লেখক মুশতাকের লাশ হস্তান্তর, অপমৃত্যু মামলা ও ভিসেরা সংরক্ষণ

লেখক মুশতাকের লাশ হস্তান্তর, অপমৃত্যু মামলা ও ভিসেরা সংরক্ষণ

ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে কাশিমপুর হাইসিকিউরিটি কেন্দ্রীয় কারাগারের বন্দী লেখক মুশতাক আহমেদ (৫৩) এর লাশ শুক্রবার দুপুরে তার স্বজনদের কাছে হস্তান্তর করা হয়েছে। এছাড়া লাশের সুরুহহাল প্রতিবেদন তৈরি ও ময়নাতদন্ত সম্পন্নের পর তার মৃত্যুর কারণ নিশ্চিতে লাশের ভিসেরা সংরক্ষণ করা হয়েছে।

মৃত্যুর ঘটনায় কাশিমপুর হাই সিকিউরিটি কেন্দ্রীয় কারাগারের জ্যেষ্ঠ জেল সুপার মো. গিয়াস উদ্দিন বাদি হয়ে গাজীপুর মহানগরের সদর থানায় অপমৃত্যু মামলা করেছেন।

সুরতহাল প্রতিবেদন প্রস্তুতকারী ও গাজীপুর মেট্রোপলিটন সদর থানার উপ-পরিদর্শক (এসআই) সৈয়দ বায়েজীদ জানান, এক্সিকিউটিভ ম্যাজিস্ট্রেট ও গাজীপুরের সহকারি কমিশনার মো. ওয়াসিম উজ্জামানের উপস্থিতিতে শুক্রবার সকাল সাড়ে ১০টার দিকে নিহত মুশতাক আহমেদের মরদেহের সুরতহাল করা হয়েছে। তার পিঠে আগের যে কোন সময় ‘ঘা‘ হওয়ার দাগ পাওয়া গেছে। ডান হাতে হালকা লালচে কালো ছোট দাগ পাওয়া গেছে। ধারণা করা হচ্ছে হাসপাতালে আনার সময় বা গাড়িতে উঠানো-নামানোর সময় এ দাগ হয়ে থাকতে পারে।

শহীদ তাজউদ্দীন আহমদ মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালসে আসা লেখক মুশতাক আহমেদের বড় ভাই ডা. নাফিছুর রহমান সাংবাদিকদের বলেন, ‘তার মরদেহ আমি নিজে দেখেছি। কোনো প্রকার সমস্যা আমার চোখে পড়েনি। ময়না তদন্ত হয়েছে। প্রতিবেদন ছাড়া আমি এ ব্যাপারে কী বলব? আমাদের কোনো অভিযোগ নাই। আমরা কোনো মামলাও করব না।‘

শুক্রবার বাদ মাগরিব লালমাটিয়া সি ব্লকের মিনার মসজিদে তার জানাযা অনুষ্ঠিত হবে। পরে আজিমপুর কবরস্থানে তার মরদেহ দাফন হবে।

গাজীপুর শহীদ তাজউদ্দিন আহমেদ মেডিক্যাল কলেজের ফরেনসিক বিভাগের প্রধান ডা. শাফী মোহাইমেন জানান, বৃহস্পতিবার রাতে মৃত অবস্থায় তাকে এ হাসপাতালে আনা হয়েছে। দৃশ্যত: গায়ে কোনো আঘাতের চিহ্ন পাওয়া যায়নি। ময়না তদন্ত প্রতিবেদন পাওয়ার পর বিস্তারিত বলা যাবে। তবে মৃত্যুর কারণ অধিকতর নিশ্চিত করতে তার ভিসেরা সংরক্ষণ করা হয়েছে। তা দিয়ে ঢাকার সিআইডি’র ল্যাবে কেমিক্যাল এনলাইসিস এবং ঢাকা মেডিকেলে হিস্টোপ্যাথলজি পরীক্ষা করা হবে।

কাশিমপুর হাইসিকিউরিটি কেন্দ্রীয় কারাগারের জ্যেষ্ঠ জেল সুপার মো. গিয়াস উদ্দিন জনান, বৃহষ্পতিবার সন্ধ্যায় কাশিমপুর হাইসিকিউরিটি কারাগারের ভেতরেই মুশতাক আহমেদ হঠাৎ অসুস্থ হয়ে পড়েন। পরে তাকে কারা হাসপাতালে নেয়া হয়। সেখান থেকে উন্নত চিকিৎসার জন্য তাকে গাজীপুর শহীদ তাজউদ্দীন আহমদ মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়। সেখানে কর্তব্যরত চিকিৎসক রাত ৮টা ২০ মিনিটে তাকে মৃত ঘোষণা করেন।

গত বছরের মে মাসে লেখক মুশতাক আহমেদ, কার্টুনিস্ট আহমেদ কবির কিশোর, রাষ্ট্রচিন্তার সদস্য দিদারুল ইসলাম ও ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জের পরিচালক মিনহাজ মান্নানকে র‌্যাব গ্রেপ্তার করে। সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম ব্যবহার করে রাষ্ট্রের বিরুদ্ধে ষড়যন্ত্রমূলক কথাবার্তা ও গুজব ছড়ানোর অভিযোগে এরাসহ মোট ১১ জনের বিরুদ্ধে ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে মামলা করে র‌্যাব। সেই মামলায় দুজন জামিনে মুক্তি পেলেও মুশতাক ও কিশোরের জামিন আবেদন ছয়বার নাকচ হয়।

যাযাদি/ এমডি

  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

আরও খবর

Copyright JaiJaiDin ©2021

Design and developed by Orangebd


উপরে