রোববার, ২৯ জানুয়ারি ২০২৩, ১৪ মাঘ ১৪২৯

গত বছর রাজশাহী থেকে ২২১ মেট্রিক টন আম রপ্তানী করা হয়েছে : কৃষি মন্ত্রণালয়ের অতিরিক্ত সচিব

গাজীপুর প্রতিনিধি
  ০৩ ডিসেম্বর ২০২২, ২৩:১৬

কৃষি মন্ত্রণালয়ের অতিরিক্ত সচিব (গবেষণা) ড. মহা. বশিরুল আলম বলেন, বিদেশে আমাদের দেশে উৎপাদিত আমের ব্যাপক চাহিদা রয়েছে। গত বছর রাজশাহী অঞ্চল থেকে প্রায় ২২১ মেট্রিক টন আম বিদেশে রপ্তানী করা হয়েছে। আম অত্যন্ত সম্ভাবনাময় একটি ফসল। আমরা যদি আরও বেশি নিরাপদ আম উৎপাদন করতে পারি তাহলে আরও বেশি আম রপ্তানী করতে পারবো। আম রপ্তানী করার পূর্বশর্ত হচ্ছে নিরাপদ আম উৎপাদন করা।

বাংলাদেশ কৃষি গবেষণা ইনস্টিটিউট (বারি) এর ফল গবেষণা কেন্দ্র, রাজশাহীর আয়োজনে শ্যামপুর সরেজমিন গবেষণা বিভাগ, অঞ্চল-১-এ শুক্রবার বারি নিরাপদ আম উৎপাদনের কলাকৌশল ও জাত পরিচিতি শীর্ষক এক কৃষক প্রশিক্ষণ অনুষ্ঠানের প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি ওইসব কথা বলেন।

বারি’র মহাপরিচালক (গ্রেড-১) ড. দেবাশীষ সরকারের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি ছিলেন বারি’র পরিচালক (ডাল গবেষণা কেন্দ্র) ড. মো. মহি উদ্দিন, পরিচালক (প্রশিক্ষণ ও যোগাযোগ উইং) ড. ফেরদৌসী ইসলাম, কৃষি স¤প্রসারণ অধিদপ্তর রাজশাহী অঞ্চলের অতিরিক্ত পরিচালক শামসুল ওয়াদুদ। এতে স্বাগত বক্তব্য রাখেন ফল গবেষণা কেন্দ্র, রাজশাহীর প্রধান বৈজ্ঞানিক কর্মকর্তা ড. মো. শফিকুল ইসলাম। অনুষ্ঠানটি সঞ্চালনা করেন ফল গবেষণা কেন্দ্র, রাজশাহীর ঊর্ধ্বতন বৈজ্ঞানিক কর্মকর্তা ড. মো. হাসান ওয়ালীউল্লাহ।

বারি’র মহাপরিচালক (গ্রেড-১) ড. দেবাশীষ সরকার বলেন, আমাদের শুধু বিদেশে রপ্তানী করার জন্য নিরাপদ আম উৎপাদন করলে হবে না, আমাদের দেশের মানুষের জন্যও নিরাপদ আম উৎপাদন করতে হবে। কৃষকেরা যদি সঠিক নিয়ম মেনে সঠিক সময়ে আম গাছে কীটনাশক প্রয়োগ করেন, তাহলে আমের উৎপাদন যেমন বৃদ্ধি পাবে, তেমনি আমরা আমাদের দেশের মানুষের কাছে বিষমুক্ত নিরাপদ আম পৌছে দিতে পারবো।

এ কৃষক প্রশিক্ষণে প্রায় শতাধিক আম চাষী অংশগ্রহণ করেন। প্রশিক্ষণে তাদের নিরাপদ আম উৎপাদনের বিভিন্ন কলাকৌশল এবং বারি উদ্ভাবিত আমের বিভিন্ন উচ্চফলনশীল জাত সম্পর্কে সম্যক ধারণা প্রদান করা হয়।

বারি’র জাতীয় শুদ্ধাচার কৌশল কর্মপরিকল্পনা নিয়ে গণশুনানী

বাংলাদেশ কৃষি গবেষণা ইনস্টিটিউট (বারি) এর প্রশিক্ষণ ও যোগাযোগ উইং এর আয়োজনে বারি’র জাতীয় শুদ্ধাচার কৌশল কর্মপরিকল্পনা ২০২২-২০২৩ বিষয়ে প্রাতিষ্ঠানিক গণশুনানী শুক্রবার রাজশাহীর বিনোদপুর বারি’র ফল গবেষণা কেন্দ্রে অনুষ্ঠিত হয়েছে।

কৃষি মন্ত্রণালয়ের অতিরিক্ত সচিব (গবেষণা) ড. মহা. বশিরুল আলম প্রধান অতিথি হিসেবে এ গণশুনানীর উদ্বোধন করেন। বারি’র পরিচালক (প্রশিক্ষণ ও যোগাযোগ উইং) ড. ফেরদৌসী ইসলাম এর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি উপস্থিত ছিলেন মহাপরিচালক (গ্রেড-১) ড. দেবাশীষ সরকার, পরিচালক (ডাল গবেষণা কেন্দ্র) ড. মো. মহি উদ্দিন, কৃষি স¤প্রসারণ অধিদপ্তর রাজশাহী অঞ্চলের অতিরিক্ত পরিচালক জনাব শামসুল ওয়াদুদ। অনুষ্ঠানে স্বাগত বক্তব্য ও প্রাতিষ্ঠানিক গণশুনানী বিষয়ে সম্যক ধারণা উপস্থাপন করেন প্রশিক্ষণ ও যোগাযোগ উইং এর প্রধান বৈজ্ঞানিক কর্মকর্তা ড. মো. আব্দুর রাজ্জাক। অনুষ্ঠানটি সঞ্চালনা করেন ফল গবেষণা কেন্দ্র, রাজশাহীর প্রধান বৈজ্ঞানিক কর্মকর্তা ড. মো. শফিকুল ইসলাম।

গণশুনানীতে তারা বাংলাদেশ কৃষি গবেষণা ইনস্টিটিউট হতে প্রাপ্ত সেবাসমূহ সম্পর্কে তাদের বিভিন্ন অভিযোগ ও মতামত তুলে ধরেন। বারি’র পক্ষ থেকে এসব অভিযোগের প্রতিকার ও মতামত সম্পর্কে বিভিন্ন তথ্য তুলে ধরা হয়।

যাযাদি/ সোহেল

 

  • সর্বশেষ
  • জনপ্রিয়

উপরে