শনিবার, ০২ মার্চ ২০২৪, ১৭ ফাল্গুন ১৪৩০
walton

চৌগাছা অফিসকে ঘুষ ও দুর্নীতিমুক্ত করতে এসিল্যান্ডের প্রশংসনীয় উদ্যোগ

চৌগাছা (যশোর) প্রতিনিধি
  ০৮ ডিসেম্বর ২০২৩, ১৫:৫০

যশোরের চৌগাছায় ভূমি অফিসকে ঘুষ ও দুর্নীতিমুক্ত রাখতে প্রশংসনীয় উদ্যোগ গ্রহণ করেছেন এসিল্যান্ড। উপজেলা ভূমি অফিসকে ঘুষ ও দুর্নীতিমুক্ত রাখতে উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) গুঞ্জন বিশ্বাস নানা উদ্যোগ গ্রহণ করেছেন। তিনি অফিসের বিভিন্ন স্থানে লিখে রেখেছেন এ ভূমি অফিসে কোন কাজে ঘুষ লাগে না। জমির নামজারির ক্ষেত্রে দালাল না ধরতে এবং সরকারি ফির অতিরিক্ত কোনো অর্থ কাউকে না দিতে পরামর্শ দিয়েছেন। ইতিমধ্যে তিনি ভূমি অফিসের কর্মকর্তাদের সরকারি ফি ছাড়া অতিরিক্ত কোনো টাকা না নিতে নির্দেশও দিয়েছেন।

জানা যায়, জমির নামজারীর ক্ষেত্রে সরকার নির্ধারিত কোর্ট ফি ২০ টাকা, নোটিশ জারি ফি ৫০ টাকা, রেকর্ড সংশোধন ফি ১০০০ টাকা এবং মিউটেশন খতিয়ান ফি ১০০ টাকা সর্বমোট ১১৭০ টাকা। ভূমি অফিসের কেউ অযথা হয়রানি করলে বা অতিরিক্ত অর্থ দাবি করলে সরাসরি তাকে ০১৩১৮২৫২৯৩৬ নাম্বারে ফোন করতে অনুরোধ করেছেন তিনি।

ভূমি সেবা নিতে আসা উপজেলার পাতিবিলা ইউনিয়নের নিয়ামতপুর গ্রামের মিজানুর রহমান বলেন, চৌগাছা ভূমি অফিসে অতিরিক্ত কোনো টাকা পয়সা দেওয়া লাগে না। সরকারি খরচ যা তাই দিতে হচ্ছে। ভূমি অফিসের এসিল্যান্ড গুঞ্জন বিশ্বাস ভালো মনের মানুষ। হয়রানি ছাড়াই আমার সব কাজ করে দিয়েছেন।

ভূমি অফিসের সার্ভেয়ার কর্মকর্তা জহিরুল ইসলাম বলেন, আমাদের কাছে মানুষ এসে এখন কোন হয়রানি হয় না। আমরা সাধ্যমত চেষ্টা করি মানুষকে সেবা দেওয়ার জন্য। উপজেলার চত্বর ও সকল ইউনিয়ন ভূমি অফিসের সামনেসহ বিভিন্ন গুরুত্বপুর্ণ স্থানে ভূমি সেবাই কোন খাতে কত খরচ (সরকারি) উল্লেখ করে ও মোবাইল নম্বরসহ বিলবোর্ড দেওয়া হয়েছে। যেন সাধারণ মানুষ তার অভিযোগ মোবাইলে সরাসরি এসিল্যান্ডকে জানাতে পারেন। ফলে ইউনিয়ন ভূমি অফিসে সেবার মান বেড়ে গেছে।

উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) গুঞ্জন বিশ্বাস বলেন, ঘুষ প্রদানকারী এবং ঘুষ গ্রহণকারী দুজনই সমান অপরাধী। সাধারণ মানুষ যেন হয়রানি না হয় বরং সঠিক সেবা পায় তার ব্যবস্থা করেছি। ব্যাক্তিগত ভিজিটিং কার্ড সেবা নিতে আসা জনসাধারনের হাতে হাতে পৌঁছিয়ে দেওয়া হয়। যাতে তার যেকোন সমস্যা ও পরামর্শ নিতে যোগাযোগ করতে পারেন। এখন আর কেউ ভোগান্তির শিকার হয় না। সর্বপুরি উপজেলা ভূমি অফিসকে ঘুষ ও দুর্নীতিমুক্ত রাখতে সকলের সহযোগিতা কামনা করেন তিনি।

উল্লেখ্য, এর আগে গুঞ্জন বিশ্বাস যখন জয়পুর হাট ডিসি অফিসে ভূমি অধিগ্রহণ কর্মকর্তা হিসাবে কর্মরত ছিলেন। সেখানেও তিনি ঘুষ ও দুর্নীতিমুক্ত থেকে সুনাম ও নিষ্ঠার সাথে কাজ করেন।

যাযাদি/ এসএম

  • সর্বশেষ
  • জনপ্রিয়

উপরে