শুক্রবার, ০৩ ফেব্রুয়ারি ২০২৩, ২০ মাঘ ১৪২৯
walton1

দুবাইয়ে শেষ হলো বইমেলা ও বঙ্গ সংস্কৃতি উৎসব

যাযাদি ডেস্ক
  ০৯ নভেম্বর ২০২২, ১২:০১

মধ্যপ্রাচ্যের দেশ সংযুক্ত আরব আমিরাতের বাণিজ্যিক রাজধানী দুবাইয়ে শেষ হলো বাংলাদেশ কনস্যুলেট প্রাঙ্গণে অনুষ্ঠিত তিন দিনব্যাপী প্রবাসী বাঙালিদের প্রাণের বইমেলা ও বঙ্গ সংস্কৃতি উৎসব।

শুক্রবার (৪ নভেম্বর) থেকে রোববার (৬ নভেম্বর) পর্যন্ত অনুষ্ঠিত এ জমকালো আয়োজনের উদ্যোক্তা ছিলেন বাংলাদেশ কনস্যুলেট জেনারেল দুবাই ও উত্তর আমিরাত।

বইমেলার প্রথমদিন থেকেই প্রবাসী বাংলাদেশীদের স্বতঃস্ফূর্ত অংশগ্রহণ লক্ষ্য করা যায়। শেষদিনে ছিল জমজমাট আয়োজন, আমিরাতে প্রবাসী বইপ্রেমীদের আনাগোনায় মুখর ছিল তিন দিনব্যাপী বই মেলা। শিশু থেকে কিশোর-কিশোরী কিংবা মধ্যবয়সী সবাই স্টলে স্টলে ঘুরে তাদের প্রিয় বইটি কিনেছেন। আমিরাতে বিভিন্ন প্রদেশ থেকে অনেকে পরিবারের সদস্য নিয়ে এসেছেন। তবে মেলায় শিশুদের উৎসাহ ছিল চোখে পড়ার মতো। 

মেলায় আশা ক্রেতা ও দর্শনার্থীরা বলেন, প্রবাসে লেখকের হাত থেকে বই কিনতে পেরে অনেক উচ্ছ্বসিত তারা। যা দেশে প্রতিবছর অমর একুশে বইমেলায় দেখা যায়। এইবার সেই আনন্দ বিদেশের মাটিতে পেয়েছেন তারা। প্রবাসের মাটিতে এমন উদ্যোগ অত্যন্ত প্রশংসনীয়। এ ধরনের মেলা প্রতিবছরে করা দরকার।

রোববার ছুটির দিন হিসেবে মেলার শেষ দিন সরেজমিনে দুবাই বই মেলা ঘুরে দেখা গেছে, সকাল থেকে রাত পর্যন্ত বিভিন্ন বয়সের মানুষ এই বইমেলায় অংশ নিয়েছে। সকাল থেকে ভিড় কম থাকলেও বিকেল হতে মেলার শেষ ঘণ্টা পর্যন্ত মানুষের পদচারণয় মেলা মুখর হয়ে উঠে। সেখান থেকে তারা বাংলা ও ইংরেজি ভাষার বিভিন্ন ধরনের বই কিনেছেন প্রবাসী বাঙালিরা। বেলা ১১টা থেকে রাত ৮টা পর্যন্ত বইমেলা চলে।

ইউএইতে কর্মরত পেশাদার সাংবাদিকদের সংগঠন বাংলাদেশ প্রেসক্লাবের সভাপতি শিবলী আল সাদিক বলেন, বই মেলা বাঙালি জাতির প্রাণের মেলা। প্রতিবছর দেশে এই মেলা অনুষ্ঠিত হলেও মধ্যপ্রাচ্যের দেশ সংযুক্ত আরব আমিরাতে এই প্রথম। যা প্রবাসী বাঙ্গালীদের মাঝে ব্যাপক সাড়া ফেলেছে। অনেক উৎসাহ উদ্দিপনায় মেলায় এসেছেন এবং বই কিনেছেন প্রবাসীরা। সব বয়সীদের স্বতঃস্ফূর্ত অংশগ্রহণ ছিল চোখে পড়ার মতো। বিশেষ করে ক্ষুদে পাঠকের পাশাপাশি ক্ষুদে লেখক রুহিন হোসেনেরও প্রশংসা করেন তিনি।

প্রেসক্লাবের সাধারণ সম্পাদক কবি ও উপন্যাসিক কামরুল হাসান জনি বলেন, বই হৃদয়ের খোরাক, বই প্রাণের সঞ্চার ঘটায়। বাঙালির ইতিহাস ঐতিহ্য সংস্কৃতি কৃষ্টি কালচার শুধু দেশেই এখন সীমাবদ্ধ নেই। দেশের গণ্ডি পেরিয়ে বিদেশের মাটিতেও সুভাষ ছড়াচ্ছে। বই মেলায় ঈদের আমেজ অনুভূত হয়।
তিনি আনন্দ প্রকাশ করে বলেন, দুবাই বইমেলায় "ঘরে ফেরার গান" নামে তার একটি উপন্যাসের মোড়ক উন্মোচিত হয়। যার সবগুলো কপি বিক্রি হয়ে যায়।দুবাইয়ে প্রতিবছর বই মেলা হলে লেখক পাঠকের মিলনমেলায় পরিণত হবে বলে মনে করেন তিনি।

দুবাইয়ে নিযুক্ত কনসাল জেনারেল কবি ও সাহিত্যিক বি এম জামাল হোসেন বলেন, বাংলা সাহিত্য ও সংস্কৃতিকে সারা বিশ্বে ছড়িয়ে দিতে হলে সবাইকে এগিয়ে আসতে হবে। প্রতিটি দেশেই এমন ভালো উদ্যোগ গুলো গ্রহণ করতে হবে। এসময় তিনি আয়োজন সফল করার জন্য সংশ্লিষ্ট সবাইকে ধন্যবাদ জানান এবং আগামী বছরও দুবাইতে বইমেলা করার ঘোষণা দেন।

সমাপনী অনুষ্ঠানে ইউএইতে কর্মরত সাংবাদিকবৃন্দের হাতে সম্মাননা স্মারক তুলে দেন কনসাল জেনারেল বি এম জামাল হোসেন। পরে মনোমুগ্ধকর সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান, র‍্যাফেল ড্র ও পুরস্কার বিতরণীর  মধ্যে দিয়ে সমাপনী অনুষ্ঠান শেষ হয়।

যাযাদি/ সোহেল

  • সর্বশেষ
  • জনপ্রিয়

উপরে