logo
রোববার, ২০ সেপ্টেম্বর ২০২০ ৫ আশ্বিন ১৪২৭

  ক্রীড়া ডেস্ক   ১৭ সেপ্টেম্বর ২০২০, ০০:০০  

ইয়ামিনের স্বপ্ন পূরণ করলেন মুশফিক

আমার জীবনে একটা স্বপ্ন ছিল আমি মুশফিক ভাইয়ার সঙ্গে দেখা করব। এ স্বপ্ন এখন আমার পূরণ হলো। এর চেয়ে বেশি খুশির বিষয় আমার হতে পারে না। -শেখ ইয়ামিন আহমেদ সিনান

ইয়ামিনের স্বপ্ন পূরণ করলেন মুশফিক
খুদে ক্রিকেটার শেখ ইয়ামিন আহমেদ সিনানের হাতে বুধবার সকালে নিজের জার্সি তুলে দিচ্ছেন জাতীয় দলের উইকেটরক্ষক ব্যাটসম্যান মুশফিকুর রহিম। এ সময় ইয়ামিনের সঙ্গে ছিলেন তার মা ঝর্ণা আক্তার -ওয়েবসাইট
কয়েকদিন আগেরই ঘটনা। মা-ছেলের ক্রিকেট খেলার বেশ কিছু ছবি সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম ফেসবুকে ভাইরাল হয়েছে হুহু করে। যে মাকে নিয়ে এত আলোচনা সেই মায়ের নাম ঝর্ণা আক্তার চিনি। গত শুক্রবার মাকে নিয়েই পল্টন ময়দানে ক্রিকেট আনন্দে মেতে উঠেছিলেন ১১ বছর বয়সি শিশু শেখ ইয়ামিন আহমেদ সিনান। আলোচনার জন্ম দেওয়া সেই ঘটনার রেশ কাটতে না কাটতে আরও বিস্ময় উপহার পেলেন ইয়ামিন। প্রিয় ক্রিকেটার মুশফিকুর রহিমের কাছ থেকে জার্সি পেয়েছেন তিনি। আর প্রিয় তারকার সঙ্গে দেখা করতে পেরে দারুণ আপস্নুত ইয়ামিন।

শুক্রবার ফেসবুকে ভাইরাল হওয়া ছবিতে দেখা যায়, পাঞ্জাবি-পায়জামা পরিহিত ইয়ামিন বল নিয়ে এগিয়ে যাচ্ছে। অপর প্রান্তে ব্যাট করছেন তার মা। এই খেলার ছবি আরও বেশি করে সবার নজর কেড়েছে- কারণ ইয়ামিনের মা ঝর্ণা আক্তার বোরখা পরেই ছেলের সঙ্গে খেলছিলেন। তাদের খেলার এই দৃশ্যই চোখে পড়ে পত্রিকার কয়েকজন ফটোগ্রাফারের। ক্যামেরায় এমন দৃশ্য ধরার পরই তা মুহূর্তে ভাইরাল হয়ে যায় সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে।

মাদ্রাসাছাত্র শেখ ইয়ামিন আহমেদ সিনান খুব ক্রিকেটভক্ত হওয়ায় সে প্রশিক্ষণ নিতে আসে কবি নজরুল ক্রিকেট অ্যাকাডেমিতে। শুক্রবারও সিনানকে ক্রিকেট প্রশিক্ষণের ক্লাসে নিয়ে এসেছিলেন মা ঝর্ণা আক্তার। শুরুর দিকে বন্ধুরা, প্রশিক্ষক আসেননি বলেই ফাঁকা সময়টা এভাবেই কাটানোর মনস্থির করেন মা-ছেলে। তাই ক্রিকেটপাগল শিশু ইয়ামিন মাকে নিয়েই শুরু করে দেয় নেট প্র্যাকটিস।

আর ছোট্ট সেই ইয়ামিনেরই বুধবার স্বপ্ন পূরণ করলেন জাতীয় ক্রিকেটার মুশফিকুর রহিম। জাতীয় দলের সাবেক অধিনায়ক এদিন সকালেই ইয়ামিনের সঙ্গে দেখা করেছেন। এ সময়ে ইয়ামিনের মা ও বোন উপস্থিত ছিলেন। মুশফিকের কাছ থেকে এমন উপহার পেয়ে খুব উচ্ছ্বসিত সিনানের মা ঝর্ণা আক্তার। তিনি সংবাদমাধ্যমকে বলেছেন, 'মুশফিকুর রহিম নিজের আগ্রহে আমাদের সঙ্গে দেখা করতে চেয়েছেন। এটা অন্য রকম অনুভূতি। তিনি এত বড় একজন খেলোয়াড়। আমার ছেলে তাকে খুব পছন্দ করে ও অনুসরণ করে। তিনি এক জোড়া গস্নাভস, অটোগ্রাফসহ ব্যাট দিয়েছেন। উনার একটি জার্সিও দিয়েছেন। খুব ভালো লাগছে, আমার ছেলে খুব খুশি। কখনো কল্পনা করিনি আমার ছেলে মুশফিক ভাইকে এত কাছ থেকে দেখবেন।'

আরামবাগের এক মাদ্রাসাতে চতুর্থ শ্রেণিতে পড়ে ইয়ামিন। আর এই ছেলেকেই বড় ক্রিকেটার বানানোর স্বপ্ন দেখেন মা ঝর্ণা আক্তার। তিনি বলেন, 'ছেলেকে নিয়ে দুটো স্বপ্ন দেখি। প্রথম স্বপ্ন, আমার ছেলে কোরআনে হাফেজ হবে। দ্বিতীয়, আমার ছেলে আন্তর্জাতিক খেলোয়াড় হবে, একদিন বাংলাদেশ দলের হয়ে খেলবে।'

নিজের প্রিয় ক্রিকেটারকে কাছে পেয়ে দারুণ উচ্ছ্বসিত ইয়ামিনও, 'আমার জীবনে একটা স্বপ্ন ছিল আমি মুশফিক ভাইয়ার সঙ্গে দেখা করব। এ স্বপ্ন এখন আমার পূরণ হলো। এর চেয়ে বেশি খুশির বিষয় আমার হতে পারে না।' আর শুধু উচ্ছ্বাস প্রকাশ করেই থামেননি ইয়ামিন। মুশফিকের মতো ক্রিকেটার হওয়ার জন্য পরামর্শও চেয়ে নিয়েছেন তিনি। মুশফিকও সঠিক পরামর্শ দিয়েছেন তাকে। এছাড়া তাকে নানাভাবে উৎসাহও দেন মুশফিক।
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

সকল ফিচার

রঙ বেরঙ
উনিশ বিশ
জেজেডি ফ্রেন্ডস ফোরাম
নন্দিনী
আইন ও বিচার
ক্যাম্পাস
হাট্টি মা টিম টিম
তারার মেলা
সাহিত্য
সুস্বাস্থ্য
কৃষি ও সম্ভাবনা
বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি
close

উপরে