বাঁশখালীতে কোরআন হাফেজাকে সংঘবদ্ধ গণধর্ষণ, আটক ৩

বাঁশখালীতে কোরআন হাফেজাকে সংঘবদ্ধ গণধর্ষণ, আটক ৩

চট্টগ্রামের বাঁশখালীতে কোরআনে হাফেজাকে সংঘবদ্ধ ধর্ষণের অভিযোগে তিনজনকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ এই ঘটনায় ভুক্তভোগী হাফেজার মা জনের নাম উল্লেখ করে মামলা দায়ের করলে সোমবার (১৬ মে) উপজেলার বৈলছড়ি এলাকা থেকে জনকে গ্রেপ্তার করা হয়

গ্রেপ্তারকৃতরা হলেন, বৈলছড়ি ইউনিয়নের ৩নং ওয়ার্ডের রফিক আহমেদের ছেলে মো. মোক্তার (৪০), একই এলাকার আব্দুল কুদ্দুস ফকিরের ছেলে মো. সরওয়ার (৩৫) নং ওয়ার্ডের ফরিদ আহমদের ছেলে নুরুল আলম (৩৫)

পুলিশ ভুক্তভোগীর পরিবার সুত্রে জানা যায়, ভুক্তভোগী ওই কোরআনে হাফেজা নারী শুক্রবার (১৩ মে) সকাল সাড়ে ১১টার দিকে মাহফিলের ওয়াজ শুনতে বাঁশখালী কালীপুরের পূর্ব পালেকগ্রাম এলাকায় ওয়াজ শুনে বাড়ি ফেরার জন্য পূর্ব পরিচিত শহিদুল ইসলামের ব্যাটারিচালিত অটোরিকশায় ওঠেন কিন্তু শহিদুল ভুক্তভোগী নারীকে সহজে বাড়ি যাওয়া যাবে বলে ভিতরের রাস্তা দিয়ে কালিপুর বৈলছড়ীর সিমান্ত এলাকা বরকাটার গভীর জঙ্গলে নিয়ে যায় এরপর সেখানে আগে থেকে উৎপেতে থাকা মোক্তার, সরওয়ার, নুরুল আলমসহ কয়েকজন তাকে দিন থেকে রাত পর্যন্ত পালাক্রমে ধর্ষণ করে এরপর পালিয়ে যায় তারা

এরপর ভুক্তভোগী ওই নারী ঘটনাস্থলে জ্ঞান হারায় পরদিন সকালে জ্ঞান ফিরে এলে একই এলাকার পাতারইর্গ্যা খোলা এলাকায় আবারও সংঘবদ্ধ ধর্ষণ করা হয় ভুক্তভোগী পরে স্থানীয়রা ভুক্তভোগী নারীকে চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ (চমেক) হাসপাতালে ভর্তি করা হয় এরপর সোমবার বাঁশখালী থানা পুলিশের কাছে সংঘবদ্ধ ধর্ষণের অভিযোগ করেন ওই ভুক্তভোগী নারীর পরিবার পরে অভিযান চালিয়ে তিনজনকে গ্রেপ্তার করে পুলিশ

বাঁশখালী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. কামাল উদ্দিন বলেন, শুক্রবার ১৩ মে এক নারীকে বৈলছড়ী এলাকার বরকাটা পাহাড়ি এলাকায় নিয়ে গণধর্ষণের ঘটনা ঘটে এই ঘটনায় জড়িত থাকার অভিযোগে তিনজনকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে এই ঘটনায় ভুক্তভোগীর মা জনের নাম উল্লেখ করে সোমবার রাতে একটি মামলা দায়ের করেন শুক্রবার ঘটনা ঘটলেও ভুক্তভোগী নারী সোমবার পুলিশের কাছে অভিযোগ করেছেন অভিযোগ পাওয়ার সঙ্গে সঙ্গেই অভিযান চালিয়ে তিনজনকে গ্রেপ্তার করেছি এই ঘটনায় জড়িত বাকি আসামিদের গ্রেপ্তারে পুলিশের অভিযান চলছে

যাযাদি/এসএইচ

  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

আরও খবর

Copyright JaiJaiDin ©2022

Design and developed by Orangebd


উপরে