শনিবার, ৩১ অক্টোবর ২০২০ ১৫ কার্তিক ১৪২৭

টাইগারদের সব বোলারই বাঁহাতি স্পিনার

টাইগারদের সব বোলারই বাঁহাতি স্পিনার
ইংল্যান্ডের সাবেক অধিনায়ক কেভিন পিটারসেন -ফাইল ফটো

নিজের পুরো খেলোয়াড়ি জীবনেই বাঁহাতি স্পিনকে যমের মতো ভয় পেয়েছেন ইংল্যান্ডের সাবেক অধিনায়ক কেভিন পিটারসেন। আর খেলা যখন বাংলাদেশের বিপক্ষে হতো, তখন যেন তার আত্মারাম খাঁচা ছাড়া হওয়ার জোগাড়।

কেননা ওই সময় মোহাম্মদ রফিক, আব্দুর রাজ্জাক ও সাকিব আল হাসান- তিন বাঁহাতি স্পিনার নিয়ে নামত বাংলাদেশ। সাকিব আসার আগে খেলতেন আরেক বাঁহাতি স্পিনার মানজারুল ইসলাম রানা। সব মিলিয়ে টাইগারদের বোলিং আক্রমণের মূল শক্তিই ছিল বাঁহাতি স্পিন। যে কারণে বাংলাদেশ সফর করতে খুব একটা পছন্দ করতেন না পিটারসেন। তার কাছে সব সময়ই বাংলাদেশ সফরকে কঠিন মনে হতো। তার মনে বাঁহাতি স্পিনারদের ভয় এতটাই ছিল যে, বিমানে উঠলে পর্যন্ত মনে হতো যে বিমানবালারা বুঝি তার সামনে বাঁহাতি স্পিন করছে।

ক্রিকেটভিত্তিক ওয়েবসাইট ক্রিকবাজকে দেওয়া সাক্ষাৎকারে এ কথা জানিয়েছেন পিটারসেন। সঞ্চালক পমি এমবাঙয়া তাকে জিজ্ঞেস করেছিলেন উপমহাদেশে ক্রিকেট খেলার স্মৃতির ব্যাপারে। তখন বাংলাদেশের কথা বলতে গিয়ে শুধু বাঁহাতি স্পিন নিয়েই সব বলে যান পিটারসেন।

তার ভাষ্য, 'বাংলাদেশ! সত্যিই সেখানে সফর করা খুব কঠিন। বিশেষ করে আমি যখন খেলছিলাম। আমি বাঁহাতি স্পিন খেলতে পারি না আর বাংলাদেশের প্রত্যেকটা বোলারই যেন বাঁহাতি স্পিনার। আমি বিমানে ওঠার পর বিমানবালারাও যেন বাঁহাতি স্পিন করছিল। রানওয়েতে মানুষ হাঁটছে, তারাও যেন বাঁহাতি স্পিন করছে। আমার কাছে বাংলাদেশ মানেই বাঁহাতি স্পিন।'

অবশ্য পিটারসেনের বাংলাদেশের বাঁহাতি স্পিনকে ভয় পাওয়ার যথেষ্ঠ কারণ রয়েছে। কেননা টেস্ট ও ওয়ানডেতে তিনি বাংলাদেশের বিপক্ষে মোট ১০ বার আউট হয়েছেন। প্রতিবারই তাকে সাজঘরের পথ দেখিয়েছেন কোনো না কোনো বাঁহাতি স্পিনার। ওয়ানডেতে বাংলাদেশের বিপক্ষে ৭ ম্যাচে ৭৪ ও টেস্টে ৪ ম্যাচের ৭ ইনিংসে ৩৪২ রান করতে পেরেছেন পিটারসেন। আউট হয়েছেন মোট ১০ বার। সাকিব আল হাসান ৫, আব্দুর রাজ্জাক ৪ ও প্রয়াত মানজারুল ইসলাম রানার বোলিংয়ে একবার আউট হয়েছেন পিটারসেন।

  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

সকল ফিচার

রঙ বেরঙ
উনিশ বিশ
জেজেডি ফ্রেন্ডস ফোরাম
নন্দিনী
আইন ও বিচার
ক্যাম্পাস
হাট্টি মা টিম টিম
তারার মেলা
সাহিত্য
সুস্বাস্থ্য
কৃষি ও সম্ভাবনা
বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি

Copyright JaiJaiDin ©2020

Design and developed by Orangebd

close

উপরে