logo
শনিবার, ০৮ আগস্ট ২০২০, ২৪ শ্রাবণ ১৪২৬

  যাযাদি রিপোর্ট   ০৮ জুলাই ২০২০, ০০:০০  

দল নিবন্ধন আইনে মতামত দেওয়ার সময় বাড়ছে

দল নিবন্ধন আইনে মতামত দেওয়ার সময় বাড়ছে
রাজনৈতিক দল নিবন্ধন আইন-২০২০ এর খসড়ার ওপর মতামত দেওয়ার সময় বাড়াচ্ছে নির্বাচন কমিশন (ইসি)। গত ১৬ জুন রাজনৈতিক দল ও নাগরিক সমাজের কাছে আইনটির খসড়ার ওপর মতামত আহ্বান করে সংস্থাটি।

নির্বাচন ভবনে মঙ্গলবার দুপুরে নিজ দপ্তরে ইসি সচিব মো. আলমগীর সাংবাদিকদের বিষয়টি জানান।

তিনি বলেন, দল নিবন্ধন আইনের জন্য বিএনপি, আওয়ামী লীগসহ বেশকিছু দল মতামত দেয়নি। এছাড়া বাংলাদেশ আওয়ামী মতামত দেওয়ার জন্য সময় বাড়ানোর আবেদন জানিয়েছে। তাই সবকিছু বিবেচনা করে আরও কিছু দিন সময় বাড়ানোর সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে।

করোনাকালে নতুন নিবন্ধন আইন না করে পরবর্তীতে করতে বিএনপির দাবির প্রসঙ্গে মো. আলমগীর বলেন, এ নিয়ে কমিশনের সঙ্গে আলোচনা করব। কমিশন এ বিষয়ে সিদ্ধান্ত নেবেন, কী করবেন।

তিনি বলেন, রাজনৈতিক দল নিবন্ধন নিয়ে আলাদা কোনো আইন নেই। তাই এ উদ্যোগটি নেওয়া হয়েছে। অনেকের মতামতই আমরা পেয়েছি। আবার অনেকের মতামত পায়নি।

২০০৮ সালের নবম সংসদ নির্বাচনের আগে এটিএম শামসুল হুদার নেতৃত্বাধীন তৎকালীন কমিশন দল নিবন্ধনের জন্য বিধানযুক্ত (ভিআইএ অধ্যায়) করেন গণপ্রতিনিধিত্ব আদেশে (আরপিও)। এতে নিবন্ধন পেতে তিনটি প্রধান শর্তজুড়ে দিয়ে যেকোনো একটি পূরণ করতে বলা হয়। বর্তমান কেএম নূরুল হুদার কমিশন সেই তিনটি শর্তের মধ্যে অন্তত দুটি পূরণ করার জন্য বিধান রেখে নতুন আইন প্রণয়নে হাত দিয়েছে। আর আরপিও থেকে তুলে ১

দেওয়া হচ্ছে ভিআইএ অধ্যায়টি।

এছাড়া ২০২০ সালের মধ্যে বাধ্যতামূলকভাবে সব পর্যায়ের কমিটিতে ৩৩ শতাংশ নারীপদ পূরণের যে বিধান ছিল, তা তুলে দিয়ে নারীপদ পূরণের বিষয়টি দলের মর্জির ওপর ছেড়ে দিচ্ছে। এক্ষেত্রে বলা হচ্ছে- দল তার গঠনতন্ত্রে উলেস্নখ করবে, কতদিনের মধ্যে সব পর্যায়ের কমিটিতে ৩৩ শতাংশ নারীপদ পূরণ করবে এবং প্রতিবছর সেই সিদ্ধান্তের অগ্রগতি সম্পর্কে ইসিকে অবহিত করবে।

এছাড়া পরপর দুইবার কোনো দল সংসদ নির্বাচনে অংশ না নিলে সেই দলের নিবন্ধন বাতিলের বিধানও প্রস্তাব করা হয়েছে খসড়া আইনে।

এই বিধানগুলো ছাড়াও দল নিবন্ধনের জন্য একগুচ্ছ শর্ত রাখা হচ্ছে প্রস্তাবিত নতুন আইনে। নির্বাচন কমিশন আইনের খসড়াটি নিবন্ধিত দলগুলোর কাছে মতামত দেওয়ার জন্য পাঠায় গত ১৬ জুন। এছাড়া আগামী ৭ জুলাইয়ের মধ্যে নাগরিক সমাজকে মতামত দেওয়ার জন্য আহ্বান জানায়।

বর্তমানে নির্বাচন কমিশনে ৪১টি নিবন্ধিত রাজনৈতিক দল রয়েছে। নির্বাচনে অংশ নিতে চাইলে অবশ্যই ইসিতে দল হিসেবে নিবন্ধন নিতে হয়। এজন্য প্রতি সংসদ নির্বাচনের আগে নিবন্ধন নেওয়ার জন্য আবেদনের আহ্বান জানিয়ে গণবিজ্ঞপ্তি জারি করে কমিশন।

সময় চেয়েছে আ'লীগ

এদিকে, রাজনৈতিক দলসমূহের নিবন্ধন আইনের ওপর মতামত দিতে এক মাসের সময় চেয়ে নির্বাচন কমিশনে (ইসি) আবেদন করেছে ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগ।

আওয়ামী লীগের দপ্তর সম্পাদক ব্যারিস্টার বিপস্নব বড়ুয়া বলেন, যেহেতু রাজনৈতিক দলসমূহের নিবন্ধন আইনের ওপর মতামতের বিষয়টি অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ। এজন্য দলের অভ্যন্তরে বিভিন্ন পর্যায়ে আলাপ-আলোচনার প্রয়োজন রয়েছে। বর্তমানের প্যানডেমিক পরিস্থিতি ভালো হলে দলের পক্ষ থেকে প্রতিনিধি দল গিয়ে এ বিষয়ে মতামত দেবেন। এজন্য এক মাস সময় বৃদ্ধির আবেদন করা হয়েছে।

তিনি বলেন, আওয়ামী লীগ সভাপতি ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার পরামর্শে দলের বিজ্ঞ নেতারা আলাপ-আলোচনার ভিত্তিতে যথাযোগ্য প্রতিনিধিদলের মাধ্যমে মতামত দেওয়া হবে।

মঙ্গলবার ইসি আবেদন প্রাপ্তির কপি পাঠিয়েছে বলে নিশ্চিত করেছেন আওয়ামী লীগের উপদপ্তর সম্পাদক সায়েম খান।

তিনি জানান, আওয়ামী লীগের পক্ষ থেকে দপ্তর সম্পাদক ব্যারিস্টার বিপস্নব বড়ুয়া স্বাক্ষরিত একটা চিঠিতে সোমবার সময় বৃদ্ধির আবেদন করা হয়।
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

সকল ফিচার

রঙ বেরঙ
উনিশ বিশ
জেজেডি ফ্রেন্ডস ফোরাম
নন্দিনী
আইন ও বিচার
ক্যাম্পাস
হাট্টি মা টিম টিম
তারার মেলা
সাহিত্য
সুস্বাস্থ্য
কৃষি ও সম্ভাবনা
বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি
close

উপরে