নারী গার্মেন্টকর্মীর সম্ভ্রমের মূল্য ৮৫ হাজার টাকা!

নারী গার্মেন্টকর্মীর সম্ভ্রমের মূল্য ৮৫ হাজার টাকা!

ধর্ষণের শিকার এক নারীর অভিভাবককে ভয়ভীতি দেখিয়ে আইনের আশ্রয় নিতে না দিয়ে জোর করে মীমাংসা করার অভিযোগ ওঠেছে। এই কাজে সহযোগিতার অভিযোগ ওঠেছে নীলফামারী পৌরসভার ছয় নম্বর ওয়ার্ডের সাবেক কাউন্সিলর মো. ওবায়দুল ইসলামসহ এলাকার মাতুব্বদের বিরুদ্ধে। আর ওই নারীর ইজ্জতের মূল্য নির্ধারণ হয়েছে মাত্র ৮৫ হাজার টাকা। ঘটনাটি ঘটে নীলফামারী সদর উপজেলার কুন্দুপুকুর ইউনিয়নে।

জানা যায়, সদর উপজেলার এক কিশোরী পৌর শহরে এভারগ্রিন নামে এক কোম্পানিতে শ্রমিক হিসেবে কর্মরত ছিলেন। একই কোম্পানিতে কাজের সুবাদে পৌরসভার ছয় নম্বর ওয়ার্ড দক্ষিণ হাড়োয়া ফকিরগঞ্জ এলাকার তফিল উদ্দিনের ছেলে আবুল কালাম আজাদের (২২) সঙ্গে তার প্রেমের সম্পর্ক গড়ে ওঠে। এরপর বিয়ের প্রলোভন দেখিয়ে আবুল কালাম আজাদ তাকে ধর্ষণ করলে অসুস্থ হয়ে পড়ে ওই কিশোরী। কিশোরীর চাচা ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে বলেন, 'আমরা গরিব মানুষ, টাকা-পয়সা নেই। ঝামেলায় যেতে চাই না। এলাকার মাতুব্বরদের পরামর্শে ৮৫ হাজার টাকায় আমরা মীমাংসা করেছি।'

নীলফামারী পৌরসভার সাবেক কাউন্সিলর মো. ওবায়দুল ইসলাম ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে বলেন, তিনি সেই বৈঠকে ছিলেন। তবে কে কীভাবে আপস করেছে, সে ব্যাপারে জানেন না।

এ ব্যাপারে নীলফামারীর অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (সদর সার্কেল) এএসএম মোকতারুজ্জামান বলেন, বিষয়টি তাদের জানা নেই। নির্যাতিত বা তার অভিভাবকরা অভিযোগ জানালে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

আরও খবর

Copyright JaiJaiDin ©2021

Design and developed by Orangebd


উপরে