​১৯ জেলে ফেরত দিল মিয়ানমার

​১৯ জেলে ফেরত দিল মিয়ানমার

সেন্ট মার্টিনের অদূরে বঙ্গোপসাগরে মাছ ধরার সময় চারটি নৌকাসহ ১৯ বাংলাদেশি জেলেকে ধরে নিয়ে যাওয়ার পর ‘নির্যাতন করে’ ছেড়ে দিয়েছে মিয়ানমার কর্তৃপক্ষ। বুধবার রাতে ফেরত আসা জেলেরা মারধরের অভিযোগ করেন। এর আগের দিন তাদের অস্ত্রের মুখে জিম্মি করে ধরে নিয়ে যায় মিয়ানমার নৌবাহিনীর সদস্যরা।

এ বিষয়টি নিশ্চিত করে সাবরাং ইউনিয়ন পরিষদের ৭নং ওয়ার্ডে ইউপি সদস্য নুরুল আমিন বলেন, 'ধরে নিয়ে যাওয়া ১৯ জেলে ফেরত এসেছে। ফেরত আসা জেলেদের সে দেশের নৌবাহিনী সদস্যরা ব্যাপক মারধর করেছে। তাদের শরীরে আঘাতের চিহ্ন রয়েছে। এর আগে সেন্ট মার্টিনের কাছাকাছি সাগরে মাছ শিকার অবস্থায় ধরে নিয়ে যায়।’

জনপ্রতিনিধি ও স্থানীয়দের ভাষ্য মতে, বুধবার ভোরে শাহপরীর দ্বীপের বাসিন্দা কবির আহমদ, মো. বাইল্যা, মো. এনামুল্লাহ, আমির হোসেনের মালিকাধীন নৌকা দিয়ে ১৯ মাঝিমাল্লা সাগরে মাছ ধরতে যায়। এ সময় কিছুক্ষণ পর মিয়ানমারের নৌবাহিনীর সদস্যরা অস্ত্রের মুখে জিম্মি করে বাংলাদেশি জেলেদের ধরে নিয়ে যায়। পরে একই দিন রাতে জেলেদের ব্যাপক মারধর করে নৌকাতে থাকা মাছ ও জাল নিয়ে ফেরত দেন তারা। এই বিষয়টি স্থানীয় সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষকে অবহিত করা হয়েছে।

ফেরত আসা নৌকার মাঝি আমির হোসেন জানান, ‘সেন্ট মার্টিনের কাছাকাছি সাগরে মাছ শিকার অবস্থায় আমাদের সে দেশের নৌবাহিনী ধরে নিয়ে যায়। সেখানে নিয়ে যাওয়ার পর ব্যাপক মারধর করে। পরে অনেক কান্নকাটি করার পর তাদের ফেরত দেয়। তবে আমাদের নৌকাতে থাকা মাছ ও জাল নিয়ে গেছে।’

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক কোস্টগার্ডের এক কর্মকর্তা জানান, ‘বাংলাদেশি ধরে নিয়ে যাওয়া জেলেদের ফেরত দিয়েছে। কিন্তু এ বিষয়ে কেউ তাাকে অবহিত করেনি।’

টেকনাফ-২ ব্যাটালিয়ান বিজিবির উপ-অধিনায়ক মেজর রুবায়াৎ কবীর জানান, ‘ধরে নিয়ে যাওয়া বাংলাদেশি জেলেরা ফেরত আসার খবর পেয়েছেন। বিষয়টি খতিয়ে দেখবেন।’

যাযাদি/ এস

  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

আরও খবর

Copyright JaiJaiDin ©2021

Design and developed by Orangebd


উপরে