সিলেটে ট্রিপল মার্ডার

‘মায়ের প্ররোচনায় খুন করে আবাদ’

‘মায়ের প্ররোচনায়  খুন করে আবাদ’

সিলেটের শাহপরাণ থানা এলাকার আলোচিত ট্রিপল মার্ডারের ঘটনায় ঘাতক চেলে আবাদ তার মায়ের প্ররোচনায় পারিবারিক কলহের জেরে সৎ মা, ভাই ও বোনকে কুপিয়ে খুন করেছে মর্মে পুলিশ ও আদালতের কাছে স্বীকার করেছে।

শনিবার বিকেল সাড়ে ৩টা থেকে সন্ধ্যা সাড়ে ৭টা পর্যন্ত সিলেট মেট্রোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেট আদালত-৩ এর বিজ্ঞ বিচারক শারমিন খানম নিলা’র আদালতে আসামি আবাদ এ স্বীকারোক্তি দিয়েছে। এর আগে শাহপরাণ থানা পুলিশের কাছে আবাদ ১৬১ ধারা মোতাবেক পারিবারিক কলহে তার মায়ের শলাপরামর্শে এই খুন করেছে বলে স্বীকার করেছে।

এদিকে, এই ঘটনায় আবাদ ও তার মায়ের বিরুদ্ধে হত্যা মামলা দায়ের করা হয়েছে। শাহপরান থানায় মামলা দায়ের করেছেন নিহত রুবিয়ার ভাই আনোয়ার হোসেন। আসামি সুলতানা বেগম রুমি বিয়ানীবাজার থানার আষ্টঘরী গ্রামের আবদাল হোসেনের প্রথম স্ত্রী। আর আবাদ হোসেন তাদের ছেলে। নিহত রুবিয়া বেগম আবদাল হোসেনের দ্বিতীয় স্ত্রী।

শাহপরান থানার ওসি সৈয়দ আনিসুর রহমান জানান, শুক্রবার রাতে মামলাটি রেকর্ড করা হয়। মামলায় আসামি করা হয়েছে নিহত রুবিয়ার সৎ ছেলে আবাব হোসেন (২২) ও তার মা সুলতানা বেগমকে (৪৫)। হত্যা ও হত্যায় প্ররোচণার দুটি ধারায় মামলাটি দায়ের করা হয়েছে। ঘটনাস্থল থেকে আবাদকে আটক করা হয়েছে। এ মামলায় তাকে গ্রেফতার দেখানো হয়েছে।

এর আগে গত বৃহস্পতিবার দিবাগত রাত সাড়ে ১২টার দিকে সিলেট শহরতলীর খাদিমপাড়া ইউনিয়নের বহর এলাকার মীর মহল্লা গ্রামের ৯ নম্বর বাসায় আবাদ হোসেন তার সৎ মা রুবিয়া বেগম (৩০), বোন জান্নাতুল মাহা (৯) ও ভাই তাহসানকে (৭) দা দিয়ে কুপিয়ে হত্যা করেন। এ ঘটনার পর ঘটনাস্থল থেকে আবাদকে আটক করে পুলিশ।

মামলার বাদী আনোয়ার হোসেন বলেন, দুই-তিন মাস আগে আমার বোন আমাকে ফোন করে জানিয়েছিল তার সৎ ছেলে তার সাথে খারাপ আচরণ করে। তার এই কাজে সতীন সুলতানা বেগম রুমি প্ররোচনা দিত।

যাযাদি/ এস

  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

আরও খবর

Copyright JaiJaiDin ©2021

Design and developed by Orangebd


উপরে