দুর্গাপুরে প্রতিপক্ষের ছুরিকাঘাতে বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী নিহত

দুর্গাপুরে প্রতিপক্ষের ছুরিকাঘাতে বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী নিহত

নেত্রকোনার দুর্গাপরে দোকানের সামনে রাখা চেয়ারে বসার তুচ্ছ ঘটনাকে কেন্দ্র করে প্রতিপক্ষের হামলায় মো. আনোয়ার হোসেন (২৫) নামে এক বিশ্ববিদ্যালয় পড়ুয়া ছাত্র নিহত হয়েছেন।

নিহতের বাবা ও চাচাতো ভাই হামলা ফিরাতে এলে তারাও গুরুতর আহত হন। আহতদের উদ্ধার করে ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

বৃহস্পতিবার রাতে উপজেলার চন্ডিগড় ইউনিয়নের বড়ইউন্দ বাজারে এ ঘটনাটি ঘটে।

নিহত আনোয়ার হোসেন বড়ইউন্দ গ্রামের মকবু হোসেনের ছেলে এবং ময়মনসিংহ আনন্দমোহন বিশ্ববিদ্যালয়ের মাস্টার্স এ পড়াশোনা করেন।

গুরুতর আহতরা হলেন, আনোয়ারের বাবা মকবুল হোসেন (৫৫) ও চাচাতো ভাই মনির হোসেন (২৪)।

এলাকাবাসী ও পুলিশ সূত্রে জানা গেছে, বৃহস্পতিবার রাত ৭টার দিকে আনোয়ার হোসেন বড়ইউন্দ গ্রামের বাজারে যান। সেখানে একটি চায়ের দোকানে রাখা চেয়ারে বসতে গেলে পার্শ্ববর্তী কলমাকান্দা উপজেলার নাজিরপুর ইউনিয়নের আনন্দপুর এলাকার মরম আলীর ছেলে জুয়েল মিয়া (২০) তাকে বাঁধা দেন। এ নিয়ে উভয়ের মধ্যে কথাকাটাকাটির এক পর্যায়ে বিতর্কে জড়িয়ে গেলে স্থানীয়রা তাদের থামিয়ে দেন। রাত ৮টার দিকে আনোয়ার বাজারের একটি মুদির দোকানে বসেছিলেন। এ সময় তার চাচা ইউনিয়ন পরিষদের সাবেক সদস্য আবদুল জব্বার বিষয়টি মিমাংসার জন্য আনোয়ারকে আরেকটি দোকানের সামনে ডেকে নিয়ে যান। কিন্তু সেখানে ওত পেতে থাকা জুয়েল মিয়া, তার বড় ভাই সোহেল মিয়া, বাবা মরম আলী, আত্মীয় আমছর আলীসহ কয়েকজন দেশীয় অস্ত্র নিয়ে আকস্মিক হামলা চালান। এতে ছুরিকাঘাতে আনোয়ার, মকবুল, মনির গুরুতর আহত হন। পরে স্থানীয়রা তাদের উদ্ধার করে দুর্গাপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক আনোয়ারকে মৃত ঘোষণা করেন। গুরুতর আহত মকবুল ও মনিরকে উন্নত চিকিৎসার জন্য রাতেই ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়।

দুর্গাপুর থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) শাহনুর এ আলম বলেন, নিহত ছাত্রের লাশ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য নেত্রকোনা আধুনিক সদর হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। ঘটনাস্থলে পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে। জড়িতদের আটক করতে পুলিশি অভিযান অব্যাহত রয়েছে।

যাযাদি/ এমডি

  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

আরও খবর

Copyright JaiJaiDin ©2021

Design and developed by Orangebd


উপরে