logo
রোববার ২১ জুলাই, ২০১৯, ৬ শ্রাবণ ১৪২৬

  যাযাদি রিপোর্ট   ১৮ জুন ২০১৯, ০০:০০  

যৌথসভায় ওবায়দুল কাদের

আদালত খালেদাকে জামিন দিলে সরকারের হস্তক্ষেপ থাকবে না

আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের বলেন, 'নির্বাচিত সংসদকে যারা অবৈধ বলে, আদালতের রায় অনুসারে দেখা যায় তাদের জন্মই অবৈধ।'

আদালত খালেদাকে জামিন দিলে সরকারের হস্তক্ষেপ থাকবে না
সোমবার আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে আয়োজিত যৌথসভায় বক্তৃতা করেন দলের সাধারণ সম্পাদক এবং সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের। পাশে ডিএসসিসি মেয়র সাঈদ খোকনসহ দলের অন্য নেতারা -যাযাদি

বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়াকে আদালত জামিন দিলে সেক্ষেত্রে সরকার কোনো হস্তক্ষেপ করবে না বলে জানিয়েছেন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এবং সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের। সোমবার আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে ক্ষমতাসীন দলটির ৭০তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উপলক্ষে আয়োজিত যৌথসভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এ কথা বলেন। ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশন (ডিএসসিসি) ও ঢাকা মহানগর দক্ষিণ আওয়ামী লীগের সমন্বয়ে সভাটি অনুষ্ঠিত হয়েছে। আগামী সপ্তাহে আদালত খালেদা জিয়ার জামিন দেবে, বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য ব্যারিস্টার মওদুদ আহমদের এ সংক্রান্ত বক্তব্যের বিষয় উলেস্নখ করে ওবায়দুল কাদের বলেন, তিনি একজন বিজ্ঞ আইনজীবী, তিনি হয়তো ধারণা করেই বলেছেন। এক্ষেত্রে বিচার সম্পূর্ণটাই আদালত করেছেন। তাকে (খালেদা জিয়া) শাস্তি দিয়েছেন আদালত। জামিন দেয়ার দায়িত্বও আদালতের। তারা সবসময় আদালতকে সম্মান প্রদর্শন করেন। তাই আদালতের রায় সর্বশেষ বিচার হিসেবে গণ্য হবে। তিনি বলেন, নির্বাচিত সংসদকে যারা অবৈধ বলে, আদালতের রায় অনুসারে দেখা যায় তাদের 'জন্মই অবৈধ'। আসন্ন আওয়ামী লীগের ৭০তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী সম্পর্কে তিনি বলেন, 'আমাদের সব প্রস্তুতি সম্পন্ন হয়েছে, কর্মসূচিও দিয়েছি। সবাইকে কাজ ভাগ করে দেয়া হয়েছে। সে অনুসারে সবাই দায়িত্ব পালন করবেন। জনগণের সঙ্গে ভালো ব্যবহার করবেন। এর প্রতিদান মরণেও পাবেন। কাজ ও সততা দিয়ে জনপ্রিয়তা অর্জন করতে হবে। সততার চেয়ে বড় শক্তি আর নেই।' আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক বলেন, 'অসুস্থতার সময় আমি বুঝতে পেরেছি মানুষ আমাকে কতটা ভালোবাসে। আমি অনেকটা না-ফরার দেশে চলে যাচ্ছিলাম। সেখানে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা নিজের সন্তানের জন্য যা যা করতেন আমার জন্য তাই করেছেন। আর মানুষ যে আমাকে এতটা ভালোবেসেছে এটাই আসলে একজন রাজনীতিকের কাছে সবচেয়ে বড় পাওয়া।' আওয়ামী লীগে নতুন সদস্যদের যোগদান করানোর নির্দেশ দিয়ে ওবায়দুল কাদের বলেন, 'আওয়ামী লীগের আত্মা এই শহর এলাকার সুরম্য দালানে নয়। আওয়ামী লীগের আত্মা রয়েছে দেশের প্রান্তিক পর্যায়ের মানুষদের কাছে। এটা উপলব্ধি করতে পারলে আওয়ামী লীগকে ধারণ করা যাবে। এই ঢাকা নগরীর দক্ষিণ থেকে অনেক সাহসী, ত্যাগী ও দুঃসময়ের নেতা হারিয়ে গেছেন। কিন্তু আমরা কি তাদের প্রতিস্থাপন করতে পেরেছি? হারিয়ে যাওয়া সেসব নেতার শূন্যস্থান পূরণ করে নতুন নেতাদের এখনো বসাতে পারিনি। তাই দ্রম্নত দলে নতুন সদস্য নেয়ার প্রক্রিয়া আবার শুরু করতে হবে। নেত্রী বারবার তাগিদ দেয়ার পরও আমরা কাজটি করিনি। আমি অসুস্থ না হলে আরো অনেক আগে থেকেই শুরু করতে পারতাম। এই কাজ দ্রম্নত শুরু হবে।' ঢাকা মহানগর দক্ষিণ আওয়ামী লীগের সভাপতি আবুল হাসনাতের সভাপতিত্বে সভায় আরো উপস্থিত ছিলেন ঢাকা মহানগর দক্ষিণ আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক মো. শাহে আলম মুরাদ, ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশনের মেয়র সাঈদ খোকনসহ কেন্দ্রীয় আওয়ামী লীগের নেতারা।

  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
close

উপরে