• মঙ্গলবার, ২৬ জানুয়ারি ২০২১, ১২ মাঘ ১৪২৭

নৌকার পক্ষে নির্বাচন না করলে ঘর থেকে বেরুতে বারণ!

নৌকার পক্ষে নির্বাচন না করলে ঘর থেকে বেরুতে বারণ!

পাবনার বেড়া উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান পদের উপনির্বাচনে উপজেলা আওয়ামী লীগের মহিলা বিষয়ক সম্পাদিকা আনোয়ারা আহমেদকে ‘নৌকার পক্ষে নির্বাচন না করলে ঘর থেকে বেরুতে বারণ করেছেন আওয়ামী লীগের নৌকা প্রতীকের দলীয় প্রার্থী রেজাউল হক বাবু ও তার অনুসারীরা। ঘটনাটি ঘটে বৃহস্পতিবার বেলা সাড়ে ১১ টায় আমিনপুর থানার নয়াবাড়িয়া গ্রামে।

আমিনপুর থানায় লিখিত অভিযোগকারী বেড়া উপজেলা আওয়ামী লীগের মহিলা বিষয়ক সম্পাদিকা ও স্থানীয় কমিউনিটি পুলিশিং কমিটির নারী নেত্রী আনোয়ারা আহমেদ। তিনি ওই এলাকার সুলতান আহমেদ দুদুর স্ত্রী। সংশ্লিষ্ট থানা অজ্ঞাত কারণে জিডি না নেয়ায় অবশেষে জেলা পুলিশের উর্ধ্বতন কর্মকর্তার হস্তক্ষেপে বিষয়টি উভয়পক্ষের মধ্যে আপোষ হয়েছে বলে দাবি করেছেন আমিনপুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মঈনুদ্দিন।

লিখিত অভিযোগে আনোয়ারা আহমেদ দাবি করেন, ঘটনার দিন বেলা সাড়ে ১১ টার দিকে তিনি নিজ বাড়িতেই অবস্থান করছিলেন। এ সময় বেড়া উপজেলা পরিষদের আওয়ামীলীগের দলীয় চেয়ারম্যান প্রার্থী (জাতসাখিনী ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান) রেজাউল হক বাবু, হরিদেবপুর গ্রামের শাহআলম ও নয়াবাড়িয়া গ্রামের সাইফুর ইসলাম হিরোনের গুন্ডা বাহিনী তারেক, রসুল, রনি, আনাম, নিহার ও ইমরানসহ বেশ কিছু লোকজন আমার বাড়িতে চড়াও হয়ে নির্বাচনকে কেন্দ্র করে অকথ্য ভাষায় গালিগলাজসহ নানা ধরণের হুমকি ধামকি প্রদর্শণ করে। যাবার সময়ে তারা আমাকে নৌকার পক্ষে নির্বাচন না করলে ঘর থেকে বের হতে বারং করে যান। তাদের প্রস্তাবে রাজি না হলে স্বপরিবারে প্রাণনাশের হুমকিও দিয়েছে তারা।

অভিযুক্ত আনোয়ারা আহমেদ বলেন, ঘটনাটি ঘটার পরপরই আমি আমিনপুর থানা বরাবর জীবনের নিরাপত্তা চেয়ে জিডি দিলেও থানা পুলিশ আমার জিডি গ্রহণ করেননি। উল্টো থানার মধ্যেই ওসির উপস্থিতিতে চেয়ারম্যান প্রার্থী বাবুসহ তার লোকজন অকথ্য ভাষায় গালিগালাজ করেছে। জেলা পুলিশের উর্ধ্বতন কর্মকর্তারা বিষয়টি জ্ঞাত হওয়ায় তড়িঘড়ি করে দ্বিতীয় দফায় থানার ওসি আমার জিডি না নিয়ে উল্টো হুমকিদাতাদের সাথে আমাকে জোড়পূবর্ক আপোষ করিয়েছে। তিনি বলেন, আমি ও আমার পরিবার সঙ্কার মধ্যে রয়েছে। দ্রুততম সময়ে আমার জিডি নথিভূক্ত করতে সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের সহযোগিতা কামনা করছি।

অভিযোগের বিষয়ে নৌকা প্রতীকের চেয়ারম্যান প্রার্থী রেজাউল হক বাবুর সাথে মুঠোফোনে একাধিক বার যোগাযোগের চেষ্টা করা হলেও তিনি ফোন রিসিভ করেননি। সংশ্লিষ্ট বিষয়ে আমিনপুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মঈনুদ্দিন বলেন, চেয়ারম্যান প্রার্থীর সাথে অভিযোগকারীর কথাকাটাকাটি ও সামান্য ভুল বোঝাবুঝি হয়েছিল। উভয়পক্ষ বিষয়টি বসে আপোষ মিমাংসা করে নেয়ায় বিষয়টি নিয়ে থানায় কোন জিডি নথিভূক্ত করা হয়নি।

যাযাদি/এসএইচ

  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

আরও খবর

Copyright JaiJaiDin ©2021

Design and developed by Orangebd


উপরে