​ স্বামীর লাশের পাশে দু'দিন ধরে অসুস্থ স্ত্রী!

​  স্বামীর লাশের পাশে দু'দিন ধরে অসুস্থ স্ত্রী!

একই ঘরে স্বামীর লাশের পাশে দুদিন ধরে শুয়েছিলেন বৃদ্ধা স্ত্রী, তাদের সন্তান পাশের ঘরে থাকলেও জানত না যে বাবা মারা গেছে।

ঢাকার পল্লবীর একটি ফ্ল্যাট থেকে পুলিশ সোমবার প্রায় ৮০ বছর বয়সী ওই ব্যক্তির গলিত লাশ উদ্ধারের পর তার অসুস্থ স্ত্রীকে হাসপাতালে ভর্তি করেছে।

সব দেখে পল্লবী থানার এসআই শফিকুল ইসলাম বলেছেন, ওই বাড়ির পরিবেশ দেখে তার ‘অস্বাভাবিক’ মনে হয়েছে।

মৃত ব্যক্তির নাম রোকনুদ্দীন আহমেদ। তিনি বাংলাদেশ প্রকৌশল বিশ্ববিদ্যালয়ের (বুয়েট) শিক্ষক ছিলেন বলে জানা গেলেও কোন সময়কালে তিনি শিক্ষকতা করতেন, তা জানাতে পারেনি পুলিশ।

রোকনুদ্দীনের স্ত্রী নীলুফার ইয়াসমিনকে হলি ফ্যামিলি রেড ক্রিসেন্ট হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

ওই বাসায় ছিল তাদের ছেলে শাহরিয়ার আহমেদ রূপম (৪০)।

রূপম পুলিশকে বলেছেন, দুদিন আগে তিনি তার বাবা-মাকে তাদের ঘরে গিয়ে দেখে এসেছিলেন। তখন তারা শুয়ে ছিলেন। সোমবার দুর্গন্ধ পেয়ে ওই ঘরে গিয়ে দেখেন যে তার বাবা মৃত, শরীর ফুলে গেছে। পাশেই শোয়া তার মা প্রায় অচেতন।

রুপম তখন ফোন করে প্রতিবেশীকে ঘটনাটি জানালে তারা থানায় খবর দেয়। তখন পুলিশ যায় সেই বাড়িতে।

লাশের পচন দেখে ডিএমপির পল্লবী জোনের সহকারী পুলিশ কমিশনার মো. শাহ কামাল বলেন, ‘ধারণা করা হচ্ছে, অন্তত ৩৬ ঘণ্টা আগে রোকনুদ্দীনের মৃত্যু হয়েছে।’

রুপমের বিষয়ে তিনি বলেন, ‘কথা বলে এবং আচরণে আমাদের কাছে মনে হয়েছে, তার এই সন্তানটি শারীরিক এবং মানসিকভাবে বেশ অসুস্থ।’

পুলিশ জানতে পেরেছে, ন্যাশনাল মেডিকেল কলেজের শিক্ষার্থী ছিলেন রূপম। কিন্তু লেখাপড়া শেষ করেননি। বিয়ে হলেও ছাড়াছাড়ি হয়ে যায়।

পল্লবী থানার এসআই শফিকুল ইসলাম বলেন, ‘রূপম তার ঘর থেকে খুব একটা বের হত না। সব সময় দরজা লাগিয়ে রাখত। খাবারও সেভাবে খেত না।’

কোনো আত্মীয়-স্বজনের সঙ্গে এই পরিবারের তেমন যোগাযোগ ছিল না বলেও জানান এসআই শফিকুল। ‘তাদের ফ্ল্যাটের দরজা-জানালা সব সময় বন্ধ থাকত,’ বলেন তিনি।

এই ঘটনায় থানায় একটি অপমৃত্যুর মামলা হয়েছে বলেন এই পুলিশ কর্মকর্তা।

যাযাদি/ এমডি

  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

আরও খবর

সকল ফিচার

রঙ বেরঙ
উনিশ বিশ
জেজেডি ফ্রেন্ডস ফোরাম
নন্দিনী
আইন ও বিচার
ক্যাম্পাস
হাট্টি মা টিম টিম
তারার মেলা
সাহিত্য
সুস্বাস্থ্য
কৃষি ও সম্ভাবনা
বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি

Copyright JaiJaiDin ©2021

Design and developed by Orangebd


উপরে