​ভাগনে হলো চেয়ারম্যান, নাচতে গিয়ে মামার মৃত্যু

​ভাগনে হলো চেয়ারম্যান, নাচতে গিয়ে মামার মৃত্যু

স্বতন্ত্র প্রার্থী হয়ে ভাগনে বিপুল ভোটে চেয়ারম্যান নির্বাচিত হয়েছেন। এতে এলাকাবাসী যেমন খুশি, তেমন খুশি মামা ইকারত মালিথাও। এই খুশিতে সোমবার সকালে গ্রামের চায়ের দোকানে এলাকাবাসীর সঙ্গে নাচানাচি করতে যান বয়োবৃদ্ধ ইকারত। আর তখনিই ঘটে বিপত্তি। হার্টের রোগী ইকারত মালিথা স্ট্রক করে লুটিয়ে পড়েন মাটিতে। এরপর হাসপাতালে নেওয়া হলেও মারা যান সত্তর বছর বয়সি ইকারত মালিথা।

ঘটনাটি ঘটেছে চুয়াডাঙ্গার আলমডাঙ্গা উপজেলার বাড়াদি ইউনিয়নে।

উপজেলার বাড়াদি ইউনিয়নে চেয়ারম্যান পদে মোটরসাইকেল প্রতীকে স্বতন্ত্র প্রার্থী হয়ে সর্বোচ্চ ৩ হাজার ৮৫৪ ভোট পেয়ে বেসরকারিভাবে বিজয়ী হয়েছেন তোবারক হোসেন। এই খুশিতে সোমবার সকাল ৯টার দিকে গ্রামের একটি দোকানের সামনে আনন্দ-উল্লাস করছিল এলাকাবাসী। এ সময় তাদের সঙ্গে তোবারকের মামা ইকারত মালিথা নাচানাচি করতে করতে স্ট্রক করে মাটিতে পড়ে যান। তাকে উদ্ধার করে দ্রুত চুয়াডাঙ্গা সদর হাসপাতালে নেওয়ার পথে মৃত্যু হয় তার।

ইকারত মালিথা আলমডাঙ্গা উপজেলার বাড়াদি ইউনিয়নের অনুপ নগর গ্রামের খোকা মালিথার ছেলে। তিনি বীর মুক্তিযোদ্ধা ও অবসরপ্রাপ্ত পুলিশ সদস্য ছিলেন।

নবনির্বাচিত চেয়ারম্যান তবারক আলী এ ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে জানান, তার মামা হার্টের রোগী ছিলেন। ভোটের বিজয়ে শীতের সকালে আনন্দ-উল্লাস করতে গিয়ে তিনি স্ট্রক করেন। এরপর চুয়াডাঙ্গা সদর হাসপাতালে নেওয়া হলে সেখানে তার মৃত্যু হয়।

যাযাদি/ এস

  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

আরও খবর

Copyright JaiJaiDin ©2022

Design and developed by Orangebd


উপরে