খোকসায় মাছ চুরির অভিযোগে কৃষককে পিটিয়ে হত্যা

= বিজয়নগরে সংঘর্ষে যুবক নিহত = ডুমুরিয়ায় সাবেক স্বামীর হাতে নারী খুন
খোকসায় মাছ চুরির অভিযোগে কৃষককে পিটিয়ে হত্যা

কুষ্টিয়ার খোকসায় মাছ চুরির অভিযোগে কৃষককে হত্যার অভিযোগ উঠেছে ইউপি চেয়ারম্যানের বিরুদ্ধে। ব্রাহ্মণবাড়িয়ার বিজয়নগরে দুই গ্রামবাসীর সংঘর্ষে নিহত হয়েছেন এক যুবক। অন্যদিকে খুলনার ডুমুরিয়ায় সাবেক স্বামীর হাতে খুন হয়েছেন এক নারী। আমাদের আঞ্চলিক স্টাফ রিপোর্টার ও প্রতিনিধিদের পাঠানো তথ্য নিয়ে ডেস্ক রিপোর্টে বিস্তারিত:

কুষ্টিয়া ও খোকসা : কুষ্টিয়ার খোকসার পলস্নীতে মাছ চুরির অভিযোগে স্থানীয় চেয়ারম্যান ও তার লোকজন এক কৃষককে পিটিয়ে হত্যা করেছে বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে। মঙ্গলবার ভোর ৪টার দিকে জসিম শেখ (৩৫) নামে ওই ব্যক্তিকে মোবাইল ফোনে বাড়ি থেকে ডেকে নিয়ে পিটিয়ে হত্যা করা হয়। নিহত জসিম শেখ উপজেলার খোকসা ইউনিয়নের রতনপুর গ্রামের রওশন আলী শেখের ছেলে।

জসিম শেখের স্ত্রী আছিয়া খাতুন অভিযোগ করে বলেন, মঙ্গলবার ভোর ৪টার দিকে চেয়ারম্যানের লোকজন মোবাইলে ফোন করে তার স্বামীকে চেয়ারম্যান ডেকে নিয়ে যায়। জসি সেখানে গেলে চেয়ারম্যান ও তার লোকজন পুকুরের মাছ চুরির অভিযোগ করে। জসিম শেখ অভিযোগ অস্বীকার করলে চেয়ারম্যান লোকজন নিয়ে তার স্বামীকে বেধড়ক মারধর করে। আশঙ্কাজনক অবস্থায় এলাকাবাসী তাকে উপজেলা স্বাস্থ্যকেন্দ্রে ভর্তি করলে সেখানে চিকিৎসাধীন অবস্থায় সকাল সাড়ে ৬টায় জসিমের মৃতু্য হয়।

হাসপাতালের জরুরি বিভাগের চিকিৎসক ডা. আশরাফুল আলম বিষয়টি নিশ্চিত করে জানান, মাথায় মারাত্মক জখমের কারণে তার মৃতু্য হয়েছে।

পিটিয়ে হত্যার বিষয়ে মুঠোফোনে যোগাযোগের চেষ্টা করা হলে চেয়ারম্যান আইয়ুব আলীর ফোনটি বন্ধ পাওয়া যায়।

খোকসা থানার ওসি সৈয়দ আশিকুর রহমান জানান, রতনপুরে এক কৃষককে পিটিয়ে আহত করার পর হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তার মৃতু্য হয়েছে। তবে কী কারণে এই হত্যাকান্ড ঘটেছে তা এখনো নিশ্চিত হওয়া যায়নি। অভিযোগ পেলে তদন্ত করে ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে বলে জানান তিনি। পুলিশ মরদেহ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য কুষ্টিয়া জেনারেল হাসপাতালে পাঠিয়েছে।

ব্রাহ্মণবাড়িয়া : ব্রাহ্মণবাড়িয়ার বিজয়নগরে দু'দল গ্রামবাসীর সংঘর্ষে জিহাদ ওরফে জিয়া (৩৮) নামে এক যুবক নিহত হয়েছেন। মঙ্গলবার দুপুরে উপজেলার সিঙ্গারবিল ইউনিয়নের সিঙ্গারবিল গ্রামে এ ঘটনা ঘটে।

নিহত জিয়া উপজেলার সিঙ্গারবিল ইউনিয়নের কাশিনগর গ্রামের মালেক মিয়ার ছেলে। তিনি গত ১০ বছর ধরে সিঙ্গারবিল গ্রামের ইব্রাহিম মিয়ার বাড়িতে গৃহকর্মীর কাজ করতেন। এ ঘটনায় পুলিশ মালু মিয়াসহ দুজনকে গ্রেপ্তার করেছে।

এলাকাবাসী ও পুলিশ জানায়, চার বছর আগে সিঙ্গারবিল গ্রামের মালু মিয়ার ছেলে সেলিম মিয়ার সঙ্গে একই এলাকার ইব্রাহিম মিয়ার মেয়ের বিয়ে হয়। বিয়ের পর সেলিম বিদেশ চলে যান। রোববার রাতে সেলিম মিয়া বিদেশ থেকে ফোনে তার স্ত্রীকে গালমন্দ করেন। শ্বশুর ইব্রাহিম মিয়া বিষয়টি জানতে পেরে সোমবার রাতে বেয়াই বাড়ি গিয়ে মালু মিয়াকে গালাগাল করেন।

মঙ্গলবার সকালে ইব্রাহিম মিয়ার ছেলে বাজারে যাওয়ার সময় মালু মিয়ার বাড়ির লোকজন তাকে গালাগাল করলে দুই পরিবারের লোকজন সংঘর্ষে লিপ্ত হয়। সংঘর্ষে ইব্রাহিম মিয়ার বাড়ির কাজের লোক জিয়া আহত হন। তাকে ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি করার পর বেলা ৩টার দিকে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তার মৃতু্য হয়।

ডুমুরিয়া (খুলনা) : খুলনার ডুমুরিয়ায় পুনঃবিয়ে করতে রাজি না হওয়ায় তালাকপ্রাপ্ত স্বামীর হাতে পারভীন বেগম (৩৫) নামে এক নারী খুন হয়েছেন। এ ঘটনায় পুলিশ স্বামী লিটন মোল্যাকে গ্রেপ্তার করেছে। সোমবার দিবাগত রাত ১টায় ডুমুরিয়া শহীদ স্মৃতি মহিলা ডিগ্রি কলেজের পাশে একটি বাড়িতে এ ঘটনা ঘটে।

পুলিশ ও স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, ডুমুরিয়া বাজার এলাকার কিনু মোল্যার ছেলে লিটন মোল্যার সঙ্গে ৫ বছর আগে উপজেলার বাহাদুরপুর গ্রামের মান্নান শেখের মেয়ে পারভীনের দ্বিতীয় বিয়ে হয়। বিয়ের পর থেকে এ পর্যন্ত তাদের তিনবার ছাড়াছাড়ি হয়েছে। সব শেষ গত ২৪ মে তাদের মধ্যে আবারও ছাড়াছাড়ি হয়। পারভীন তার প্রথম পক্ষের দুই মেয়ে নিয়ে ডুমুরিয়া মহিলা কলেজের পাশে একটি বাড়িতে ভাড়া থাকতেন। লিটন মোল্যা তালাকপ্রাপ্ত স্ত্রী পারভীনকে আবারও বিয়ের প্রস্তাব দিলে পারভীন তা প্রত্যাখ্যান করেন। সোমবার দিবাগত রাতে লিটন পারভীনের ঘরের দরজা ভেঙে ভিতরে প্রবেশ করেন। এ সময় ধস্তাধস্তির এক পর্যায়ে লিটন পারভীনের পেটে এবং বুকে ছুরিকাঘাত করে। তাকে খুলনা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নেওয়ার পথে মৃতু্য হয়। খবর পেয়ে রাতেই ঘটনাস্থল পরিদর্শন করে পুলিশ।

ডুমুরিয়া থানার ওসি মো. ওবাইদুর রহমান বলেন, পারভীনকে খুনের ঘটনায় তার বড় মেয়ে নুরজাহান বাদী হয়ে থানায় হত্যা মামলা করেছে। মামলায় লিটন মোল্যাকে (৩৮) গ্রেপ্তার করা হয়েছে।

  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

আরও খবর

Copyright JaiJaiDin ©2021

Design and developed by Orangebd


উপরে