logo
রোববার, ২০ সেপ্টেম্বর ২০২০ ৫ আশ্বিন ১৪২৭

  অনলাইন ডেস্ক    ২৭ ডিসেম্বর ২০১৯, ০০:০০  

পুলিশকে নিয়ে শেষ আটে আবাহনী

পুলিশকে নিয়ে শেষ আটে আবাহনী
ক্রীড়া প্রতিবেদক

ফেডারেশন কাপ ফুটবল টুর্নামেন্টে গ্রম্নপ 'এ' থেকে কোয়ার্টার ফাইনাল নিশ্চিত করেছে টুর্নামেন্টের বর্তমান চ্যাম্পিয়ন ঢাকা আবাহনী ও নবাগত পুলিশ স্পোর্টিং ক্লাব। বৃহস্পতিবার বঙ্গবন্ধু জাতীয় স্টেডিয়ামে অনুষ্ঠিত ডু'অর ডাই ম্যাচটিতে আবাহনীর সঙ্গে পেরে উঠেনি আরামবাগ ক্রীড়া সংঘ। ৫-১ গোলের হারে তাই টুর্নামেন্ট থেকে বিদায় নিয়েছে তারা। অন্যদিকে দুই ম্যাচে ৬ পয়েন্ট নিয়ে গ্রম্নপের চ্যাম্পিয়ন হয়েছে ঢাকা আবাহনী।

১০ মিনিটে ডানপ্রান্ত ধরে ছোট বক্সের কাছ থেকে সতীর্থ সানডে চিজোবার উদ্দেশ্যে দারুণ এক পাস বাড়িয়ে দেন জুয়েল রানা। ডান পায়ের ফাইনাল টাচে বল জালে জড়িয়ে দিয়ে আবাহনীকে লিড এনে দেন সানডে (১-০)। ২২ মিনিটে একই রকমভাবে বা প্রান্ত থেকে সানডে বল বাড়িয়ে দেন। তবে জুয়েল রানা সেই কাজটি করে দেখাতে পারেননি যেটি সানডে করেছিলেন। পোস্টের কাছ থেকে করা তার শটটি লক্ষ্যভ্রষ্ট হয়। ৩৪ মিনিটে পোস্ট লক্ষ্য করে শট নিয়েছিলেন আরামবাগের মো. রাসেল। কিন্তু তার শটটি দারুণ দক্ষতায় প্রতিহত করে আবাহনীর রক্ষণভাগ। ৩৬ মিনিটে ব্যবধান দ্বিগুণ করার দারুণ সুযোগ হাতছাড়া করেছেন আবাহনীর হাইতিয়ান ফরোয়ার্ড ফিলস ব্যালফোর্ট। বা প্রান্ত থেকে সানডের ডান পায়ের পাসে ছোট বক্সে বল পান তিনি। কিন্তু তার শট খুব সহজেই গ্রিপে নিতে সক্ষম হন আরামবাগের গোলরক্ষক। ৩৯ মিনিটে ব্যালফোর্টের জোগান দেয়া বলে বা প্রান্ত থেকে ডান পায়ের শট নেন ফরোয়ার্ড নাবীব নেওয়াজ জীবন। কিন্তু বক্সে সেই বলটি জোড়ালো শটে ক্লিয়ার করেন আরামবাগের একজন ডিফেন্ডার।

দ্বিতীয়ার্ধের শুরুর দিকে সানডে চিজোবা নিজেদের মধ্যে বল আদান প্রদান করতে করতে বল পাঠান আরামবাগের বক্সে। সেখান থেকে বল পেয়ে পোস্টের খুব কাছ থেকে ডান পায়ের শটে লক্ষ্যভেদ করেন আবাহনীর এক ফুটবলার (২-০)। ৫৭ মিনিটে ডান প্রান্ত থেকে অভিজ্ঞ রায়হান হাসানের লম্বা থ্রোতে বক্সে লাফিয়ে উঠে হেডে আবাহনীকে তৃতীয় গোল এনে দেন ডিফেন্ডার নাসির উদ্দিন চৌধুরী (৩-০)। ৭৩ মিনিটে ডান প্রান্ত থেকে আরামবাগের এক ডিফেন্ডারকে কাটিয়ে বক্সে সানডেকে বল পাঠান নাবীব নেওয়াজ জীবন। দ্রম্নতগতির বলটিতে কোনোমতে পা লাগিয়ে পাস দেন সানডে। বল বুঝে নিয়ে জোরালো শটে আরামবাগের জাল কাঁপান মিডফিল্ডার মামুনুল ইসলাম (৪-০)। ৮৯ মিনিটে বা প্রান্ত থেকে বদলি খেলোয়াড় রুবেল মিয়ার ক্রসে লাফিয়ে উঠে হেডে লক্ষ্যভেদ করেন মো. ফয়সাল (৫-০)। ৮৫ মিনিটে ছোট বক্স থেকে মুরাদের করা গোলে ব্যবধান কিছুটা কমায় আরামবাগ (৫-১)। তবে শেষ পর্যন্ত বড় জয় নিয়ে মাঠ ছাড়ে আবাহনী। টুর্নামেন্টে নিজেদের প্রথম ম্যাচে বাংলাদেশ পুলিশের কাছে ৩-১ গোলে হেরে যায় আরামবাগ। তাই টুর্নামেন্টে টিকে থাকতে বৃহস্পতিবার আবাহনীর বিপক্ষে জয়ের বিকল্প ছিল না তাদের। দুই ম্যাচে পয়েন্টশূন্য আরামবাগকে তাই গ্রম্নপপর্ব থেকেই বিদায় নিতে হয়েছে।

আজ দুপুর ৩.৩০ মিনিটে বসুন্ধরার প্রতিপক্ষ চট্টগ্রাম আবাহনী। দ্বিতীয় ম্যাচে সন্ধ্যা সোয়া ছয়টায় শেখ জামালের মুখোমুখি হবে সাইফ স্পোর্টিং ক্লাব।
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

সকল ফিচার

রঙ বেরঙ
উনিশ বিশ
জেজেডি ফ্রেন্ডস ফোরাম
নন্দিনী
আইন ও বিচার
ক্যাম্পাস
হাট্টি মা টিম টিম
তারার মেলা
সাহিত্য
সুস্বাস্থ্য
কৃষি ও সম্ভাবনা
বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি
close

উপরে