অর্থসংকটে ব্যাহত অগ্নিদগ্ধ বৃষ্টির উন্নত চিকিৎসা

অর্থসংকটে ব্যাহত অগ্নিদগ্ধ বৃষ্টির উন্নত চিকিৎসা

ডিমলা (নীলফামারী) সংবাদদাতা

৯ বছরের শিশু বৃষ্টি আক্তার শীত নিবারন করতে গিয়ে অগ্নিদগ্ধ হয়ে শরীরের ৬০ ভাগ পুড়ে গিয়ে নীলফামারীর ডিমলা হাসপাতালে মৃতু্যর সঙ্গে পাঞ্জা লড়ছে। অপরদিকে তার অসহায় প্রতিবন্ধী বাবাকে লড়তে হচ্ছে মেয়ের চিকিৎসা খরচ যোগানোর লড়াইয়ে।

জানা গেছে, দক্ষিণ খড়িবাড়ী মুক্তা নিকেতন সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের দ্বিতীয় শ্রেণির ছাত্রী বৃষ্টি আক্তার (৯) উপজেলার গয়াযবাড়ী ইউনিয়নের চার নম্বর ওয়ার্ডের (উকিলপাড়া) গ্রামের প্রতিবন্ধী আতাউর রহমানের মেয়ে। গত শুক্রবার সন্ধ্যায় খড়কুটা জ্বালিয়ে শীত নিবারনের সময় বৃষ্টির পরনের কাপড়ে আগুন লেগে তার শরীরের প্রায় ৬০ শতাংশ পুড়ে যায়। অগ্নিদগ্ধ বৃষ্টিকে ওই রাতেই চিকিৎসার জন্য ডিমলা হাসপাতালে ভর্তি করা হলে কর্তব্যরত চিকিৎসক উন্নত চিকিৎসার জন্য রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে প্রেরণ করেন। কিন্তু অসহায় পরিবারটি চিকিৎসার খরচ বহন করতে না পারায় বৃষ্টিকে আবারও ডিমলা হাসপাতালে এনে ভর্তি করা হয়।

সোমবার ডিমলা উপজেলায় আইনশৃঙ্খলা সভায় বৃষ্টির বিষয়টি সাংবাদিকরা তুলে ধরলে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা জয়শ্রী রানী রায় বৃষ্টির খোঁজখবর নেয়ার জন্য হাসপাতালে ছুটে যান এবং বৃষ্টির উন্নত চিকিৎসার জন্য সরকারিভাবে আর্থিক সহায়তা দেয়ার আশ্বাস প্রদান করে বৃষ্টিকে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের বার্ন ইউনিটে পাঠানোর উদ্যোগ গ্রহণ করেন। এ ব্যাপারে ডিমলা উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা জয়শ্রী রানী রায় বলেন, অগ্নিদগ্ধ বৃষ্টিকে দেখতে ডিমলা হাসপাতালে গিয়েছিলাম। তার উন্নত চিকিৎসার জন্য যাবতীয় ব্যবস্থা করার চেষ্টা করছি।

এ অবস্থায় বৃষ্টির অসহায় বাবা প্রতিবন্ধী আতাউর রহমান মেয়ের চিকিৎসার জন্য সবার কাছে সাহায্যের আবেদন করেছেন। সাহায্য পাঠানোর জন্য বিকাশ নম্বর ০১৭৪৪৩২০২৫৩ (দাদু)।

  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

Copyright JaiJaiDin ©2021

Design and developed by Orangebd


উপরে