এক জেলায় ডাকাতি করে অন্য জেলায় ঘুমায়

এক জেলায় ডাকাতি করে অন্য জেলায় ঘুমায়

এক জেলায় ডাকাতি করে, অন্য জেলায় ঘুমায়। আলীর দলের ডাকাতি চুয়াডাঙ্গায় ও ঝিনাইদহ জেলাজুড়ে। গ্রেপ্তার এড়াতে তারা এক জেলায় ডাকাতি করে অন্য জেলায় ঘুমায়। সবশেষ গত ২২ নভেম্বর চুয়াডাঙ্গায় বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষার্থীর ল্যাপটপ ছিনতাই করেও ঝিনাইদহে পালিয়ে যায়। এর আগে ঝিনাইদহে ডাকাতি করে এসে চুয়াডাঙ্গায় আশ্রয় নেয়।

যখন-তখন যাকে-তাকে কোপায় আলী। নৃশংস প্রকৃতির লোক সে। তার কাজে কেউ বাধা দিলে তাকে কুপিয়ে আহত করে। কোপ থেকে রক্ষা পাননি তার শাশুড়িও। পারিবারিক কলহের জেরে শাশুড়ির গলায় কোপ দেয় আলী। অবশেষে পুলিশের জালে বন্দি হয়েছে ভয়ঙ্কর ডাকাত সরদার আলী হোসেন খলিফা (৩০) ও তার সহযোগী রতন (২২)। বুধবার ভোরে শহরের ঈদগাহ ময়দানের পাশ থেকে তাকে গ্রেপ্তার করা হয়। এ সময় তার কাছ থেকে একটি রামদা, একটি খেলনা পিস্তল ও বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রের লুণ্ঠিত ল্যাপটপ উদ্ধার করা হয়।

গ্রেপ্তার ডাকাত সরদার মোহাম্মদ আলীর বিরুদ্ধে ১২টি ও তার দলের বিরুদ্ধে ২০-এর অধিক মামলা রয়েছে। আলী চুয়াডাঙ্গার সদর উপজেলার ডিঙ্গেদহ নফরকান্দি গ্রামের মোসলেম হাজাম খলিফার ছেলে। আর রতন পৌর এলাকার বেলগাছি মুসলিমপাড়ার আব্দুস সাত্তারের ছেলে।

সদর থানার ওসি মোহাম্মদ মহসীন বলেন, মোহাম্মদ আলী ডাকাত সরদার। তার দলে তারা মোট ৩ জন। চুয়াডাঙ্গায় সংঘটিত প্রায় সব ডাকাতিতেই এই ডাকাত দলের হাত রয়েছে।

  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

আরও খবর

সকল ফিচার

রঙ বেরঙ
উনিশ বিশ
জেজেডি ফ্রেন্ডস ফোরাম
নন্দিনী
আইন ও বিচার
ক্যাম্পাস
হাট্টি মা টিম টিম
তারার মেলা
সাহিত্য
সুস্বাস্থ্য
কৃষি ও সম্ভাবনা
বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি

Copyright JaiJaiDin ©2021

Design and developed by Orangebd


উপরে