জগন্নাথপুরে অবহেলায় নষ্ট হচ্ছে কেন্দ্রীয় শহীদ মিনার

জগন্নাথপুরে অবহেলায় নষ্ট হচ্ছে কেন্দ্রীয় শহীদ মিনার

সুনামগঞ্জের জগন্নাথপুরের শহীদ মিনারটি শুধু দেশের শিক্ষার ইতিহাসেই নয়, জাতির ইতিহাসেরও এক অনন্য অধ্যায়। ৫২-এর ভাষা শহীদদের স্মরণে নির্মিত এ শহীদ মিনার ৬২-এর শিক্ষা আন্দোলন, ৬৯-এর গণঅভু্যত্থান, ৭১-এর মহান মুক্তিযুদ্ধ, ৯০-এর স্বৈরাচারবিরোধী আন্দোলনসহ সব গণতান্ত্রিক আন্দোলন-সংগ্রামের সাক্ষী। ২০১৮ সালে জেলা পরিষদ পুরাতন শহীদ মিনারটি ভেঙে নতুন করে ১৩ লাখ টাকা ব্যয়ে নির্মাণ করে। পরে জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান ব্যারিস্টার ইকরামুল হক ইমন শহীদ মিনারটি উদ্বোধন করেন। উদ্বোধনের দুই বছর যেতে না যেতেই সেটির বিভিন্ন স্থানে ফাটল দেখা দেয়।

জানা যায়, ১৯৭১ সালে জগন্নাথপুর বর্তমান শহীদ মিনারটি স্থাপন করা হয়। আকারে অত্যন্ত ছোট এ শহীদ মিনারে এক পাশে বেদিটি ধসে যায় এবং বেশ কয়েক জায়গায় বড় ধরনের ফাটল ও বাঁকা হয়ে আছে।

সরেজমিনে গিয়ে দেখা যায়, প্রতিনিয়ত শহীদ মিনারে অবমাননা করা হচ্ছে ভাষা শহীদদের। স্যান্ডেল পরে একেবারে মূল বেদিতে উঠে আড্ডা, গল্প চলে। অতিদ্রম্নত শহীদ মিনারটি আরও দর্শনীয় করে স্থাপন করার দাবি জানিয়েছেন সাধারণ শিক্ষার্থীরা ও এলাকাবাসী। মাসের পর মাস পরিষ্কার না করার ফলে শহীদ মিনারের সামনের অংশে শ্যাওলা পড়ছে। বছরের গুরুত্বপূর্ণ দিনগুলো ছাড়া শহীদ মিনার পড়ে থাকে অবহেলায়।

মুক্তিযোদ্ধা উপজেলা কমান্ডার আব্দুল কাইয়ুম বলেন, 'আমরা স্বাধীন মাস এলে শহীদ মিনারে গিয়ে শহীদদের প্রতি শ্রদ্ধা জানাই। শহীদ মিনার ধসে পড়ে যাচ্ছে, অথচ কেউ দেখছে না যা দুঃখজনক। জগন্নাথপুর উপজেলা নির্বাহী অফিসার সাজিদুল ইসলাম বলেন, পরবর্তীতে উপজেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে নতুন করে শহীদ মিনার নির্মাণ করার চিন্তা-ভাবনা করা হচ্ছে।

  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

আরও খবর

Copyright JaiJaiDin ©2022

Design and developed by Orangebd


উপরে