শনিবার, ২৬ নভেম্বর ২০২২, ১১ অগ্রহায়ণ ১৪২৯

কুষ্টিয়ায় পদ্মা থেকে রাসেল ভাইপার জব্দ, গড়াইয়ে অবমুক্তকরণ

কুষ্টিয়া  প্রতিনিধি
  ২৭ সেপ্টেম্বর ২০২২, ২১:৩৭

কথায় আছে - কুয়া থেকে উঠে সাগরে পড়েছি। কুলকিনারা খুঁজে পাচ্ছিনা।' ঠিক তার বিপরীত ঘটনা ঘটেছে কুষ্টিয়ার কুমারখালী উপজেলায়। পদ্মা নদী থেকে একটি বিষধর রাসেল ভাইপার সাপ জব্দ করে গড়াই নদে অবমুক্তকরণ করা হয়েছে।

মঙ্গলবার বেলা ১১.০০ টার দিকে উপজেলার কয়া ইউনিয়নের সৈয়দ মাসুদ রুমী সেতুর নীচে গড়াই নদে অবমুক্তকরণ করা হয় অবমুক্তকরণ করেন উপজেলা বন বিভাগের কর্মকর্তারা।

অবমুক্তকরণের এতথ্যটি নিশ্চিত করেছেন উপজেলা বনবিভাগের কর্মকর্তা মো. আরিফুল ইসলাম। তিনি বলেন, ' পদ্মা নদীতে মাছ ধরা দুয়ার জালে বিষাক্ত রাসেল ভাইপার আটকা পড়ে। সকালে খবর পেয়ে বিলপ্তি প্রায় এই সাপটি জব্দ করা হয়। এবং গড়াই ব্রীজের নীচে অবমুক্তকরণ করা হয়েছে।'

এদিকে গড়াই নদে বিষাক্ত রাসেল ভাইপার সাপটি অবমুক্তকরণ করায় আতঙ্কে রয়েছেন নদীপাড়ের বাসিন্দারা। তাঁরা বলেন, ' নদের পাড়ে হাজার হাজার মানুষের বসবাস। এখানকার মানুষ বিভিন্ন প্রয়োজনে নদ ব্যবহার করেন। কিন্তু এখানে এত ভয়ংকর সাপটি ছেড়ে দেওয়া ঠিক হয়নি। এযেন সাগর থেকে থেকে এনে কুয়াতে ফেলা হলো।'

উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স সুত্রে জানা গেছে, রাসেল ভাইপার সাপটি খুবই বিষাক্ত। সাপটি বাংলাদেশে চন্দ্রবোড়া বা উলুবোড়া নামেও পরিচিত। দেশে সেসব সাপ দেখা যায়, তাদের মধ্যে রাসেল ভাইপার সবচেয়ে বিষাক্ত। এসাপের কামড়ে শরীরের দংশ অংশে বিষ ছড়িয়ে অঙ্গহানি, ক্রমাগত রক্তপাত, রক্তজমাট বাঁধা, স্নায়ু বৈকল্য, চোখ ভারি হয়ে যাওয়া, পক্ষাঘাত, কিডনির ক্ষতিসহ বিভিন্ন রকম শারীরিক উপস্বর্গ দেখা যেতে পারে।

 

যাযাদি/ সোহেল

  • সর্বশেষ
  • জনপ্রিয়

উপরে