logo
মঙ্গলবার, ৩১ মার্চ ২০২০, ১৭ চৈত্র ১৪২৬

  ক্রীড়া প্রতিবেদক   ২৯ জানুয়ারি ২০২০, ০০:০০  

লিগ দেখে দল গঠন করবেন জেমি

লিগ দেখে দল গঠন করবেন জেমি
ভিসা সংক্রান্ত কাজে ১০ দিনের ছুটিতে যাচ্ছেন জেমি ডে। ফিরে এসে প্রিমিয়ার লিগের ম্যাচ দেখে দল গঠন করবেন তিনি। জাতীয় দলের ক্যাম্প শুরু হবে মার্চের মাঝামাঝিতে। আফগানিস্তান ম্যাচের পরদিনই কন্ডিশনের সঙ্গে মানিয়ে নিতে আমরা কাতারে দল পাঠাবো -আবু নাইম সোহাগ সাধারণ সম্পাদক, বাফুফে
বঙ্গবন্ধু গোল্ডকাপ ফুটবল টুর্নামেন্টে এবারও হতাশাজনক পারফরম্যান্স করেছে বাংলাদেশ জাতীয় ফুটবল দল। গত আসরের মতোই এবারও সেমিফাইনাল থেকেই বিদায় নিয়েছেন জামাল ভুইয়ারা। জাতীয় দলের পরবর্তী মিশন মার্চে বিশ্বকাপ ফুটবলের বাছাই পর্ব। তার আগে প্রিমিয়ার লিগের পারফরম্যান্স দেখে খেলোয়াড় বাছাই করবেন বাংলাদেশ দলের কোচ জেমি ডে।

বিশ্বকাপ ও এশিয়ান কাপের যৌথ বাছাইপর্বে জামাল ভুঁইয়াদের সেরা পারফরম্যান্স নতুন স্বপ্ন দেখাতে শুরু করেছিল দেশের ফুটবলে। কিন্তু এসএ গেমসে বাংলাদেশ অনূর্ধ্ব ২৩ দলটি ছিল প্রায় জাতীয় দল। তারপরও আশানুরূপ ফল আসেনি। ব্রোঞ্জ জিতে হতাশা নিয়ে দেশে ফেরার পর আন্তর্জাতিক ফুটবল টুর্নামেন্ট বঙ্গবন্ধু গোল্ডকাপেও জ্বলে উঠতে পারেনি জেমি'ডের শিষ্যরা। সেমিফাইনালেই স্বপ্ন ভঙ্গ।

জাতীয় দলের পরবর্তী মিশন বিশ্বকাপ বাছাইয়ের ম্যাচ। যেখানে এবার বাংলাদেশ খেলছে 'ই' গ্রম্নপে। এই গ্রম্নপে আছে মোট ৫ দল। এরা হলো স্বাগতিক কাতার, ওমান, আফগানিস্তান, ভারত ও বাংলাদেশ। একমাত্র বাংলাদেশ ছাড়া গ্রম্নপের প্রতিটি দলই খেলেছে ৫টি করে ম্যাচ। এর মধ্যে ৪ জয় আর এক ড্র'তে মোট ১৩ পয়েন্ট নিয়ে শীর্ষে অবস্থান করছে কাতার। ৪ জয় আর এক হারে ১২ পয়েন্ট নিয়ে দ্বিতীয় অবস্থানে ওমান। আফগানিস্তানের ৪ পয়েন্ট তারা আছে তৃতীয় স্থানে। একটি জয় আর একটি ড্র করেছে তারা। বাকি তিন ম্যাচে হেরেছে। ৩ পয়েন্ট নিয়ে চতুর্থ স্থানে থাকা ভারতের তিনটি ড্র আর দুটি হার। মাত্র ১টি পয়েন্ট নিয়ে তলানিতে আছে বাংলাদেশ। নিজেদের প্রথম ম্যাচটি লাল-সবুজরা খেলেছে আফগানিস্তানের বিপক্ষে। গত বছর ১০ সেপ্টেম্বর নিরপেক্ষ ভেনু্য তাজিকিস্তানের দোশানবের রিপাবলিক সেন্ট্রাল স্টেডিয়ামে অনুষ্ঠিত ঐ এ্যাওয়ে ম্যাচটিতে ১-০ গোলে হেরে যায় জামাল ভুঁইয়ার দল। একই বছর পরবর্তী ম্যাচটি হয়েছে ১০ অক্টোবর বাংলাদেশের বঙ্গবন্ধু জাতীয় স্টেডিয়ামে। কাতারের বিপক্ষে দারুণ প্রতিরোধ গড়ে তোলেও শেষ পর্যন্ত ২-০ গোলের ব্যবধানে হারে বাংলাদেশ। ১৫ অক্টোবর কলকাতার সল্ট লেক স্টেডিয়ামে ভারতের বিপক্ষে প্রায় জেতা ম্যাচটিই শেষ পর্যন্ত ১-১ গোলে ড্র করে জেমিডের শিষ্যরা। এবারের বাছাইপর্বে এখন পর্যন্ত এটাই বাংলাদেশের বড় সাফল্য। ১৪ নভেম্বর মাসকটের সুলতান কাবুস স্টেডিয়ামে ওমানের বিপক্ষে ৪-১ গোলে হেরে যায় বাংলাদেশ। এটিই ছিল ২০১৯ সালে বিশ্বকাপ বাছাইয়ে বাংলাদেশের সর্বশেষ ম্যাচ। নতুন বছরে জামাল ভুঁইয়াদের বাছাই পর্বের মিশনটা শুরু হবে ২৬ মার্চ ঘরের মাটিতে। যেখানে তাদের প্রতিপক্ষ আফগানিস্তান। যাদের বিপক্ষে এ্যাওয়ে ম্যাচে ১-০ গোলে হেরেছিল বাংলাদেশ দল। এশিয়ান কাপের সম্ভাবনা টিকিয়ে রাখতে পরবর্তী ম্যাচগুলোতে জয় চাই জেমি ডে'র শিষ্যদের।

বাফুফের সাধারণ সম্পাদক আবু নাইম সোহাগ বলেছেন, 'ভিসা সংক্রান্ত কাজে ১০ দিনের ছুটিতে যাচ্ছেন জেমি ডে। ফিরে এসে প্রিমিয়ার লিগের ম্যাচ দেখে দল গঠন করবেন তিনি। জাতীয় দলের ক্যাম্প শুরু হবে মার্চের মাঝামাঝিতে। আফগানিস্তান ম্যাচের পরদিনই কন্ডিশনের সঙ্গে মানিয়ে নিতে আমরা কাতারে দল পাঠাবো।'

এই সময়ের মধ্যে একটি প্রস্তুতি ম্যাচ আয়োজনের চেষ্টা করবে বাফুফে। এই দুই ম্যাচের প্রায় দু'মাস পর জুনে আরও দুটি ম্যাচ দিয়ে এবারের বিশ্বকাপ ও এশিয়ান কাপ বাছাইয়ের মিশন শেষ করবে লাল-সবুজরা। শেষ দুটি ম্যাচই হবে বাংলাদেশে। ৪ জুন ভারতের এবং ৯ জুন ওমানের বিপক্ষের ম্যাচ দিয়ে বাছাইপর্বের ইতি টানবে বাংলাদেশ দল।
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
close

উপরে