ সম্মেলনে ছিলেন জেলা ছাত্রলীগের সভাপতি রবিউল হোসেন রুবেল, ছাত্রলীগ নেতা জুবায়ের মাহমুদ খান শ্রাবণ, তামাচ্ছুম অনিক, আবদুল আজিজ অনিক, সাকিল ইসলাম তানিম, শেখ মঞ্জুরে মওলা, রুহুল আমিন আফ্রিদী ও সাফাওয়ান আহমেদ।

  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

আরও খবর

Copyright JaiJaiDin ©2021

Design and developed by Orangebd


উপরে