​ গাজীপুরে দোকানি খুন : ২৮ ঘণ্টায় মামলার চার্জশিট দিল পুলিশ

​  গাজীপুরে দোকানি খুন : ২৮ ঘণ্টায় মামলার চার্জশিট দিল পুলিশ

গাজীপুরের শ্রীপুর উপজেলায় দোকানি খুনের মামলা দায়েরের ২৮ ঘণ্টার মধ্যেই আদালতে চার্জশিট দিয়েছে বলে জানিয়েছেন শ্রীপুর থানার পরিদর্শক (তদন্ত) মাহফুজ ইমতিয়াজ ভুইয়া। খুনের ঘটনার পরপরই খুনিও আটক হয়েছিল।

নিহত দোকানি মোখলেছুর রহমান (৩২) ময়মনসিংহ জেলার ভালুকা উপজেলার জামিরাপাড়া গ্রামের আফাজ উদ্দিনের ছেলে। তিনি শ্রীপুরের বেড়াইদেরচালা এলাকায় জমি কিনে নিজ বাড়িতে স্ত্রী-সন্তান নিয়ে বসবাস করতেন এবং লিচুবাগান এলাকায় মা টেলিকম নামের একটি মুদি দোকান চালাতেন।

গ্রেপ্তার খুনি মো. রুবেল (৩০) ঝালকাঠির রাজাপুর থানার নৈহাটি গ্রামের শামসুল হকের ছেলে।

নিহতের ভাই মো. আনসারুল হক বলেন, তার ভাই বেড়াইদেরচালা গ্রামের লিচুবাগান এলাকায় জাহাঙ্গীর সুপার মার্কেটে মা টেলিকম নামের একটি মুদি দোকান চালাত। বুধবার (২৮ জুলাই) সকাল সাড়ে ১০টার দিকে রুবেল ওই দোকানের ড্রয়ার থেকে তিনটি মোবাইল ফোন ও নগদ টাকা ছিনিয়ে নেয়। এ সময় মোখলেছুর তাকে বাধা দিলে রুবেল মোখলেছকে ছুরিকাঘাত করলে ঘটনাস্থলেই তার মৃত্যু হয়।

এ সময় রুবেল পালানোর চেষ্টা করলে স্থানীয়রা তাকে আটক করে পিটুনি দিয়ে পুলিশের কাছে হস্তান্তর করে বলে জানান আনসারুল। এ ঘটনায় ওইদিন রাত ৯টার দিকে নিহতের স্ত্রী সুরভী আক্তার হত্যা মামলা করেন, যার একমাত্র আসামি রুবেল।

শ্রীপুর থানার পরিদর্শক (তদন্ত) মাহফুজ ইমতিয়াজ ভুইয়া বলেন, কয়েকদিন আগে রুবেল এ এলাকায় আসে। চলমান লকডাউনে আশপাশের দোকান বন্ধ থাকলেও বুধবার সকালে মোখলেছ তার দোকান খুলেছিলেন। এ সময় রুবেল ওই দোকানের সামনে অবস্থান নেয়। এক পর্যায়ে কিছু বুঝে ওঠার আগেই রুবেল মোখলেছের দোকানের ভেতরে ঢুকে পড়ে এবং ক্যাশ থেকে তিনটি মোবাইল ও নগদ ১ হাজার ১১৭ টাকা লুটে নেয়।

এ সময় মোখলেছ তাকে বাধা দিলে রুবেল তার সঙ্গে থাকা ছুরি দিয়ে মোখলেছের গলায় এবং শরীরের বিভিন্ন স্থানে একাধিক আঘাত করে পালিয়ে যাওয়ার চেষ্টা করে। এতে ঘটনাস্থলেই মোখলেছ মারা যান। রুবেল পালানোর চেষ্টাকালে স্থানীয় লোকজন তাকে ধরে পুলিশে দেয়।

মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা শ্রীপুর থানার উপ-পরিদর্শক মফিজুর রহমান মল্লিক জানান, ঘটনার পরপরই পুলিশের আসামিকে গ্রেপ্তার করে আদালতে তোলা হয়। মামলার একমাত্র আসামি ছিনতাইকারী রুবেল আদালতে ১৬৪ ধারায় হত্যার দায় স্বীকার করেছেন। তাই দ্রুত সময়ের মধ্যে মামলাটির চূড়ান্ত রিপোর্ট দেওয়া গেছে।

যাযাদি/এস

  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

আরও খবর

Copyright JaiJaiDin ©2021

Design and developed by Orangebd


উপরে