প্রিমিয়ার লিগ নিয়ে বাফুফের তামাশা !

প্রিমিয়ার লিগ নিয়ে বাফুফের তামাশা !

বাংলাদেশ প্রিমিয়ার লিগ (বিপিএল) নিয়ে রীতিমতো ছেলেখেলায় মেতেছে বাংলাদেশ ফুটবল ফেডারেশনের (বাফুফে) প্রফেশনাল ফুটবল লিগ কমিটি। এবার ম্যাচ শুরুর মাত্র এক ঘণ্টা আগে খেলা স্থগিত করেছে তারা। বৃহস্পতিবার রাতে বাফুফের দেওয়া সূচি অনুযায়ী শুক্রবার বিকাল ৪টা থেকে দুই ভেনু্যতে দুটি ম্যাচ হওয়ার কথা ছিল। কিন্তু ২৪ ঘণ্টার মধ্যেই সেই সিদ্ধান্ত পরিবর্তন করে ফেলেছে তারা। শেষ মুহূর্তে খেলা স্থগিতের ঘোষণা দিয়েছে বাফুফে।

লকডাউনের মধ্যে এভাবে লিগ স্থগিত করার তৃতীয় ঘটনা এটি। আগের দুই ঘটনাকে ছাপিয়ে গেছে গতকালেরটি। ১ জুলাই কঠোর লকডাউনের মধ্যে প্রথম দিন খেলা চালিয়ে গভীর রাতে খেলা স্থগিত করেছিল। ঈদের পর ২৪ জুলাই বাফুফে খেলা চালাতে চেয়েছিল লকডাউনের মধ্যেই। ২৩ জুলাই রাতে আবার স্থগিত করে। আগের দুইবারের ভুল থেকেও শিক্ষা নেয়নি বাফুফে। এবারও আনুষ্ঠানিক অনুমতি না পাওয়ায় খেলা আয়োজন করতে পারছে না তারা। ক্লাবগুলোকে নিয়ে বাফুফে যেন ছেলেখেলায় মেতে উঠেছে।

১৯তম রাউন্ড পর্যন্ত মোটামুটি ভালোভাবেই লিগ পরিচালনা করেছে প্রফেশনাল ফুটবল লিগ কমিটি। যদিও মাঝে একবার লকডাউনে খেলা চালাতে গিয়ে সরকারের অনুমতি না পাওয়ায় খারাপ আবহাওয়ার দোহাই দিয়ে বন্ধ করা হয়েছিল লিগ। তবে ২০তম রাউন্ড মাঠে গড়াতে গিয়েই বিপাকে পড়েছে বাফুফে। কারণ লকডাউনের মেয়াদ বৃদ্ধি। বাফুফে চাইছিল লকডাউনেও খেলা পরিচালনা করতে। কিন্তু এই পরিস্থিতিতে খেলা মাঠে রাখার অনুমতি মিলেনি। সেটা হতেই পারে। কিন্তু একের পর এক তারিখ দিয়ে খেলা পেছানোতেই বিরক্ত হয়েছে ক্লাবগুলো। নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক একটি ক্লাবের কর্মকর্তা বলেন, 'আমাদের অবস্থা এখন হয়েছে ছেড়েদে মা কেদে বাঁচি। কোনোমতে লিগটা শেষ করতে পারলেই স্বস্তি পাই। কিন্তু এভাবে বারবার খেলা পিছিয়ে দেওয়ায় আমরা হতাশ-বিরক্ত। বাফুফের এসব ছেলেখেলা নিয়ে আর কোনো মন্তব্য করতে চাইছি না।'

তবে এ কথাও সত্য যে, বাফুফেও বেশ বিপাকে লিগ নিয়ে। একে তো সংস্কারের জন্য আগস্টের মধ্যে এনএসসিকে ছেড়ে দিতে হবে বঙ্গবন্ধু স্টেডিয়াম। তার মধ্যে কিছু দিন পরপর লকডাউনে থমকে যাচ্ছে লিগ। কিছু দিন আগেই বাফুফের সাধারণ সম্পাদক আবু নাইম সোহাগ বলেছিলেন, 'আমরা চাই না লিগটা বন্ধ হয়ে যাক। যে করেই হোক লিগটা শেষ করতে চাই। কারণ গত মৌসুমের মতো লিগ বাতিল হয়ে গেলে একদিকে ক্লাবগুলো যেমন ক্ষতির মুখে পড়বে তেমনই খেলোয়াড়রাও আর্থিকভাবে ক্ষতিগ্রস্ত হবেন।' তার এ কথাতেই স্পষ্ট বাফুফে ক্লাব ও খেলোয়াড়দের দিক বিবেচনা করে যে করেই হোক লিগ শেষ করতে চাইছে। আর সে কারণেই বঙ্গবন্ধু স্টেডিয়ামের পাশাপাশি কমলাপুর টার্ফেও খেলা রেখেছিল তারা। কিন্তু টার্ফে খেলা দিয়েও আরেক ঝামেলায় পড়তে হয়েছে বাফুফেকে। কারণ বেশ কয়েকটি ক্লাবেরই আপত্তি টার্ফে খেলতে। তাই তারা বিকল্প ভেনু্য হিসেবে আর্মি স্টেডিয়ামকেও হাতে রেখেছিল। যদিও বৃহস্পতিবার দেওয়া সূচিতে বিকাল ৪টায় কমলাপুরেই উত্তর বারিধারা ক্লাব ও চট্টগ্রাম আবাহনীর মধ্যে খেলা নির্ধারিত ছিল। অন্য ম্যাচটি ছিল বঙ্গবন্ধু স্টেডিয়ামে ব্রাদার্স ইউনিয়ন ও রহমতগঞ্জ স্পোর্টিং ক্লাবের মধ্যে। কিন্তু ম্যাচ শুরুর মাত্র এক ঘণ্টা আগে সংবাদ বিজ্ঞপ্তি দিয়ে বাফুফে জানিয়েছে খেলা শুরু করা সম্ভব নয়। লিগ কবে শুরু হবে সেটা এবার বলেনি বাফুফে। 'বাংলাদেশ প্রিমিয়ার লিগের ২য় পর্বের অবশিষ্ট খেলাসমূহ সাময়িকভাবে স্থগিত করা হয়েছে। উলেস্নখ্য, সামগ্রিক পরিস্থিতি পর্যালোচনা করে লিগের অবশিষ্ট খেলাসমূহ আয়োজনের বিষয়ে যথাশিগগিরই সবাইকে অবহিত করা হবে'- বিজ্ঞপ্তির মাধ্যমে এটুকুই জানিয়েছে বাফুফে।

  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

আরও খবর

সকল ফিচার

রঙ বেরঙ
উনিশ বিশ
জেজেডি ফ্রেন্ডস ফোরাম
নন্দিনী
আইন ও বিচার
ক্যাম্পাস
হাট্টি মা টিম টিম
তারার মেলা
সাহিত্য
সুস্বাস্থ্য
কৃষি ও সম্ভাবনা
বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি

Copyright JaiJaiDin ©2021

Design and developed by Orangebd


উপরে